Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

কোহলি-গাঙ্গুলির বিরুদ্ধে অভিযোগ!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ জুলাই, ২০২০, ১২:০১ এএম

ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে স্বার্থের সংঘাতের অভিযোগ তুলেছেন মধ্য প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য সঞ্জীব গুপ্তা। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) নৈতিকতা বিষয়ক কর্মকর্তা ডিকে জৈন, বোর্ড প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলি ও প্রধান নির্বাহী রাহুল জোহরির উদ্দেশে এক মেইলে কোহলির বিরুদ্ধে অভিযোগ এই তোলেন সঞ্জীব।
কোহলি একই সঙ্গে তার ব্যক্তিগত অর্থায়নে প্রতিষ্ঠিত বিরাট কোহলি স্পোর্টসের পরিচালক ও সহযোগী প্রতিষ্ঠান কর্নারস্টোন স্পোর্টসের পরিচালক পদে আছেন। বিসিসিআইয়ের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী এক ব্যক্তি দুটি পদ দখল করে রাখতে পারেন না। সঞ্জীব তার চিঠিতে লিখেছেন, ‘শ্রী বিরাট কোহলি একই সঙ্গে দুটি পদ দখল করে রেখেছেন, যা বিসিসিআইয়ের ভারতের সুপ্রিম কোর্ট দ্বারা অনুমোদিত আইনের বিরুদ্ধে যায়।’ তবে কর্নারস্টোন স্পোর্টস ও এন্টারটেইনমেন্ট লিমিটেডে কোনো পদে নেই কোহলি।
সঞ্জীব এর আগে স্বার্থের সংঘাতের অভিযোগ তুলেছিলেন শচীন টেন্ডুলকার, ভিভিএস লক্ষ্মণ, রাহুল দ্রাবিড়ের মতো সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে। তবে তদন্ত করে এই সাবেক ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। এবারও অভিযোগ খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছে বিসিসিআই।
এদিকে, গত মৌসুমে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি দিল্লি ক্যাপিটালসের পরামর্শক ছিলেন গাঙ্গুলি। তখনো তিনি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি হননি। কিন্তু বিসিসিআই সভাপতি হওয়ার পরেও একই ভূমিকায় থাকায় স্বার্থের সংঘাতের অভিযোগ উঠেছে সাবেক ভারতীয় অধিনায়কের বিরুদ্ধেই।
সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সেই সিমেন্ট কোম্পানির লোগোসহ জার্সি পরে একটা পোস্ট দিয়েই বিতর্ক টেনে এনেছেন ভারতীয় ক্রিকেটের দিন বদলের নায়ক। তিনি অবশ্য স্বার্থ সংঘাতের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। সৌরভের যুক্তি, দিল্লি ক্যাপিটালসের অংশীদার জেএসডব্লু নামের একটি ক্রীড়া বিপণন সংস্থা। তিনি যে সিমেন্ট কোম্পানির দূত, সেটি ওই জেএসডব্লু র মালিক হলেও সিমেন্ট কোম্পানিটি দিল্লি ক্যাপিটালসের পৃষ্ঠপোষক নয়। তাই স্বার্থের সংঘাতের প্রশ্ন এখানে অবান্তর। এ ধরনের অভিযোগ নিয়ে নিজের বিরক্তি প্রকাশ করেছেন সৌরভ। ভারতের সানডে এক্সপ্রেস পত্রিকাকে তিনি বলেছেন, ‘এটা কীভাবে স্বার্থের সংঘাত হয়, আমাকে বলুন। আমি জেএসডব্লু র ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর নই। এই জেএসডব্লু ই দিল্লি ক্যাপিটালসের অংশীদার। ওই সিমেন্ট কোম্পানি দিল্লি ক্যাপিটালসের স্পনসরও নয়। এখানে স্বার্থ সংঘাতের কিছু নেই। এটা অযথা একটা সমস্যা তৈরি করা।’
কিন্তু অভিযোগটা উঠছে অন্য কারণে। এই জেএসডব্লু নামের প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান পার্থ জিন্দাল নামের এক ব্যবসায়ী। তিনি দিল্লি ক্যাপিটালসের ব্যবস্থাপনার সঙ্গে জড়িত। আইপিএলের সময় এই পার্থ জিন্দালকে দিল্লির ডাগআউটেও দেখা যায়। জিন্দাল আবার সৌরভের সেই সিমেন্ট প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। সৌরভ অবশ্য গত অক্টোবরেই দিল্লি ক্যাপিটালসের পরামর্শক পদ ছেড়ে দিয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কোহলি-গাঙ্গুলি
আরও পড়ুন