Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৬ আগস্ট ২০২০, ০১ ভাদ্র ১৪২৭, ২৫ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

নেত্রকোনার দুর্গাপুর সীমান্ত এলাকায় নিখোঁজের ৩৬ ঘন্টা পর শিশুর লাশ উদ্ধার

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩ জুলাই, ২০২০, ৪:৫০ পিএম

কচুর লতা কুঁড়াতে গিয়ে নিখোঁজের ৩৬ ঘন্টা পর ভারতীয় সীমান্ত এলাকার ঝর্ণার গর্ত থেকে শিশু আফসানা বেগমের (১১) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে নেত্রকোনা জেলার দুর্গাপুর উপজেলার দুর্গাপুর সদর ইউনিয়নের ভারতীয় সীমান্তবর্তী খামারখালীপাড়া নামক স্থানে।
আফসানা বেগম খামারখালীপাড়া গ্রামের দিনমজুর আবু ছালেক এর কনিষ্ট কন্যা। সে স্থানীয় একটি মাদরাসায় পড়াশুনা করে আসছিলো।স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দরিদ্র পরিবারের সন্তান আফসানা মায়ের কথায় রান্নার জন্য বুধবার সকালে পার্শ্ববর্তী কালিকাপুর গ্রামের পাহাড়ী টিলার আশপাশে কচুর লতা (সব্জি) কুড়াতে গিয়ে আর বাড়ী ফিরে আসেনি। পরিবারের লোকজন চারপাশে আফসানাকে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধান পায়নি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় লোকজন ভারতীয় সীমান্তবর্তী বিএসএফ ক্যাম্প এর কাছাকাছি ঝর্ণা থেকে পানি আনতে গিয়ে ঝর্ণার গর্তে একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখতে পায়। তারা তাৎক্ষনিক বিষয়টি দুর্গাপুর থানা পুলিশকে অবহিত করে। পুলিশ রাত নয়টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। ময়না তদন্তের জন্য লাশটি শুক্রবার সকালে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিজানুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শিশুটির মুখে কাপড় গুজানো ও গলায় ওড়না পেচানো অবস্থায় পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, শিশুটিকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে শিশুটির বাবা একটি অভিযোগ দাখিল করেছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লাশ উদ্ধার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ