Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

‘ইংল্যান্ডকে কঠিন চ্যালেঞ্জ জানাবে আফ্রিদি-নাসিমরা’

কোহলি নয়, মিঁয়াদাদ-ইনজামামদের সঙ্গে তুলনা চান বাবর

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ জুলাই, ২০২০, ১২:০১ এএম

প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যান বনাম পাকিস্তানের বোলিং আক্রমণ-অতীতে ম্যাচের ভাগ্য অনেকবারই গড়ে দিয়েছে লড়াইয়ের ভেতরের এই লড়াই। বাবর আজমের বিশ্বাস, অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যে গড়া তাদের এবারের বোলিং আক্রমণ কঠিন পরীক্ষা নেবে ইংলিশদের। গড়ে দেবে ম্যাচের ভাগ্য।
নাসিম শাহ, শাহিন শাহ আফ্রিদি, মুসা খান-তিন তরুণের সামনেই এবার ইংল্যান্ডে প্রথম টেস্ট খেলার সুযোগ। এরই মধ্যে এই পেসাররা দেখিয়েছেন সামর্থ্যরে ঝলক। আর ওয়াহাব রিয়াজ, ইয়াসির শাহ, মোহাম্মদ আব্বাসদের অভিজ্ঞতা আছে দেশটিতে এই সংস্করণে খেলার। সব মিলিয়ে দলের বোলিং আক্রমণে ভরসা করার মতো রসদ আছে বলে মনে করেন বাবর। গতপরশু ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সফরে নিজের প্রত্যাশার কথা জানান পাকিস্তানের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক, ‘এখানকার কন্ডিশন ইংল্যান্ড দলের জন্য উপযুক্ত, তাই তারা কিছুটা এগিয়ে থাকবে। তবে আমাদের বোলিং লাইন-আপ দেখুন, শাহিন শাহ ও মোহাম্মদ আব্বাস তরুণ ও অভিজ্ঞতার দারুণ একটি কম্বিনেশন তৈরি করে। আব্বাস এই কন্ডিশনের সঙ্গে ভালোভাবে পরিচিত, সে অনেক কাউন্টি ম্যাচ খেলেছে। নাসিম শাহও অসাধারণ পারফর্ম করছে, অস্ট্রেলিয়া বিপক্ষে এবং পরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দারুণ করেছে। আমার বিশ্বাস, ইংল্যান্ডকে কঠিন চ্যালেঞ্জ জানাতে পারব আমরা।’
করোনাভাইরাসের প্রকোপে দীর্ঘদিন ক্রিকেটের বাইরে ছিলেন সবাই। অনাকাক্সিক্ষত বিরতির পর অনুশীলনে ফিরে নিজেদের নিয়ে সংশয়ে ছিলেন খেলোয়াড়দের অনেকেই। এখন অবশ্য মাঠের লড়াইয়ের জন্য সবাই প্রস্তুত বলে মনে করেন বাবর, সবচেয়ে ভালো দিক হচ্ছে, খেলোয়াড়রা ফিট এবং ছন্দে আছে। সবাই প্রটোকল অনুসরণ করছে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে, আমরা এটা উপভোগ করছি। এখানে আসার আগে অনেক কিছু নিয়ে অনিশ্চয়তা ছিল। তবে আমরা এখন মানিয়ে নিয়েছি এবং অনুশীলনে মনোযোগ দিচ্ছি। কন্ডিশনকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করছি।’
কোহলি ও বাবরকে বর্তমান বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যানদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় রাখা হয়। কোহলি ছয়-সাত বছর ধরেই আছেন পাদপ্রদীপের আলোয়। বাবর তার ক্যারিয়ারের শুরুতে টেস্ট সংস্করণে অতটা ভালো করতে না পারলেও সংক্ষিপ্ত সংস্করণে ধারাবাহিক। টেস্ট সংস্করণে গত এক বছরে অবশ্য ধারাবাহিক তিনি। ইংল্যান্ড সফরে এখন পাকিস্তান দলের সঙ্গে আছেন বাবর। সেখান থেকে টেলিকনফারেন্সে নিজের বিরক্তিটা সংবাদকর্মীদের কাছে গোপন রাখেননি এ টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান, ‘আমাকে কারও সঙ্গে তুলনা করতে চাইলে পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের সঙ্গে করুন; বিরাট কোহলি না। আমাদের জাভেদ মিঁয়াদাদ, ইউনিস খান, ইনজামাম উল হকের মতো কিংবদন্তি আছে। তাদের সঙ্গে তুলনা হলে নিজের অর্জন নিয়ে আরও গর্ব অনুভব করব।’
ইংল্যান্ড সফর দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দীর্ঘ প্রায় চার মাস পর ফিরবে পাকিস্তান। তিনটি করে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি খেলবে তারা। আগামী ৩০ জুলাই লর্ডসে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। কোভিড-১৯ রোগের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে বেশ কয়েকটি নিয়ম করেছে আইসিসি। ইংল্যান্ড সিরিজ দিয়ে সেগুলি শুরু করবে পাকিস্তান। বাবর জানান, অনুশীলনেই নিয়মগুলি মেনে চলার চেষ্টা করছেন তারা। ১৯৯৬ সালে ইংল্যান্ডে সবশেষ টেস্ট সিরিজ জিতেছিল পাকিস্তান। ২০১৬ ও ২০১৮ সালের সবশেষ দুই সফরে অবশ্য সিরিজ ড্র করে দেশটি। দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সও দারুণ। তাই বাবর আশায় আছেন, দুই যুগের অধরা জয় তুলে নেওয়ার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফ্রিদি-নাসিমরা
আরও পড়ুন