Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী

সাগরে প্রতিরোধের উদ্যোগ নিতে শুরু করেছে চীন

দক্ষিণ চীন সাগর বৈশ্বিক সম্পদ, মন্তব্য ভারতের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ জুলাই, ২০২০, ১২:০১ এএম

দক্ষিণ চীন সাগরের মূল অঞ্চলে বেআইনি কাজের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের উদ্যোগ নিতে শুরু করেছে চীন। স্বতন্ত্র এক মার্কিন প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, সমুদ্রের পরিবেশগত সুরক্ষা বৃদ্ধি ও উপকূলীয় তেল অনুসন্ধান সমুদ্র পরিবহন এবং এ সম্পর্কিত কার্যক্রমসহ মূল অঞ্চলগুলোতে অবৈধ কার্যক্রম দমনে চীন সামুদ্রিক আইন প্রয়োগের সমন্বিত উদ্যোগ নিয়েছে। মার্কিন ম্যাগাজিন ডিপ্লোমেট জানিয়েছে, চীনের প্রাকৃতিক সম্পদ, পরিবেশ ও বাস্তুশাসন, পরিবহন মন্ত্রণালয় ও চীনা উপকূল রক্ষীবাহিনী এক যুক্ত বিবৃতিতে আট মাসব্যাপী ‘নীল সমুদ্র ২০২০’ কর্মস‚চি শুরুর ঘোষণা দিয়েছে। আটটি ক্ষেত্রে আগামী ৩০ নভেম্বর এ পর্যন্ত এ কর্মসূচি পরিচালিত হবে। এগুলো হল সামুদ্রিক প্রকৌশলগত নির্মাণ, উপকূলীয় তেল অনুসন্ধান, সামুদ্রিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, সমুদ্র পরিবহন সম্পর্কিত কার্যকলাপ, সমুদ্রের বালু আহরণ ও পরিবহন, সুরক্ষিত অঞ্চল ব্যবস্থাপনা, সামুদ্রিক পরিবেশ ও বাস্তুসংস্থান উন্নয়ন। অপরদিকে, দক্ষিণ চীন সাগরের ওপর কোন একক দেশের অধিকার নেই বরং তা বৈশ্বিক সম্পদ বলে মন্তব্য করেছে ভারত। সম্প্রতি দক্ষিণ চীন সাগরে মার্কিন রণতরীর অবস্থান নিয়ে সৃষ্ট উত্তেজনা বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে এ কথা জানায় ভারত। ভারতের পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, দক্ষিণ চীন সাগর বৈশ্বিক সম্পদ। আমরা এই অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীল অবস্থা আশা করি। তিনি আরো বলেন, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য আইন ও জাতিসংঘ প্রদত্ত নিয়ম অনুসারে এই আন্তর্জাতিক জলসীমায় ব্যবসা ও যাতায়াতের ক্ষেত্রে চলাচলের স্বাধীনতার পক্ষে সর্বদা রয়েছি আমরা। সম্প্রতি মাইক পম্পেও বলেন, দক্ষিণ চীন সাগরের অধিকাংশ অঞ্চল জুড়ে চীনের দখল করা আইনত সঠিক নয়। ভারত-প্রশান্ত অঞ্চল উন্মুক্ত রাখার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কাজ করে যাচ্ছে বলে জানিয়ে পম্পে বলেন, আমরা শান্তি ও স্থিতিশীল অবস্থা বজায় রাখতে চাই। যেখানে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে কোন বাধা আসবে না। এ সময় তিনি আরো বলেন, দক্ষিণ চীন সাগরে অবৈধভাবে বেশ কিছু অঞ্চল দখল করে রেখেছে চীন। সেই সঙ্গে তারা এই অঞ্চলে নিজেদের আগ্রাসন বাড়াতে অন্যান্য রাষ্ট্রকে ভয়-ভীতিও প্রদর্শন করছে যা কোনভাবেই কাম্য নয়। ডিপ্লোমেট, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দক্ষিণ-চীন-সাগর
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ