Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

খুলনায় করোনা আক্রান্ত চার জনের মৃত্যু: নতুন শনাক্ত ৭২

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০২০, ১১:২৭ এএম

খুলনায় গত চব্বিশ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত চার জনের মৃত্যু হয়েছে। একদিনে নতুন করে করোনা পজেটিভ সনাক্ত হয়েছে ৭২ জন। এছাড়াও যশোরের চার জন ও বাগেরহাটে তিন জন করোনা আক্রান্ত ধরা পড়েছে।

খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, গতকাল মঙ্গলবার পিসিআর ল্যাবে ২৭৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নমুনায় মোট ৭৯টি পজেটিভ এসেছে। যার ৭২ জন খুলনা জেলা ও মহানগরীর। খুলনার নমুনা ছিল ২৪৪টি। এছাড়াও য‌শোরের ৪ জন এবং বা‌গেরহাটের ৩ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে।
গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে ৪ জন এবং সুস্থ হয়েছে ২৯ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত খুলনা জেলায় মোট করোনা পজিটিভ রোগী সনাক্ত হয়েছে ২৬৮৪ জন, মৃত্যু ৩৮ জন এবং সুস্থ ৫২৮ জন।

লকপুর গ্রুপ অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের ডিএমডি ও সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালক আমজাদ হোসেনের মা নুরজাহান বেগম (১০৪) করোনায় মারা গেছেন। মহানগরীর ফর্টিস এসকর্টস কার্ডিয়াক ইন্সটিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তার মৃত্যু হয়। হাসপাতালের এডমিন অফিসার রুবেল শেখ বলেন, নুরজাহান বেগমের করোনার উপসর্গ ছিলো। আমরা ভিআইপি রোগী হিসেবে তার প্রাথমিক চিকিৎসা শুরু করি। পরে তার নমুনা পরীক্ষায় পজেটিভ রিপোর্ট আসে। পজেটিভ আসার পর আমরা তাকে করোনা হাসপাতালে নেওয়ার কথা বলেছিলাম। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থা নেওয়ার মতো ছিলো না। এর মধ্যেই তিনি গতকাল সকালে মারা যান।

দুপুর ১২টায় বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশনের (বিএমএ) খুলনা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডাঃ সেখ আখতারুজ্জামানের একমাত্র মেয়ে ঐশী বিনতে জামান (৩২) খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আওতাভুক্ত করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার মারা যান। তার স্বামী ডাঃ শাহারিয়ার জামান খুলনা আই হাসপাতালের সহকারী পরিচালক। তিনি বলেন, গত ৩০ জুন করোনা শনাক্ত হলেও আমার মেয়ের কোন উপসর্গই ছিল না। গত ৪ জুলাই রাতে তাকে করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সোমবার একটু শ্বাসকষ্ট ছিল। মঙ্গলবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়াও বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে ডায়াবেটিক হাসপাতালে সিরাজুল ইসলাম (৭৩)নামে এক করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি দৌলতপুর আঞ্জুমান রোডে। সোমবার দিনগত রাত ৪টার দিকে মির্জাপুরের বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম (৬৮) মৃত্যুবরণ করেন। করোনা পজেটিভ ধরা পড়ার পর সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাকে করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

১২ আগস্ট, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ