Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

দ্বীপরাষ্ট্র পালাউয়ে বাস করে ২৪ হাজার মানুষ, যার মধ্যে ২ হাজারই বাংলাদেশি

মোহাম্মদ আবদুল অদুদ | প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০২০, ৮:৪৯ পিএম

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেছেন, প্রশান্ত মহসাগরের দ্বীপরাষ্ট্র পালাউয়ে বসবাসকারী ২৪ হাজার মানুষের মধ্যে দুই হাজারই বাংলাদেশি। বাংলাদেশ ও পালাউ-এর মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের লক্ষ্যে প্রস্তাবিত একটি চুক্তির খসড়া অনুসমর্থনের প্রস্তাবে মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের কথা জানানোর সময় তিনি এই তথ্য তুলে ধরেন ।

গণভবনে ভার্চুয়াল এই সভায় থেকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা; বিভিন্ন মন্ত্রৗ ও সচিবগণ গণভবনে থেকে যুক্ত হন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রশান্ত মহাসাগরীয় একটি ছোট্ট দ্বীপ পালাউ, যার আয়তন ৪৬৬ বর্গকিলোমিটার। জাতিসংঘের আর্থিক সহায়তায় এটা চলে। জাপানের টোকিও-তে বাংলাদেশ দূতাবাস এখন পালাউয়ের বিষয়গুলো দেখভাল করলেও আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পর্ক না থাকায় তাতে সমস্যা হওয়ার কথা বলেন তিনি।

খন্দকার আনোয়ারুল বলেন, কূটনৈতিক সম্পর্ক না থাকার কারণে পালাউ-এ গিয়ে সেখানে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সেবা দিতে টোকিও মিশন অনেক অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছে। তিনি বলেন, পালাউ-এর জনসংখ্যা ২২ থেকে ২৪ হাজার। তার মধ্যে দুই হাজার বাংলাদেশি সেখানে কাজ করেন, এটা ইন্টারেস্টিং বিষয়।মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, পালাউ-এ থাকা বাংলাদেশিদের একটি বড় অংশ সুপারি রক্ষণাবেক্ষণের কাজ করেন। সেখানে সুপারি অনেক জনপ্রিয় আইটেম, পথেঘাটে মুড়ি, চা খাওয়ার মতো ওখানকার লোকজন দোকানে কাঁচা সুপারি খায়। এই কাজে বাংলাদেশিরা বেশি ইনভল্ব। এছাড়া সার্ফিংয়ের কাজেও বাংলাদেশিরা ইনভল্ব। সার্ফিং তাদের একটা বড় আয়ের উৎস।

ভারতসহ বিশ্বের প্রায় ৮০টি দেশের সঙ্গে পালাউ-এর কূটনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ভিয়েনা কনভেনশন-১৯৬১ অনুসারে বাংলাদেশ ও পালাউ গত বছরের ১৬ জুলাই কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের লক্ষ্যে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে চুক্তিটি অনুসমর্থন করা প্রয়োজন। চুক্তিটি অনুসমর্থন করা হলে এটি বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্কে নতুন মাত্রা যোগ করবে।

আজ সোমবারের মন্ত্রিসভার বৈঠকে ওই চুক্তিটি অনুসমর্থনের প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয় বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান। এর ফলে পালাউ-এ বসবাসরত দুই হাজার বাংলাদেশির স্বার্থ সংরক্ষণ করা সহজ হবে বলেও মনে করছেন তিনি। সূত্র : বিডিনিউজ২৪, সাউথ এশিয়ান মনিটর



 

Show all comments
  • Nannu chowhan ১৪ জুলাই, ২০২০, ৭:৫৩ এএম says : 0
    It will be very positive step for the interest of our country men those staying in the palau. But be sure good active not corrupt diplomat & stalf will be assign there...
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ