Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

করোনায় লণ্ডভণ্ড ভারত : মৃত্যু ২৩ হাজার ছাড়াল, আক্রান্ত প্রায় ৯ লাখ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০২০, ১১:৪৭ এএম | আপডেট : ২:৪৫ পিএম, ১৩ জুলাই, ২০২০

করোনাভাইরাসে লণ্ডভণ্ড ভারতের অবস্থা। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৮ হাজার ৭০১ জন নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন। এক দিনে এত সংখ্যক মানুষ এর আগে আক্রান্ত হননি। এ নিয়ে ভারতে মোট আক্রান্ত হলেন আট লক্ষ ৭৮ হাজার ২৫৪ জন। আক্রান্তের সঙ্গে সংক্রমণের হারও ঊর্ধ্বমুখী। গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণের হার ১৩.১ শতাংশ।

সংক্রমণের হার কী? প্রতিদিন যে সংখ্যক মানুষের টেস্ট হচ্ছে, তার মধ্যে যত শতাংশের রিপোর্ট কোভিড পজিটিভ আসছে, সেটাকেই বলা হচ্ছে ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার।

আক্রান্তের পাশাপাশি ধারাবাহিক ভাবে বেড়ে চলেছে মৃত্যুও। ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুসারে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার জেরে মৃত্যু হয়েছে ৫০০ জনের। এ নিয়ে ভারতে মোট ২৩ হাজার ১৭৪ জনের প্রাণ কাড়ল করোনাভাইরাস। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রেই মারা গিয়েছেন ১০ হাজার ২৮৯ জন। মৃত্যুর তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা দিল্লিতে প্রাণ গিয়েছে তিন হাজার ৩৭১ জনের। গুজরাতে দু’হাজার ৪৫ জন প্রাণ হারিয়েছেন করোনার কারণে। নিয়মিত বেড়ে তামিলনাড়ুতে সংখ্যাটা দাঁড়াল এক হাজার ৯৬৬-তে। উত্তরপ্রদেশ (৯৩৪) ও পশ্চিমবঙ্গেও (৯৩২) মৃত্যুর তালিকাটা হাজারের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে। এর পর ক্রমান্বয়ে রয়েছে কর্নাটক (৬৮৪), মধ্যপ্রদেশ (৬৫৩), রাজস্থান (৫১০), তেলঙ্গানা (৩৫৬), অন্ধ্রপ্রদেশ (৩২৮), হরিয়ানা (৩০১), পঞ্জাব (১৯৯), জম্মু ও কাশ্মীর (১৭৯), বিহার (১৪৩)। বাকি রাজ্যগুলিতে মৃতের সংখ্যা এখনও ১০০ পেরোয়নি।

আক্রান্ত দ্রুত হারে বাড়লেও, ভারতে করোনা রোগীর সুস্থ হয়ে ওঠার পরিসংখ্যানটাও বেশ স্বস্তিদায়ক। এখনও পর্যন্ত সাড়ে পাঁচ লক্ষের বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন। অর্থাৎ আক্রান্তের ৬৩ শতাংশই সুস্থ হয়ে উঠছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ হাজার ৮৫০ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে মোট পাঁচ লক্ষ ৫৩ হাজার ৪৭০ জন করোনার কবল থেকে মুক্ত হলেন। আনন্দবাজার



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন