Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

কুয়েতে মানবপাচারের অভিযোগ বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ জুলাই, ২০২০, ৫:০৫ পিএম

বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে মানবপাচারের অভিযোগ আনতে পারে কুয়েত।কুয়েতে এমপি মোহাম্মদ শহিদুল ইসলামকে গত মাসে আটকের পর দেশটির সরকার মনে করছে, মানবপাচারের সঙ্গে বাংলাদেশি দূতাবাস জড়িত থাকতে পারে। -মিডিল ইস্ট মনিটর

মিডিল ইস্ট এ খবর দিয়ে বলেছে, এটি কোনো সাধারণ অপরাধের ঘটনা নয় বা কোনো একজন এমপি এর সঙ্গে শুধু জড়িত নয় বরং এধরনের মানবপাচারের সঙ্গে অপরাধী আন্ডারওয়ার্ল্ড যেমন জড়িত তেমনি বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত।
এ বিষয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন কুয়েতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এসএম আবুল কালামকে তার সংশ্লিষ্টতা থাকার ব্যাপারে সতর্ক করেছিলেন। এরই প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে এমপি পাপুলকে আটক করে কুয়েত কর্তৃপক্ষ। এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন , কুয়েত এসএম আবুল কালামের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলে বাংলাদেশ তার রাষ্ট্রদূতকে রেহাই দেবে না। অর্থপাচার ও মানবপাচারের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স বজায় রেখেছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন , পাচারকারিরা যে দলেরই হোক না কেনো , তা দের কে শাস্তি পেতে হবে ।

তবে কুয়েতে রাষ্ট্রদূত হিসেবে কালামের মেয়াদ শেষ পর্যায়ে এবং তিনি এ মাসেই দেশে ফিরতে পারেন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কুয়েতে নতুন রাষ্ট্রদূত নিয়োগ চূড়ান্ত করার কথা জানিয়েছেন। গত ৬ জুন কুয়েতে গ্রেফতার করা হয় এমপি শহিদুল ইসলামকে। তার বিরুদ্ধে মানব ও অর্থপাচারের অভিযোগ আনা হয়েছে। কুয়েতের সরকারি কর্মকর্তাদের ৫টি বিলাসবহুল গাড়ি দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ