Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

‘নেইমার কলঙ্ক’ থেকে মুক্ত বার্সা

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

 সেই ২০১৩ সালে ব্রাজিলিয়ান ক্লাব সান্তোস ছেড়ে বার্সেলোনায় যোগ দিয়েছিলেন। তারপর ২০১৭ সালে বার্সা ছেড়েও গেছেন নেইমার। দুটি দলবদলই হয়েছে অনেক নাটক ও বিতর্কের জন্ম দিয়ে। তবে সান্তোসের সঙ্গে ওই দলবদল চুক্তির ঝামেলা যেন পিছু ছাড়ছিল না বার্সেলোনার। অবশেষে মুক্তি মিলল কাতালান ক্লাবটির। নেইমারকে কেনার সময় বার্সেলোনা দুর্নীতি করেছে বলে যে অভিযোগ উঠেছিল, সেটা খারিজ করে দিয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালত। সান্তোস এবং নেইমারের সঙ্গে বার্সেলোনার চুক্তিটা পারস্পরিক সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়েছিল বলে মনে করেন আদালত।
বার্সেলোনা শুরুতে বলেছিল, তারা ১ কোটি ৭০ লাখ ইউরো দিয়ে সান্তোসের কাছ থেকে নেইমারকে কিনেছে। পরে জানা গেছে, আসলে অঙ্কটা ৮ কোটি ৩০ লাখ ইউরো। বার্সেলোনা এই অর্থের বড় অংশ সরাসরি দিয়েছে নেইমারের ব্যক্তিগত একটি প্রতিষ্ঠান ও নেইমারের বাবাকে। সান্তোস পরে দাবি করতে শুরু করে, তারা বার্সেলোনার কাছে আরও ৬ কোটি ১০ লাখ ইউরো পায় ক্ষতিপ‚রণ হিসেবে। ব্রাজিলিয়ান ক্লাবটির অভিযোগ, ট্রান্সফার ফির একটা অংশ নেইমারের বাবা এবং তাদের পারিবারিক প্রতিষ্ঠান এনঅ্যান্ডএনকে দেওয়ায় তারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বার্সেলোনার বিরুদ্ধে দলবদলের লেনদেনে অস্বচ্ছতা ও অসততার অভিযোগ এনে মামলাও করে তারা। যে মামলা শেষ পর্যন্ত গড়ায় আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালতে।
তবে আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালত এই অভিযোগ বাতিল করে দিয়েছেন। ক্রীড়া আদালতের রায়ের কথা জানিয়ে বার্সেলোনা এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘সান্তোসের দাবি করা ৬ কোটি ১০ লাখ ইউরোর আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালত।’ সান্তোস এবং নেইমারের সঙ্গে বার্সেলোনার চুক্তিটা পারস্পরিক সমঝোতার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়েছিল বলে মনে করেন আদালত। এ ক্ষেত্রে কোনো অনিয়ম পাননি আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালত। উল্টো আইনি খরচ বাবদ এখন বার্সেলোনাকে ২০ হাজার সুইস ফ্রাঁ দিতে সান্তোসকে আদেশ দিয়েছেন আদালত।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বার্সা


আরও
আরও পড়ুন