Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

বকেয়া বেতনের দাবিতে জয়পুরহাটে চিনিকল শ্রমিকদের বিক্ষোভ

জয়পুরহাট জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০২০, ১১:২৩ এএম

করোনা কালীন সময়ে তিনমাসের বেতন না পেয়ে জয়পুরহাট চিনিকলে শ্রমিকরা পড়েছেন বিপাকে। বেতন না পেয়ে কেউ চালাচ্ছেন রিকশা কেউ দিচ্ছেন দিন মজুরি। ফলে মানবেতর জীবন কাটছে চিনিকল শ্রমিক কর্মচারীদের। বেতনের দাবিতে গত এক সপ্তাহ থেকে আন্দোলন করছে শ্রমিকরা। চিনিকল কর্তৃপক্ষ বলছেন চিনি বিক্রি হলে শ্রমিক কর্মচারীদের পাওনা পরিশোধ করা হবে।

চিনিকল সুত্রে জানা যায়, এক হাজার শ্রমিক কর্মচারী কাজ করে জয়পুরহাট চিনিকলে। গেল মাড়াই মৌসুমে জয়পুরহাট চিনিকলে আখের লক্ষ্যমাত্রা ৫৫ হাজার মেট্রিক টন নির্ধারণ করা হলেও কৃষকদের কাছ থেকে আখ ক্রয় করা হয়েছে প্রায় ৫৪ হাজার মেট্রিক টন। যা থেকে সাড়ে ৩ হাজার মেট্রিকটন চিনি ও ২ হাজার মেট্রিকটন চিটাগুড় উৎপাদন হয়। মৌসুম শেষে এখন পর্যন্ত ১১ কোটি টাকার চিনি ৫ কোটি টাকার চিটাগুড় মজুদ থাকলেও গেল তিন মাস থেকে বেতন দেওয়া হয় নি শ্রমিক কর্মচারীদের। বেতনের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে পরিবার নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করা শ্রমিকরা।

এদিকে গত তিন মাসের বকেয়া বেতনের দাবিতে গত এক সপ্তাহ থেকে আন্দোলন করছে শ্রমিকরা। আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় শনিবার (১১ জুলাই) সকাল ৮ টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত চিনিকলের সামনে রাস্তায় অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল করেন প্রায় তিনশতাধিক শ্রমিক। বিক্ষোভ মিছিল শেষে চিনিকল চত্বরে সমাবেশে বক্তব্য দেন- জয়পুুরহাট চিনিকলের শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি আলী আক্তার, সহসভাপতি সমলেম হোসেন বিশ্বাস,সহসাধারণ সম্পাদক জহুরুল হক জুয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাকিম মাহমুদ,ইলিয়াস বিশ^াস রিপন প্রমুখ।

জয়পুরহাট চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোহাম্মদ আবু বকর বলেন, রিফাইনার চিনি বাজারে কেজি প্রতি ২ থেকে ৩ টাকা কমে যাওয়ায় দেশীয় চিনির চাহিদা কম। সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক চিনি বিক্রি করেই বকেয়া বেতন পরিশোধ করার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। বাজারে চিনি বিক্রি হলেই শ্রমিক কর্মচারীদের বেতন শীঘ্রই পরিশোধ করা হবে। করোনার এই সংকটকালে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধে আন্তরিক হবেন সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ এমন প্রত্যাশা জেলা বাসির।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শ্রমিক বিক্ষোভ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ