Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

পল্লী চিকিৎসকের লাশ দাফন করলেন ইউএনও

গোপালগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ জুলাই, ২০২০, ৩:৩১ পিএম

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে করোনায় মৃত্যু বরণকারী পল্লী চিকিৎসকের লাশ দাফন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাব্বির আহমেদ।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে আজ শুক্রবার দুপুরে কাশিয়ানী উপজেলার রাজপাট গ্রামের পারিবারিক শশ্মানে ওই পল্লী চিকিৎসকের লাশ সমাহিত করা হয়।
এ দিন সকাল সাড়ে ৭ টায় রাজপাট গ্রামের নিজবাড়িতে করোনায় আক্রান্ত পল্লী চিকিৎসক বিমল কৃষ্ণ রায় ত্রিনাথ (৬০) মৃত্যু বরণ করেন। এছাড়া ওই পল্লী চিকিৎসকের স্ত্রী গৌরী রায় করোনায় আক্রান্ত। একারণে আতংকে প্রতিবেশিরা লাশ দাফনে এগিয়ে আসতে অপারগতা প্রকাশ করেন। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে লাশ দাফনে সহায়তা করার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাব্বির আহমেদকে অনুরোধ করা হয়। তিনি ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রশিক্ষিত ১ জন ও ৪ স্বেচ্ছাসেবক সাথে নিয়ে পারিবারিক শশ্মানে ওই চিকিৎসকের লাশ দাফন করেন। এ সময় রাজপাট ইউপি চেয়ারম্যান এমডি মনিরুল আলম, ইউপি মেম্বরগন , ওড়াকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান বদরুল আলম বিটুল, পুলিশ সদস্য ও পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

রাজাপাট ইউপি চেয়ারম্যান এমডি মনিরুল আলম বলেন, কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একজন মানবিক মানুষ। তাকে যে কোন বিপদে ফোন দিলে, তিনি ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে মানুষের উপকার করেন। করোনা মহামারির মধ্যে তিনি মানুষের পাশে দাড়িয়ে কাজ করে যাচ্ছেন।
পল্লী চিকিৎসকের স্ত্রী গৌরী রায় বলেন, করোনায় আমার স্বামী মারা যান। কিন্তু তাকে দাফনে প্রতিবেশী ও স্বজনরা এগিয়ে আসেননি। তাই আমরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সহযোগিতা চাই। তিনি টিম নিয়ে এসে দাফনের কাজ সম্পন্ন করে দিয়েছেন। এ জন্য আমাদের পরিবারের পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, লাশ দাফনে সহায়তা করার জন্য আমাকে অনুরোধ করা হয়। আমি স্বেচ্ছাসেবকদের সাথে নিয়ে লাশ দাফন করে দিয়েছি। দায়িত্ব বোধের জায়গা থেকে আমি এটি করেছি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ