Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

গ্রেফতার ডা. সাবরিনার কঠোর শাস্তি চান নেটিজেনরা

আবদুল মোমিন | প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০২০, ৭:২৩ পিএম

করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা না করেই রিপোর্ট ডেলিভারি দেয়ার ঘটনায় গ্রেফতার জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা আরিফের শাস্তির দাবিতে তোলপাড় শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ফেইসবুকে তার কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন নেট দুনিয়ার বাসিন্দারা।

রোববার (১২ জুলাই) বিকেলে তাকে পুলিশ গ্রেফতার করে। এরআগে দুপুরে তাকে তেজগাঁও বিভাগীয় উপ-পুলিশ (ডিসি) কার্যালয়ে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তার গ্রেফতারের খবর ছড়িয়ে পড়তেই দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সোচ্চার হন নেটিজেনরা।

উল্লেখ্য, জেকেজি হেলথ কেয়ারের করোনা টেস্ট নিয়ে প্রতারণার অভিযোগে এরইমধ্যে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী আরিফ চৌধুরীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সাবরিনা তারই স্ত্রী।

ফেইসবুকে মো. খালেদ মোশারেফ বাবু লিখেছেন, ‘‘শিক্ষিত(তথাকথিত) মানুষ যখন অন্যায় করে, সে অন্যায়কে ভুল হিসাবে দেখার আর কোনো সুযোগ থাকে না। আর এটা তো এমন এক অন্যায় যা পুরো বিশ্বের কাছে বাংলাদেশকে হেয় করেছে। দেশের ভিতরেই যদি দেশকে ছোট করার এতো মানুষ থাকে তাহলে আর বাইরের শত্রুর দরকার কী! এরাই রাজাকার এর চেয়ে দেশের বড় শত্রু হতে পারে না।এদের যদি সর্ব্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি না হয় হেরে যাবে বাংলাদেশ।’’

আব্দুস সাত্তার লিখেছেন, ‘‘নো তদন্ত নো ওয়ারেন্ট, সোজা ক্রস ফায়ার এটাই মনে করি উপযুক্ত। কেননা ওরা দেশের সুনাম নষ্ট করে বিশ্বের দরবারে দেশকে বাটপারদের কাতারে নাম লেখিয়ে দেশদ্রোহী কাজ করেছে।’’

মো. সাইদ চৌধুরী লিখেছেন, ‘‘গ্রেফতার করে দেশের বা ভুক্তভোগীদের কোন উপকারে আসবে না উপকার হবে দূর্নীতিগ্রস্থ কিছু লোকের পকেট ভারী হবে। আর সাবরিনা থাকবে রাজার হালতে কিন্তু ভুক্তভোগীদের কি হবে যাহারা সবকিছু হারিয়ে পথের ফকির। রাজনীতি এমনই এক খেলা এ খেলায় জনগনই শুধু সারাজীবন ধোঁকা খায়।’’

আলি হানসেন লিখেছেন, ‘‘এই পিশাচ মহিলা, যার মানুষের জীবন নিয়ে তামাশা করতে একটুও বিবেকে বাঁধলো না, একবারও হাত কাপলো না এই ভূয়া রিপোর্ট ইসু করতে। তার ডাক্তারি করার কোন অধিকার নাই। সে ডাক্তার নামের কলঙ্ক। তার ডাক্তারি লাইসেন্স বাতিল করার জোড় দাবি জানাচ্ছি এবং এই ঘৃন্য অমানবিক কৃতকর্মের জন্য তাকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।’’

সুলতানা নাহিদা মোরতোজা লিখেছেন, প্রত্যেক টা দুর্নীতির পিছনের গল্প একই ক্ষমতাধর ব্যক্তির আশির্বাদ। তাহলে এই সব লোক দেখানো কাজে কোন ফায়দা নেই। এই জন্যই ত একটার পর একটা ধরা হচ্ছে কিন্তু বন্ধ হচ্ছে না। কারন যারা আশির্বাদ দিচ্ছে তাদের... ক্ষমতার চেয়ার ঠিকই আছে।

খুরশিদ শাহ লিখেছেন, ‘‘ডাঃ সাবরিনার সাথে যারা জড়িত আছে তাদেরও গ্রেফতার করা হউক।স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজিও নাকি ভুয়া করোনা সার্টিফিকেট সম্পর্কে জানতো! তাকেও আইনের আওতায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হউক।’’



 

Show all comments
  • MOHAMMAD LOKMAN ১২ জুলাই, ২০২০, ৭:২৮ পিএম says : 0
    I want good punishment for this matter how he can do this negligees work.
    Total Reply(0) Reply
  • আবুল কালাম আজাদ ১২ জুলাই, ২০২০, ৯:২৫ পিএম says : 0
    ডক্টর সাবরিনা কাদের মামার সাথে দেখা করলেই সব শাস্তি মৌকুফ হয়ে জাবে
    Total Reply(0) Reply
  • মোহাম্মদ আবুল হাশেম ১২ জুলাই, ২০২০, ১১:৩৩ পিএম says : 0
    BDMC should take appropriate action
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ