Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

উপমুখ্যমন্ত্রী-প্রদেশ সভাপতির পদ হারাল পাইলট

কংগ্রেসের কঠোর সিদ্ধান্ত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ জুলাই, ২০২০, ১২:৪৬ এএম

ধৈর্যের বাঁধ ভাঙল কংগ্রেস নেতৃত্বের। শচীন পাইলটকে রাজস্থানের উপমুখ্যমন্ত্রী এবং রাজস্থান প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দিল কংগ্রেস। পাইলটের পাশাপাশি তার অনুগামী ৩ মন্ত্রীকেও পদ থেকে সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্ব। এমনটাই খবর কংগ্রেস সূত্রে। কংগ্রেস সূত্রের দাবি, লাগাতার পাইলটকে বুঝিয়ে দলে ফেরানোর চেষ্টা করা হলেও তিনি কোনও প্রস্তাবে সাড়া দেননি। রাহুল গান্ধী, প্রিয়াঙ্কা গান্ধীদের মতো নেতাদের কথাতেও আমল দেননি তিনি। দল তার সমস্ত দাবি মেনে নেয়ার প্রস্তাব দিলে পাইলট মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে গেহলটের অপসারণ দাবি করেছিলেন। যা মেনে নেয়া কংগ্রেসের পক্ষে সম্ভব নয়। এদিকে লাগাতার প্রকাশ্যে দলের এই গোষ্ঠী কোন্দলের জন্য সর্বভারতীয় স্তরে ভুল বার্তা যাচ্ছিল। তাই একপ্রকার বাধ্য হয়েই কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্ব এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর ফলে পাইলটের কংগ্রেস ছাড়ার রাস্তা পাকা হয়ে গেল। তাৎপর্যপূর্ণভাবে মঙ্গলবার সকালেই বিজেপি নেতা ওম মাথুর তরুণ নেতাকে বিজেপিতে স্বাগত জানিয়েছেন। যদিও তিনি নিজে এখনও বিজেপিতে যোগ দেয়ার কথা অস্বীকার করে আসছেন। আবার কংগ্রেস ছেড়ে অন্য কোনও দল তৈরির কোনও ইঙ্গিতও দেননি। উল্লেখ্য, গত সোমবারের পর মঙ্গলবারও জয়পুরে বিধায়কদলের বৈঠক ডেকেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট। সেই বৈঠকে পাইলট শিবিরের ২২ জন বিধায়ক বাদে কংগ্রেস এবং জোটসঙ্গীদের ১০২ জন বিধায়ক উপস্থিত ছিলেন। গেহলট শিবির আত্মবিশ্বাসী, পাইলটের সমর্থন ছাড়াও তিনি সরকার টিকিয়ে রাখতে পারবেন। সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কংগ্রেস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ