Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ভারত বাংলাদেশী রফতানি পণ্য গ্রহন করতে রাজি

বেনাপোল বন্দর দিয়ে পুনরায় শুরু হয়েছে দু দেশের মধ্যে আমদানি রফতানি বানিজ্য

বেনাপোল অফিস | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০২০, ৮:০৪ পিএম

দু’দেশের কাস্টমস, বন্দর ও ব্যবসায়ী সংগঠনগুলোর ফলপ্রসু বৈঠকে ভারত বাংলাদেশী রফতানি পণ্য গ্রহন করতে রাজি হওয়ায় আজ রবিবার রাত ৭ টা থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে চালু হয়েছে আমদানি রফতানি। বৃস্টির মধ্যে ভারত থেকে ৫ ট্রাক পন্য বাংলাদেশে আমদানি হয়েছে। বাংলাদেশ থেকে ৫ ট্রাক পন্য রফতানি হয়েছে ভারতে।ফলে বেনাপোল বন্দরে ফিরে এসেছে প্রাণ চাঞ্চল্য। বেনাপোল বন্দর ব্যবহারকারী সংগঠনগুলো বাংলাদেশী রফতানি পন্য গ্রহন করতে ভারত রাজি না হওয়ায় গত বুধবার থেকে ভারতীয় সকল প্রকার আমদানি পণ্য বাংলাদেশে প্রবেশ বন্ধ করে দেয়।
বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সহ সভাপতি কামাল উদ্দিন শিমুল জানান, করোনা ভাইরাসের অজুহাত দেখিয়ে ভারতের পশ্চিমবংগ সরকার বাংলাদেশী রফতানি পন্য গ্রহন করতে অনীহা প্রকাশ করে। কিন্ত বেনাপোল বন্দর দিয়ে গত ৭ জুন থেকে প্রতিদিন ২/৩’শ ট্রাক আমদানি পণ্য স্বাস্ত্য বিধি মেনেই বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।
বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতের সাথে প্রতি বছর ৩০ হাজার কোটি টাকার আমদানি বানিজ্য সম্পন্ন হলেও মাত্র ২ হাজার কোটি টাকার রপ্তানি বানিজ্য সম্পন্ন হয় ভারতের সাথে। ৩ মাস বন্ধ থাকায় রফতানি বানিজ্যে ঘাটতি হওয়ার আশংকা করছে কাস্টস কর্তৃপক্ষ।
বেনাপোল কাস্টমস হাউসের কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী জানান, ভারত বাংলাদেশী রফতানি পণ্য গ্রহন করতে সম্মত হওয়ায় বিকেলে থেকে দু’দেশের মধ্যে পুনরায় আমদানি রফতানি বানিজ্য শুরু হয়েছে। বন্দর সংশ্লিস্টরা শত স্ফুর্তভাবে কাজে যোগদান করেছে।
বেনাপোল বন্দরের উপপরিচালক আব্দুল জলিল জানান, আজ দুপুরের দিকে দুই দেশের কাস্টমস, বন্দর, ও ব্যবসায়ী সংগঠন গুলোর ফলপ্রসু আলোচনার পর ভারত বাংলাদেশী রফতানি পণ্য গ্রহন করতে রাজি হওয়ায় পুনরায় দু’দেশের মধ্যে আমদানি রফতানি বানিজ্য শুরু হয়েছে।বন্দরের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের দ্রুত কাজ করার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।



 

Show all comments
  • Zahangir ৫ জুলাই, ২০২০, ৯:৪৮ পিএম says : 0
    একেই বলে ঠেলার নাম বাবাজী। যে কোনো বিষয়ে আত্মমর্যাদাবোধ নিয়ে সাহসিকতার সাথে নিজ অধিকার ও ন্যায্যতা আদায়ে assertive হলে ভারত এতো বাড়াবাড়ি করতে কখনোই এতো সাহসী হতো না।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ