Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

গলওয়ানে হঠাৎ বন্যা, ভেসে যাচ্ছে চীনা সেনা ছাউনিগুলো

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০২০, ১:১১ পিএম

গলওয়ান উপত্যকায় ১৫ জুনের সংঘর্ষে ভারতীয় ২০ সেনা-অফিসার নিহত হওয়ার পর থেকেই লাদাখে রীতিমতো যুদ্ধ পরিস্থিতি চলছে। বারবার ভারতের সঙ্গে বৈঠক এবং সেনা প্রত্যাহারের প্রতিশ্রুতি দিয়েও গলওয়ানের বহু সংঘর্ষের কেন্দ্রবিন্দু থেকে একচুলও নড়েনি চীনের সেনারা। প্যাংগং শো, গোগরা, হট স্প্রিং-সহ গলওয়ান নদীর ধার দিয়ে এখনও বহু সেনা মোতায়েন করে রেখেছে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি। ভারতের বহু কূটনৈতিক চাপ সত্ত্বেও সেনা প্রত্যাহারে বিন্দুমাত্র আগ্রহ দেখায়নি বেইজিং। কিন্তু এবার না চাইতেও চীনকে গলওয়ান নদীর ধার থেকে সেনা সরাতে হচ্ছে। কারণ বন্যা। খানিকটা প্রত্যাশিতভাবেই গলওয়ান নদীতে এখন বন্যা দেখা দিয়েছে। এরই মধ্যে সেখানে অবস্থিত চীনের সেনা ছাউনিগুলো ভেসে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। বাধ্য হয়ে চীন তাদের সেনাদের সেই সংঘর্ষের কেন্দ্রবিন্দু থেকে পিছিয়ে নিচ্ছে বলে জানা গেছে।
জানা গেছে, সীমান্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে গলওয়ান নদীর তীরে বহু চীনা সেনা মোতায়েন আছে। কিন্তু গত কয়েকদিনে গলওয়ান নদীর পানি হু হু করে বাড়ছে। আসলে আকসাই চীন থেকে উৎপন্ন এই নদীটি বরফগলা পানিতে পুষ্ট। আর এই সময় তাপমাত্রা হঠাৎ করে অনেকটা বেড়ে যাওয়ায় বরফ গলছে দ্রুত। যার ফলে গলওয়ান নদীর তীরে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এর মধ্যেই কয়েকটি চীনা সেনা ছাউনি ভেসে গেছে।
ভারতীয় সেনার এক কর্মকর্তার দাবি, চীন ইতিমধ্যেই গলওয়ানের তীর থেকে সেনা সরাতে শুরু করেছে। আসলে, যেভাবে নদীর পানি বাড়ছে, তাতে গলওয়ানের তীরে কোনও কিছুই নিরাপদ নয়। যে কোনও সময় ভেসে যেতে পারে বাদবাকি ছাউনিগুলোও। যত দিন যাবে, পরিস্থিতি আরও বিপজ্জনক হবে। তাতে চীনাদের হয়তো এমনিই সেনা প্রত্যাহার করতে হতে পারে। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ