Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

‘জঙ্গি কার্যক্রম নিয়ন্ত্রণে থাকলেও আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না’

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১ জুলাই, ২০২০, ২:১০ পিএম

সফলতার সঙ্গে জঙ্গিদের সক্ষমতা ভেঙে দেয়া হয়েছে। তবে আমরা কিন্তু আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না। এসব কথা বলেছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন।

বুধবার (১ জুলাই) সকাল ৯টার দিকে গুলশানে হলি আর্টিসান হামলার ঘটনাস্থলে এসে ফুল দিয়ে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন ‘আমরা কিন্তু আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না। আমরা জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে যে সফলতা অর্জন করেছি সেই সফলতাকে ধরে রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সকল ইউনিট কাজ করছি। আমরা এক ধাপ এগিয়ে আছি, জঙ্গিরা যখনই কোনো পরিকল্পনা করছে আমরা তখনই গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী কাজ করছি এবং তাদের আটক করতে সক্ষম হচ্ছি।’


তিনি বলেন, ‘হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় নৃশংস হামলার চতুর্থ বার্ষিকী আজ। ২০১৬ সালের (১ জুনাই) এই দিনে অস্ত্রধারী জঙ্গিরা রাজধানীর গুলশানে অবস্থিত হলি আর্টিসান বেকারিতে হামলা করে। সেখানে অবস্থানরত ব্যক্তিদের জিম্মি করে এবং পরে তাদের মধ্যে ২০ জনকে নির্মমভাবে হত্যা করে।

২০১৬ সালের এই দিনে হলি আর্টিসান বেকারিতে যে মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে কাপুরুষিত ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় যারা নিহত হয়েছেন তাদের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করছি। নিহতদের স্বজনরা যাতে এই শোক বইতে পারেন সেজন্য তাদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।’

র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, ‘হলি আর্টিসান হামলার ঘটনার পর থেকে র‌্যাব, পুলিশসহ গোয়েন্দা সংস্থা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সব ইউনিট একত্রিত হয়ে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযান পরিচালনা করি। সফলতার সঙ্গে জঙ্গিদের সক্ষমতা ভেঙে দিতে আমরা সফল হয়েছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা দেশের জঙ্গি নিয়ন্ত্রণে সফলতা পেয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘হলি আর্টিসানে হামলার ঘটনার আগে থেকেই আমরা দেশের জঙ্গিবিরোধী বিভিন্ন অভিযান পরিচালনা করেছি। এখন পর্যন্ত র‌্যাব দুই হাজারেরও অধিক জঙ্গি সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। হলি আর্টিসান হামলার ঘটনায় নিহত ও পরিকল্পনাকারীসহ জঙ্গি সদস্যদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। মামলা তদন্ত শেষে চার্জশিট আদালতে জমা দেয়া হয়েছে। বর্তমানে মামলাটি বিচারাধীন রয়েছে। আমরা আশা করছি, খুব দ্রুতই এর বিচার সম্পন্ন হবে।’

‘জঙ্গিবাদ দমনে দেশের সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে জনপ্রতিনিধিসহ সকল পর্যায়ের মানুষ আমাদের সহযোগিতা করেছে। এর জন্য সবাইকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।’

জঙ্গি সংগঠনগুলোর সক্ষমতা কেমন? সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাব ডিজি বলেন, ‘জঙ্গিবাদ একটি বৈশ্বিক সমস্যা। সারা বিশ্ব জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় কাজ করছে। আমরাও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী চেষ্টা চালিয়ে জঙ্গিবাদ দমন করতে সক্ষম হয়েছি। আমি মনে করি, জঙ্গিবিরোধী কার্যক্রম সফলভাবে আমরা বাস্তবায়ন করতে পেরেছি। এই সফলতার ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে বলে আমরা আশা করছি।’

র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, ‘আমরা কিন্তু আত্মতুষ্টিতে ভুগছে না। জঙ্গিবাদ নির্মুলে যে সফলতা অর্জন করেছি, সেই সফলতাকে ধরে রাখতে গোয়েন্দা সংস্থাসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সকল ইউনিট কাজ করছে। বর্তমান পরিস্থিতিতেও বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে জঙ্গি সদস্যদের গ্রেফতার করছে।’

‘আমি বলতে চাই, আমরা এক ধাপ এগিয়ে আছি, জঙ্গি সদস্যরা যখনই কোনো পরিকল্পনা করছে তখনই আমরা গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী কাজ করছি এবং তাদের আটক করতে সক্ষম হচ্ছে। জঙ্গি কার্যক্রম আমাদের দেশের যথেষ্ট পরিমাণে নিয়ন্ত্রণে আছে বলে আমি মনে করি।’

এ সময় র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক, গোয়েন্দা শাখার প্রধান, লিগেল অ্যান্ড মিডিয়া উইং পরিচালকসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: র‌্যাব মহাপরিচালক
আরও পড়ুন