Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

অবশেষে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেন ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ জুলাই, ২০২০, ২:৫৫ পিএম

ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডেরিকসেন অবশেষে বিয়ে করতে সক্ষম হয়েছেন। দীর্ঘদিনের বন্ধু বো টেংবার্গকে বিয়ে করলেন ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডেরিকস।
মহামারি করোনা পরিস্থিতি এবং সরকারি দাপ্তরিক কাজের চাপে বিয়ের তারিখ পিছিয়ে দেন ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী। একবার নয়, তিনবার বিয়ের তারিখ পিছতে হয় তাকে। এবার আর পিছনে নয়, সেরে ফেললেন বিয়েটা।
গোপনে বিয়ে সারলেও খুবই অল্প কয়েকজনকেই নিমন্ত্রিতের তালিকায় রেখেছিলেন ড্যানিস প্রধানমন্ত্রী। ছিলেন দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী পোল নিরাপ রাসমুসেন। এছাড়াও ছিলেন ড্যানিস প্রধানমন্ত্রী এবং বো’য়ের বেশ কয়েকজন ঘনিষ্ঠ। দক্ষিণ পূর্ব ডেনমার্কের মোন দ্বীপের মধ্যযুগীয় মেগলবাই চার্চে বসে বিয়ের আসর। বিয়ের পর ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী তার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউউন্টে তাদের বিয়ের ছবি শেয়ার করেন।
জানা যায়, বো টেংবার্গের বয়স ৫৫। তিনি চলচ্চিত্র নির্মাতা ও আলোকচিত্রী। দক্ষিণ পূর্ব ডেনমার্কের মোয়েন দ্বীপের মনোরম পরিবেশে ম্যাগলেবি চার্চে গুটিকয়েক আত্মীয়ের উপস্থিতিতে বুধবার বিয়ে করেছেন বিয়ে করেছেন ৪২ বছর বয়সী মেটে ফ্রেডেরিকসেনকে। নিজের ফেসবুক পেজে দানিশ প্রধানমন্ত্রী।
বিয়ের ছবিও পোস্ট করেছেন। ক্যাপশনে দানিশ ভাষায় লিখেছেন ‘জা’। অর্থাৎ ‘হ্যাঁ’। এই একটা শব্দেই জীবনের সবথেকে বড় সিদ্ধান্তে তাঁর সম্মতির কথা গোটা বিশ্বকে জানিয়েছেন।
গত বছরের ২৭ জুন ডেনমার্কের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন ফ্রেডরিকশন। ওই বছরই দেশে সাধারণ নির্বাচনে জন্য টেনবার্গের সঙ্গে তাঁর বিয়ের দিন পিছিয়ে গিয়েছিল। তারপর চলতি বছরের শুরুতে করোনা মহামারীর জেরে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের কাজে ফ্রেডরিকশন খুবই ব্যস্ত থাকায় ফের বিয়ের দিন পিছায়। গত মাসে ইউরোপীয় ইউনিয়নের বৈঠকের কারণে আবার ফ্রেডরিকশন জানান যে, আরও একবার তাঁকে বিয়ের দিন ঠিক করা নিয়ে চিন্তাভাবনা করতে হবে। অবশেষে বুধবার কার্যত গোপনেই বিয়ে সারেন তিনি। ছবি: পিটিআই



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী
আরও পড়ুন