Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সাগরে চীন-যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টাপাল্টি সামরিক মহড়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০২০, ১২:৪১ পিএম

দক্ষিণ চীন সাগরে দ্বীপপুঞ্জ এলাকার জলসীমায় চীনের সামরিক মহড়ার পাল্টা হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র দুটি পরমাণু রণতরী পাঠিয়েছে। শনিবার দক্ষিণ চীন সাগরে মার্কিন ওই রণতরী দুটি মহড়া চালিয়েছে।

তবে কোন এলাকায় মহড়া চালানো হয়েছে তা সুনির্দিষ্ট করে বলেনি মার্কিন নৌবাহিনী।

এক বিবৃতিতে নৌবাহিনী বলেছে, ‘মুক্ত এবং উন্মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিকের সমর্থনে’ দক্ষিণ চীন সাগরে এই সামরিক মহড়া চালানো হয়েছে।

এর আগে মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দপ্তর পেন্টাগন এক বিবৃতিতে বলেছিল, ‘১ থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত দক্ষিণ চীন সাগরে প্যারাসেল দ্বীপপুঞ্জ এলাকায় পিপলস রিপাবলিক অব চায়নার (পিআরসি) সামরিক মহড়া চালানোর সিদ্ধান্তের ব্যাপারে প্রতিরক্ষা বিভাগ উদ্বিগ্ন।’

পরে দুটি পরমাণু রণতরী দক্ষিণ চীন সাগরে পাঠায় যুক্তরাষ্ট্র। রণতরী দুটি হলো- ইউএসএস নিমিৎজ ও ইউএসএস রোনাল্ড রিগ্যান। প্যারাসেল দ্বীপপুঞ্জের মালিকানা নিয়ে চীন ও ভিয়েতনামের মধ্যে বিরোধ রয়েছে।

সূত্র: আলজাজিরা



 

Show all comments
  • আবুল কালাম আজাদ ৫ জুলাই, ২০২০, ৯:০৮ পিএম says : 0
    প্রসঙ্গ ভারত, বহু বছর ধরে মুসলমানদের দাস বানিয়ে রেখেছে, কাশ্মীর সহ সারা ভারতবর্ষে মুসলমানদের উপরে চালাচ্ছে নিপিড়ন নির্জাতন, ভারতের মুসলমানদের বন্ধু হয়ে পাকিস্তান পাসে থাকার চেষ্টা করেছে, পাকিস্তান ইন্ডিয়ার মুসলিম নির্জাতনে প্রতিবাদ করায়, বহুবার ভারতের সাথে সিমান্তে যুদ্ধ হয়েছে, পৃথিবীতে জাতিসংঘ নামক একটা সংস্থা আছে, সেই সঙ্গের কর্মকর্তারা যদিও বলে আমরা সব জাতির মঙ্গলের জন্য কাজ করি, বাস্তব ভিক্তিতে জাতিসংঘের কর্মকর্তারা মুসলিমদের সাহায্যে ককনোই আসেনা,যে দেশেই মুসলিম নিপিড়ন চলে,দুই চার মাস নিপিড়ন নির্জাতন চলার পর সেই জাতিসংঘ মিটিং ডাকে এবং নিন্দা জানায়, জতদিনে নিন্দা জানায় ততদিনে মুসলিম নারীদের গর্বে হাজার হাজার জারজ সন্তানের মা হতে চলে, বসনিয়া সোমালিয়া সহ আফ্রিকার অনেক দেশে এমন নিপিড়ন নির্জাতন হয়েছে এখনো হচ্ছে, ফিলিস্তিন একটা সাধীন রাষ্ট্র,ইহুদীরা জবর দখল করে, হত্যা করছে পুরুষগুলো কে হত্যা করছে শিশুদের, ধর্ষিতা হচ্ছে নারীরা,এ বিষয়টা যেনো জাতিসংঘের নজরেই আসেনা, সিরিয়ায় নির্বিচারে হত্যা করছে মুসলিমদের হাজার হাজার নারী ধর্ষনের শিকার হচ্ছে, হাজার হাজার শিশু হত্যা করা হচ্ছে, এটাও সেই সঙ্গের নজরে আসে না, ইরাক যে কারনেই হক কুয়েত দখল করেছে সে বলেছে কুয়েত কে ছেরে দিবে, ইরাক কুয়েত ব্যপারে মধ্যস্ত করার মত বহু দেশ এশিয়াতে ছিলো, কারোর তোয়াক্কা না করে, ততকালীন সন্ত্রাসী বুশ প্রশাসন ইরাকের লক্ষ লক্ষ মানুষ হত্যা করেছে লক্ষ লক্ষ নারী ধর্ষন করেছে, ইন্ডিয়া সান্তিপ্রিয় কাশ্মীরের মুসলিমদের উপরে জুলুমের নিলনক্সা তৈরি করে, কয়েক লক্ষ সেনা দিয়ে, কাশ্মীরের মুসলিমদের ব্যবসা বন্ধ করে দিলো চাকুরী বন্ধ করে দিলো হাট বাজার মোবাইল নেটওয়ার্ক বন্ধ করে দিলো, এগুলো যেনো সেই সঙ্গের নজরে আসেনা, একা পাকিস্তান লড়াই করে যাচ্ছে কাশ্মীরের মুসলিমদের পক্ষ হয়ে,এখানে ট্রাম্প নামক এক জানোয়ার, ইন্ডিয়ার মাটিতে এসে দিল্লিতে হাজার হাজার মুসলিমের রক্তে লাল হলো দিল্লির রাজ পথ, বাংলাদেশের এক জাতের মুসলমান তাহারা বলছে ইন্ডিয়া মুসলমা হত্যা করছে, মুসলমান নারীদের ধর্ষন করতেছে সেটা তাদের অভ্যন্তরিক ব্যপার, মায়ানমার কয়েক লক্ষ মুসলিম হত্যা করলো মুসলিম শিশুগুলো কে জলন্ত অগ্নি কুণ্ডে নিক্ষেপ করলো, লক্ষ লক্ষ নারী কে ধর্ষনের পর হত্যা করা হলো, এগুলোও সেই সঙ্গের নজরে আসেনা, বিশ্বে অনেক মুসলিম দেশ তেমন কেউই প্রতিবাদ করেনা, যদি বিজাতিদের সাথে বন্ধুত্ব নষ্ট হয়, যখন মায়ানমার সেনাবাহিনী মুসলিম হত্যায় মেতে উঠেছে তখন আমাদের সরকার বাহাদুর বার্মা থেকে চাউল ক্রয় করতে পাঠায় ততকালীন খাদ্যমন্ত্রী কামরুল বাহাদুর কে, অবশেষে বলছি বি-জাতিরা কখনোই মুসলমানের বন্ধু ছিলো না আর কখনো হবেও না,,,
    Total Reply(1) Reply
    • elu mia ৭ জুলাই, ২০২০, ৪:০২ এএম says : 0
      Valo bolsen.
  • suman dutta ৬ জুলাই, ২০২০, ৩:৫৪ পিএম says : 0
    ... pakistani
    Total Reply(0) Reply
  • sulayman Ahmed shahed ৬ জুলাই, ২০২০, ১১:২৭ পিএম says : 0
    2021+2022 পৃথিবী কয়েকটি পারমাণবিক বোমার সাক্ষী হতে যাচ্ছে। পৃথিবীর কয়েক কোটি মানুষ সম্পুর্ন সেচ্ছায় গৃহবন্দী হতে যাচ্ছে। তখন জানালায় কাচেঁর ক্লাস লাগানোর হীরিক পরে যাবে। এবং মুখে আধুনিক প্লাস্টিকের মাক্স সংকট দেখা যাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • sulayman Ahmed shahed ৬ জুলাই, ২০২০, ১১:২৬ পিএম says : 0
    2021+2022 পৃথিবী কয়েকটি পারমাণবিক বোমার সাক্ষী হতে যাচ্ছে। পৃথিবীর কয়েক কোটি মানুষ সম্পুর্ন সেচ্ছায় গৃহবন্দী হতে যাচ্ছে। তখন জানালায় কাচেঁর ক্লাস লাগানোর হীরিক পরে যাবে। এবং মুখে আধুনিক প্লাস্টিকের মাক্স সংকট দেখা যাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • P. Raj Chowdhury ৭ জুলাই, ২০২০, ৪:২৭ পিএম says : 2
    মিথ্যারটনা করে সম্প্রীতি নষ্টকরার‌ পাকিস্তানি কৌশল।
    Total Reply(0) Reply
  • Fatama ৯ জুলাই, ২০২০, ১:৪১ পিএম says : 0
    পাকিস্তান আছে বলেই এশিয়াতে শান্তি বজায় আছে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন-যুক্তরাষ্ট্র


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ