Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৭ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

কাল জিতেই শিরোপা উৎসব করতে চায় রিয়াল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ জুলাই, ২০২০, ১২:৪৫ এএম

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট অনাকাক্সিক্ষত বিরতি শেষে ফুটবল ফেরার পর গ্রানাদার বিপক্ষেই সবচেয়ে বড় পরীক্ষাটা দিল রিয়াল মাদ্রিদ। অথচ ম্যাচের শুরুতে মনে হয়েছিল সহজ জয়ই পেতে যাচ্ছে দলটি। দারুণ দুটি গোলে এগিয়েও যায় তারা। কিন্তু এরপর দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ভীতি ছড়িয়েছিল গ্রানাদা। যদিও শেষ পর্যন্ত জয় পেয়েছে রিয়ালই। তাতে লা লিগা শিরোপা উদ্ধারের খুব কাছাকাছি চলে এসেছে জিনেদিন জিদানের দলটি।
গ্রানাদার মাঠে গতপরশু রাতে স্বাগতিকদের বিপক্ষে ২-১ গোলের ব্যবধানে জিতেছে রিয়াল। দলটির হয়ে গোল পেয়েছেন ফার্লন্ড মেন্ডি ও করিম বেনজেমা। গ্রানাদার হয়ে একমাত্র গোলটি করেন দারউইন মাচিস। আর এ জয়ে বার্সেলোনা থেকে ফের ৪ পয়েন্টে এগিয়ে গেল রিয়াল। ৩৬ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ ৮৩ পয়েন্ট। সমান ম্যাচে বার্সার পয়েন্ট ৭৯। শেষ দুই ম্যাচ থেকে আর মাত্র দুই পয়েন্ট পেলেই কোনো হিসেব ছাড়াই দুই মৌসুম পর আবার লা লিগার শিরোপা স্বাদ পাবে দলটি।
এদিন ম্যাচের শুরুতেই স্পষ্ট প্রাধান্য বিস্তার করে রিয়াল। ১৬ মিনিটেই দুটি গোল পায় দলটি। দশম মিনিটে ফার্লন্ড মেন্ডির অসাধারণ এক গোলে এগিয়ে গিয়েছিল রিয়াল। বক্সের ভেতর ঢুকে এগিয়ে দুরূহ কোণ থেকে আচমকা বুলেট গতির শট নেন মেন্ডি। গ্রানাডা গোলরক্ষক সেই শট ঠেকাতে না পারলে রিয়ালের জার্সিতে প্রথম গোল পেয়ে যান এ ফরাসি। ছয় মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করে রিয়াল। এবার গোল পান বেনজেমা। মাঝমাঠে ইস্কোর সঙ্গে দেওয়া নেওয়া করে বেনজেমাকে বল বাড়িয়েছিলেন লুকা মদ্রিচ। বক্সের বাইরে থেকে বল পেয়ে কাট করে ভেতরে ঢুকে জোরালো উঁচু শটে লক্ষ্যভেদ করেন এ ফরাসি ফরোয়ার্ড। চলতি আসরে আসরে এটা তার ১৯তম গোল। বিরতির সামান্য আগে আরও একটি গোল পেতে পারতেন বেনজেমা। তবে সে যাত্রা দারুণ সেভে দলকে রক্ষা করেন গ্রানাদা গোলরক্ষক রুই সিলভা। তবে এর আগে ৩৬তম মিনিটে রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কর্তোয়াও হতাশ করেন গ্রানাদার দোমিঙ্গোস দুয়ার্তেকে।
প্রথমার্ধের দাপট দ্বিতীয়ার্ধে ধরে রাখতে পারেনি রিয়াল। ফলে দলটিকে চেপে ধরে গ্রানাদা। ফলাফলও পায় পাঁচ মিনিটেই। ৫০তম মিনিটে ব্যবধান কমিয়ে লড়াই জমিয়ে তোলে তারা। কাসেমিরো মাঝমাঠে বল হারালে সে বল ধরে মাচিসকে বল বাড়ান এরেরা। বাঁ প্রান্ত থেকে তার নিচু শট কর্তোয়ার পায়ের ফাঁক দিয়ে বল জালে জড়ান তিনি। তাতে টানা পাঁচ ম্যাচ পর গোল হজম করলেন কর্তোয়া। সময়ের হিসেবে ৫০৭ মিনিট পর। গোল পেয়ে সমতায় ফিরতে মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে গ্রানাদা। ৮৫তম মিনিটে প্রায় গোল পেয়েও গিয়েছিল দলটি। কিন্তু কর্তোয়ার সেভ আর সের্জিও রামোসের গোললাইন ক্লিয়ারেন্সে পথ হারায়নি তারা। প্রথম দফায় আন্তোনিনের হাফ-ভলি ঝাঁপিয়ে ঠেকান কর্তোয়া। ফিরতি বলে সতীর্থের পা ঘুরে পাওয়া বলে রেমন আজিজের শট গোললাইন থেকে ফিরিয়ে দেন রামোস।
এ জয়ে লা লিগা শিরোপার অনেক কাছে চলে এসেছে রিয়াল। আগামীকাল ঘরের মাঠে ভিয়ারিয়ালকে হারাতে পারলেই ৩৪তম লিগ শিরোপা আনন্দে ভাসবে দলটি। ম্যাচটি জিতে ঘরের মাঠেই শিরোপা উৎসব করতে চায় প্রতিযোগিতার সফলতম দলটি। সে লক্ষ্যে সতীর্থদের নির্ভার না হয়ে লক্ষ্যে মনোযোগ ধরে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন অধিনায়ক রামোস, ‘এটা ঠিক যে আমরা শিরোপার পথে আরেক ধাপ এগিয়েছি; তবে আমাদের এভাবেই এগিয়ে যেতে হবে। এখনও অনেক পয়েন্টের খেলা বাকি। আমরা সব ম্যাচ জয়ের চেষ্টা করব। আশা করি, বৃহস্পতিবার আমরা জয় দিয়েই শিরোপা উদযাপন করতে পারব। সেরাটা দেওয়ার প্রশ্নে কোনো ঢিলেমি দেখতে চান না এই স্প্যানিশ ডিফেন্ডার, ‘শিরোপা আমাদের আরেকটু কাছে এসেছে, কিন্তু আমরা নির্ভার হতে পারি না। আমাদের সতর্ক ও লক্ষ্যে স্থির থাকতে হবে। কারণ, অসচেতন থাকলে আমরা ছন্দ হারাতে পারি। লিগ জেতাটা হবে আমাদের ধারাবাহিক পারফরম্যান্সের ফল। আমরা সত্যিকারের এক চ্যালেঞ্জে লড়াই করছি।’



 

Show all comments
  • mashud ১৫ জুলাই, ২০২০, ৭:২১ পিএম says : 0
    go ahead my boys.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রিয়াল


আরও
আরও পড়ুন