Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

আইসিসির বিমাতাসূলভ আচরণ!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

সাউদাম্পটন টেস্ট শুরুর আগে হাঁটু গেড়ে মুষ্টি উঁচু করে বর্ণবাদবিরোধী প্রতিবাদে সমর্থন জানান দুই দলের ক্রিকেটাররা। সকলেই খেলছেন ‘বø্যাক লাইভস ম্যাটার’ লেখা জার্সি পরে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ড্রেসিং রুমের বাইরে ঝুলছে ‘বø্যাক লাইভস ম্যাটার’ লেখা ক্যারিবিয় পতাকা। ক্রিকেট মাঠে এত কিছুর অনুমতি দেওয়ায় অবাক সাবেক শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার ও জাতীয় দলের ম্যানেজার চারিথ সেনানায়েকে। আর সেই সুযোগে নিজের প্রতি আবিচারের কথা তুলে বিশ^ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটির বিমাতাসূলভ আচরণের সমালোচনাও করেছেন শ্রীলঙ্কার হয়ে ৩ টেস্ট ও ৭ ওয়ানডে খেলা সেনানায়েকে।
২০১৬ সালে লর্ডসে খেলোয়াড়দের মনোবল বাড়াতে ব্যালকনিতে পতাকা ঝুলিয়ে দিয়ে কী বিপদেই না পড়েছিলেন শ্রীলঙ্কার তখনকার ম্যানেজার সেনানায়েকে। রাজনৈতিক মতাদর্শ থেকে পতাকা ঝোলানোর অভিযোগ তোলা হয় সেনানায়েকের প্রতি। এই টেস্টে বর্ণবাদবিরোধী প্রতিবাদে আইসিসির কার্যকলাপ দেখে তাই চুপ থাকতে পারেননি এই শ্রীলঙ্কান, ‘কীভাবে খেলায় এক হাঁটু গেড়ে সমর্থন জানানো রাজনৈতিক নয়? আমাকে একরকম শাস্তির মুখে ফেলে দেওয়া হয়েছিল যখন আমি লর্ডসে জাতীয় পতাকা উড়িয়েছিলাম। আমি শুধু দলের ক্রিকেটারদের মনোবল বাড়াতে এটা করি। আম্পায়ারের বেশ কিছু সিদ্ধান্ত আমাদের বিপক্ষে যাচ্ছিল, চেয়েছিলাম ছেলেদের সমর্থন জোগাতে।’
লর্ডসে সেদিন খেলা শেষে সেনানায়েকে কে পতাকা নামিয়ে ফেলার অনুরোধ জানানো হয়। কিন্তু তিনি পরের দিন ঠিকই পতাকা উড়িয়েছিলেন, ‘দিন শেষে আমাকে পতাকা নামিয়ে ফেলতে বলা হয়। আমি তাদের অনুরোধ রাখতে পারিনি। বাজে আম্পায়ারিংয়ের কারণে দলের ক্রিকেটারদের মনোবল ভালো ছিল না। আমরা চেয়েছিলাম ওদের বোঝাতে যে পুরো দেশ তাদের সঙ্গে আছে।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আইসিসি


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ