Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

বান্দরবানে নিহত ৬ জন জনসংহতি সমিতির সংস্কারপন্থী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ জুলাই, ২০২০, ১০:১৭ এএম | আপডেট : ১:১৭ পিএম, ৭ জুলাই, ২০২০

পাহাড়ে আবাও দুই গ্রুপের সংঘর্ষে রক্ত ঝরলো। এবার মারা গেল ছয় জন। মঙ্গলবার সকালে বান্দরবানে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ছয়জন ও আহতদের মধ্যে দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। এরা সবাই পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (সংস্কার) তথা জেএসএস-এমএন লারমা গ্রুপের সদস্য।

নিহতরা হলেন- প্রজিত চাকমা, মিলন চাকমা, রতন তঞ্চঙ্গ্যা, দীপেন ত্রিপুরা, ডেভিড বাবু ও জয় ত্রিপুরা।

আহত তিনজনের মধ্যে দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- খাগড়াছড়ির বাসিন্দা আনিং চাকমা (৪২) ও বিদ্যুৎ ত্রিপুরা (৩৩)।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে বান্দরবান সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নের বাঘমারায় সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে ঘটনাস্থলেই মারা যান ছয়জন। আহত তিনজনকে বান্দরবান সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার জেরিন আক্তার জানা, ঘটনাস্থলে আমাদের টিম আছে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণের পর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঘটনার পর পুলিশ, সেনাবাহিনী ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা বাঘমারার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। সেখান থেকে গুলির খোসাসহ বিভিন্ন আলামত জব্দ করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন জনসংহতি সমিতি (সন্তু লারমা গ্রুপ), জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা গ্রুপ) ও মগ লিবারেশন পার্টির (এমএলপি) ত্রিমুখী বিরোধের জেরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে থাকতে পারে।



 

Show all comments
  • Abu Hurairah ৭ জুলাই, ২০২০, ৩:০৫ পিএম says : 0
    I’d like to request.govt.to stop all fgn.NGO to work there.2.UNDP & other doner agencies are not allowed to do any sorts of work including cultural activities also.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বন্দুকযুদ্ধে নিহত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ