Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

চমেক ক্যাম্পাসে শিক্ষা উপমন্ত্রী, ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ১৫

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০২০, ২:৩৬ পিএম

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে চার পুলিশ সদস্যসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। রক্তাক্ত অবস্থায় কয়েক জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
রোববার দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
এক পক্ষ শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর এবং অপর পক্ষ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী।
পুলিশ জানায়, শিক্ষা উপমন্ত্রী চমেক হাসপাতালে যান। হাসপাতালের পরিচালকের সঙ্গে দেখা করে চলে যাওয়ার সময় ছাত্রলীগের দুই পক্ষের কর্মীরা পাল্টা পাল্টি শ্লোগান দিতে থাকে। এক পক্ষ শিক্ষা উপমন্ত্রী অন্য পক্ষের কর্মীরা মেয়রের নামে শ্লোগান দেয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে হামলায় আহত হয়েছেন চার পুলিশ সদস্য।
আহতরা হলেন- সানি হাসনাত প্রান্তিক, ডা. ফয়সাল আহমেদ, ডা. মাসুম বিল্লাহ মাহিন, মাহতাব বিন হাসিম ও ডা. নুর মোহাম্মদ।
আহত চার পুলিশ সদস্য হলেন - হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক জহিরুল হক ভুঁইয়া, পাঁচলাইশ থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আবু তালেব ও এসআই আলমগীর।

পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাশেম ভুঁইয়া বলেন, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে। মারামারি থামাতে গিয়ে চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে প্রথম দফায় মারামারির পর চমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা নেওয়ার সময়ও দুই পক্ষ হাতাহাতিতে জড়ায় । সেখানে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংঘর্ষে আহত


আরও
আরও পড়ুন