Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী

ম্যাজিস্ট্রেটদের ব্রিফিংয়ের ব্যাখ্যা চেয়ে নোটিশ

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ জুলাই, ২০২০, ১২:০১ এএম

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের প্রেস ব্রিফিং করার আইনগত বৈধতা-জানতে লিগ্যাল নোটিস দেয়া হয়েছে। ‘ন্যাশনাল ল’ইয়ার্স কাউন্সিল’র পক্ষে অ্যাডভোকেট এসএম জুলফিকার আলী জুনু গতকাল রোববার এ নোটিস দেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব, আইন, বিচার সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিবকে নোটিসের ‘প্রাপক’ করা হয়েছে।

নোটিসে বলা হয়, বিভিন্ন টেলিভিশনে লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় বিচারিক ক্ষমতা প্রয়োগকালে বিভিন্ন বাহিনীর নিয়োজিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে তারা অভিযুক্ত ব্যক্তিকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করেন।
পরে এ বিষয়ে গণমাধ্যমে বক্তব্য দেন। নোটিসের প্রাপকদের কাছে জানতে চাই যে, বিচারিক ক্ষমতা প্রয়োগকালে কোনো বিচারক/নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের গণমাধ্যমে বক্তব্য দেয়ার আইনগত কোনো সুযোগ আছে কি না? অভিযানের আগে-পরে সাজার বিষয়ে সরাসরি গণমাধ্যমে বিচারিক ক্ষমতাপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের বক্তব্য প্রদান দেশের প্রচলিত আইন ও সংবিধানের সুস্পষ্ট বিধানের পরিপন্থি, বেআইনি হবে কি না জানা আবশ্যক।

নোটিসে বলা হয়, যদি সংবিধান ও প্রচলিত আইনের বিধান লঙ্ঘন করে বিচারিক বিষয় নিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ সংবাদমাধ্যমে বক্তব্য দেন তাহলে কেন তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নিচ্ছে না। দেশে আইনের শাসন ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা রক্ষার প্রয়োজনে আইনজীবী সমাজ মনে করে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা প্রয়োজন। অতএব নোটিসপ্রাপ্তির ৩০ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা প্রদানের অনুরোধ জানাচ্ছি। অন্যথায় এ বিষয়ে উচ্চ আদালতে প্রতিকার চেয়ে মামলা করা হবে মর্মে হুঁশিয়ারি দেয়া হয় নোটিসে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভ্রাম্যমাণ আদালত


আরও
আরও পড়ুন