Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

কুয়েত থেকে আড়াই লাখ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানোর আশঙ্কা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০২০, ১২:০৩ পিএম | আপডেট : ১২:০৬ পিএম, ৮ জুলাই, ২০২০

কুয়েত থেকে প্রায় আড়াই লাখ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানোর আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে ।এ সম্পর্কিত একটি বিল কুয়েতের সংসদে উপস্থাপন করার প্রক্রিয়া চলছে। ওই প্রস্তাব অনুযায়ী প্রতিটি দেশের জন্য একটি কোটা থাকবে। বাংলাদেশের জন্য এই কোটা হবে কুয়েতের জনসংখ্যার ৩ শতাংশ। বর্তমানে কুয়েতের জনসংখ্যা প্রায় ১৩ লাখ। সেখানে বাংলাদেশি আছে ৩ লাখেরও বেশি। নতুন প্রস্তাব কার্যকর হলে বাংলাদেশিদের কোটা দাঁড়াবে মাত্র ৪০ হাজার। -কুয়েত টাইমস, আরব টাইমস , আল বাতন

কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালাম বাংলাট্রিবিউনকে বলেন, বিলটি পাস হলে আমাদের লোক কিছুই থাকবে না। এটা নিয়েই যুদ্ধ করতে হবে। তবে যুদ্ধ করলেও আমি ঠিকমতো বুঝতে পারছি না কুয়েতিরা কী করছে। এই লোকগুলো চলে গেলে কুয়েত তো অচল হয়ে যাবে। তিনি বলেন , তারা বেশিরভাগ লোককে বিদায় করবে। বিলটি পাস হলে বাংলাদেশিরা সমস্যায় পড়বে। তবে যে স্তরে আমাদের লোকজন কাজ করেন , সেখানে কুয়েতিরা কাজ করবেন না। তবে কুয়েতের তেল খাতে এখন কোনও বিদেশি নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে না।

জানা গেছে , কুয়েত থেকে প্রায় ৬ হাজার লোক গত ৩ মাসে দেশে ফেরত এসেছে। কুয়েতের একটি সংসদীয় কমিটি বিভিন্ন দেশের জন্য কোটা ঠিক করে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব তৈরি করেছে। ওই প্রস্তাব অনুযায়ী সেখানে অবস্থানরত ভারতীয়দের সংখ্যা কুয়েতের মোট জনসংখ্যার ১৫ শতাংশের বেশি হবে না। মিসরীয় , ফিলিপিনো ও শ্রীলঙ্কানদের জন্য কোটা ১০ শতাংশ। সংসদীয় কমিটির প্রস্তাবে বাংলাদেশ , নেপাল , পাকিস্তান ও ভিয়েতনামের জন্য ৩ শতাংশ কোটা নির্ধারণ করে সুপারিশ করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কুয়েত


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ