Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

ভারতকে অপপ্রচার বন্ধ করতে বলল নেপাল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

ভারতের কিছু গণমাধ্যমে নেপাল সম্পর্কিত বেশ কিছু সংবাদ প্রকাশিত হচ্ছে যা ভুয়া, ভিত্তিহীন, অসংবেদনশীল এবং একইসঙ্গে দেশ ও তার নেতাদের পক্ষে অবমাননাকর বলে নেপাল সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এই ধরনের সংবাদের প্রচার বন্ধে অনুরোধ জানিয়ে গতকাল ভারত সরকারের কাছে একটি কূটনৈতিক নোট পাঠিয়েছে নেপাল।

জাতীয় আবেগ আহত হচ্ছে এই অভিযোগে এর আগে গত বৃহস্পতিবার নেপালে দূরদর্শন ছাড়া ভারতের প্রায় সমস্ত বেসরকারি চ্যানেলের সম্প্রচার করা বন্ধ করে দেয়া হয়। ভারতীয় চ্যানেলগুলো চরিত্র সংশোধন না করা পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে বলে নেপালের যোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তিমন্ত্রী ডক্টর যুবরাজ খাতিওয়াড়া জানিয়েছেন।

সম্প্রতি সংশোধিত মানচিত্রে বিতর্কিত তিনটি অঞ্চল অন্তর্ভুক্ত করে নেয়ায় ভারতের রোষানলে পড়েন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি। ভারতের মদদে তার দলেরই কিছু নেতা তাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে মরিয়া হয়ে ওঠে। তবে অলির পক্ষে জনতা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ শুরু করার পর থেকেই পরিস্থিতি পাল্টাতে শুরু করেছে। জনরোষের ভয়ে সেই নেতারাই এখন অলির সাথে সমঝোতায় আসতে চাইছেন। ফলে, নেপালের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীকে উৎখাতে ভারতের ক‚টকৌশল সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়। ভুয়া সংবাদ প্রচারও ভারতের সেই ক‚টকৌশলের অংশ বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের। গতকাল নেপালের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নতুন দিল্লিতে অবস্থিত নেপালের দূতাবাসের মাধ্যমে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্দেশে পাঠানো ক‚টনৈতিক নোটে জানিয়েছে, ভারতীয় গণমাধ্যমের একটি অংশ যে খবর প্রচার করছে তা ভুয়া, ভিত্তিহীন অসংবেদনশীল এবং নেপাল ও তার নেতৃবর্গের প্রতি অবমাননাকর। সেই নোটে আরও বলা হয়েছে, এ ধরনের সংবাদ শুধু বিভ্রান্তিকর বা অসত্যই নয়, একই সঙ্গে ন্যূনতম সাধারণ শিষ্টাচার বিরোধী।

ভারতীয় গণমাধ্যমের এক অংশের অসৎ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত প্রচার নেপালি জনগণের আবেগকে আহত করেছে এবং দেশের নেতাদের ব্যক্তিগত চরিত্রের ওপর কালিমা লিপ্ত করার চেষ্টা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে নোটে।
ইতোমধ্যে নেপালে জার্নালিস্ট ফেডারেশন এবং প্রেস কাউন্সিল একই সঙ্গে ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রচারিত সংবাদের বিষয় তাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে। তবে, এ নোটের ব্যাপারে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এখনো কোন বক্তব্য দেয়নি।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, ভারতে নিযুক্ত নেপালের রাষ্ট্রদূত নিলাম্বর আচার্য জি নিউজের ব্যবস্থাপনাকে টেলিফোন করে তাদের একটি টিভি প্রগ্রামের ব্যাপারে হতাশা প্রকাশ করেন। গত সপ্তাহে এই প্রতিবেদন প্রচারিত হয়। তাতে প্রধানমন্ত্রী ওলি ও কাঠমান্ডুতে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত হু ইয়ানকিকে আপত্তিজনকভাবে উপস্থাপন করা হয়। নেপালের সূত্রগুলো ভারতের আরো অনেক টিভি চ্যানেল ও পত্রিকার ব্যাপারে হুতাশা প্রকাশ করে। এসব চ্যানেল ও পত্রিকা সাম্প্রতিক সময়ে প্রধানমন্ত্রী ওলিকে নিয়ে আপত্তিকর প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সূত্র : হিমালয়ান টাইমস, রিপাবলিক ওয়ার্ল্ড।



 

Show all comments
  • Mohammed hamid ১৫ জুলাই, ২০২০, ৩:৫৭ পিএম says : 0
    ভারত হলো বিশ্ব বেহায়া।
    Total Reply(0) Reply
  • Jogi Aditya Nath ২৩ জুলাই, ২০২০, ১০:০০ এএম says : 0
    Nepal and China well done .
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ