Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ৩০ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

কৃষকের কথা ভাবুন 

এক বিঘা জমিতে সবজি চাষ করতে খরচ হয় ২০ হাজার টাকার মতো। অথচ সবজি বিক্রি করে ১৫ হাজার টাকাও উঠছে না। কৃষকের লোকসান ৫ হাজার টাকা। এই চিত্র দেশের উত্তরাঞ্চলের। তবে সব জায়গায়ই কৃষকের লোকসান হচ্ছে, একটু কমবেশি। মধ্যস্বত্বভোগীদের নিয়ে অনেক কথা হয়। তাদের নিয়ন্ত্রণ, অবৈধ মুনাফা রোধ করা হবে। অনেক দিন ধরেই এমন কথা শুনে আসছি। আজও কৃষকের দুঃখ দূর করার ব্যবস্থা হয়নি। বাড়তি আয়ের জন্য যারা সবজি চাষ করেছিলেন, তাদের অবস্থা আরও শোচনীয়। এই মৌসুমে আবার ধান বিক্রি করেও কৃষকের লাভ হয়নি। এমন হলে কৃষক বাঁচবে কীভাবে? দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কৃষিপণ্য সংরক্ষণে আধুনিক গুদাম দরকার। তাও করা হচ্ছে না। লোকসান সত্তে¡ও কৃষক হাল ছাড়েনি। তবে আর কতকাল হাল ধরে রাখতে পারবে কে জানে! এত কিছুর পরও দেশে সবজির উৎপাদন কমেনি। এদিকে জমি কমেছে, ধানের উৎপাদন বেড়েছে। বাজার মনিটরিংয়ে যারা কাজ করেন, তারা সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করলে বাজারের এমন দশা হওয়ার কথা কি?
মুহাম্মদ শফিকুর রহমান
মিরপুর, ঢাকা।


সেবার নামে ব্যবসা
বাংলাদেশে বিভিন্ন ধরনের কোম্পানির গ্রাহকদের সেবা দেওয়ার জন্য আলাদা আলাদা হেলপলাইন আছে। যেখানে কল করে গ্রাহক তাদের সমস্যার সমাধান করে। বিশেষ করে সিম কোম্পানি ও ব্যাংক প্রতিষ্ঠানগুলোর হেলপলাইনে গ্রাহকদের বেশিরভাগ কল করে সেবা নিতে। কিন্তু প্রতি মিনিট সেবার বিনিময়ে প্রায় তিন টাকা কেটে নেওয়া হয়। যেটা অনেক ব্যয়বহুল। সেবার নামে এই লোক ঠকানো ব্যবসা বন্ধের জন্য কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
জুলফিকার হোসেন
বারিধারা, ঢাকা।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

৪ জুলাই, ২০২০
৩ জুলাই, ২০২০
২ জুলাই, ২০২০
৩০ জুন, ২০২০
২৯ জুন, ২০২০
২৮ জুন, ২০২০
২৭ জুন, ২০২০
২৬ জুন, ২০২০
২৫ জুন, ২০২০
২৪ জুন, ২০২০
২৩ জুন, ২০২০
২২ জুন, ২০২০
২১ জুন, ২০২০
২০ জুন, ২০২০
১৬ জুন, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন