Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

গবেষণা : করোনাভাইরাসের নতুন রূপটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে, তবে আক্রান্ত মানুষকে আরও বেশি অসুস্থ করছে না

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০২০, ১:০৩ পিএম

একটি বিশ্ব গবেষণায় প্রমাণ মিলেছে যে, করোনাভাইরাসের নতুন রূপটি ইউরোপ থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ছড়িয়ে পড়েছে। নতুন রূপান্তরের ফলে ভাইরাসটি মানুষকে সংক্রমিত করার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। তবে এটি আগের সংক্রমনের চেয়ে কোনও লোককে বেশি অসুস্থ করবে না বলে জানিয়েছেন গবেষকদের একটি আন্তর্জাতিক দল। -সিএনএন

গত বৃহস্পতিবার এই গবেষণায় কাজ করা লা জোলা ইনস্টিটিউট ফর ইমিউনোলজি এবং করোনাভাইরাস ইমিউনোথেরাপি কনসোর্টিয়ামের এরিকা ওলম্যান সাফায়ার সিএনএনকে বলেছেন, নতুন সংস্করণের ভাইরাসটি এখন আক্রান্ত মানুষের উপর প্রভাব বিস্তারকারী রূপ এবং এটি এখন ভাইরাস।
সেল জার্নালে প্রকাশিত এই সমীক্ষাটি গবেষক দলটির ইতোপূর্বে করা কিছু কাজের উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছিল, যা এ বছরের প্রথম দিকে একটি প্রিপ্রিন্ট সার্ভারে প্রকাশিত হয়েছিল। জেনেটিক সিকোয়েন্স সম্পর্কিত প্রাপ্ত তথ্য ইঙ্গিত দিয়েছে যে, নিশ্চিতভাবে ভাইরাসের নতুন সংস্করণটি নিয়ন্ত্রণে আসছে।
দলটি এখন শুধু জেনেটিক সিকোয়েন্সই পরীক্ষা করেনি,তারা ল্যাবে পরীক্ষা চালিয়েছে মানুষ, প্রাণী এবং কোষের, যা প্রমাণ করেছে পরিবর্তিত সংস্করণ অন্যান্য সংস্করণগুলোর চেয়ে সংক্রামক।
সাফায়ার বলেছিলেন, আমরা জানি যে, নতুন ভাইরাসটি ফিটার। এটিকে প্রথমে একনজর দেখা যায়নি এবং এটি ভয়াবহ খারাপ।
নতুন রূপান্তর করোনভাইরাসকে আরও সংক্রামক করে তুলতে পারে বলে সমীক্ষাটি জানিয়েছে।
রূপান্তরটি স্পাইক প্রোটিনকে প্রভাবিত করে, ভাইরাসটি সংক্রামিত কোষগুলোতে প্রবেশের জন্য যে কাঠামোটি ব্যবহার করে তা। এখন গবেষকরা এটি পরীক্ষা করে দেখছেন যে, কোনও ভ্যাকসিনের মাধ্যমে ভাইরাসকে নিয়ন্ত্রণ করা যায় কিনা? বর্তমান ভ্যাকসিনগুলো বেশিরভাগ স্পাইক প্রোটিনকে লক্ষ্য করে পরীক্ষা (এক্সপেরিমেন্ট) করা হয়। তবে সেগুলো ভাইরাসের পুরানো স্ট্রেনগুলো ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছিল।
সেল জার্নালে প্রকাশিত এই সমীক্ষাটি মিউটেশনের পরিবর্তে ভাইরাসের নতুন রূপটিকে আরও সাধারণ করে তুলেছে বলে পূর্ববর্তী গবেষণার ফলাফলকেকে নিশ্চিত করেছে। গবেষকরা নতুন রূপান্তরকে জি৬১৪ বলে থাকেন এবং তারা দেখাযন যে, এটি ইউরোপ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ছড়িয়ে পড়ার জন্য প্রথম সংস্করণটিকে প্রায় সম্পূর্ণরূপে প্রতিস্থাপন (রিপ্লেসড) করেছে, যার নাম ডি৬১৪।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

১১ আগস্ট, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন