Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ১২ সফর ১৪৪২ হিজরী

বাড়ছে চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য

চট্টগ্রামে ঈদ সামনে রেখে সক্রিয় অপরাধীরা

রফিকুল ইসলাম সেলিম | প্রকাশের সময় : ২১ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

চট্টগ্রামে চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য বাড়ছে। সড়ক, মহাসড়ক, পাড়ায়- মহল্লায় রীতিমত অস্ত্রের মহড়া দিয়ে চাঁদাবাজি করা হচ্ছে। থেমে নেই ছিনতাই, ঝাপটাবাজি, টানা পার্টির উৎপাত। ঈদ সামনে রেখে সক্রিয় হয়ে উঠছে অজ্ঞান ও মলমপার্টির সদস্যরা।
জাল টাকার কারিগরেরাও বসে নেই। বেপরোয়া মাদকের কারবারিরাও। ভাসমান অপরাধীদের সাথে নগর এবং জেলায় চুরি, ডাকাতি, দস্যুতার ঘটনাও বাড়ছে। তবে র‌্যাব-পুলিশের কর্মকর্তারা বলছেন, অপরাধ দমনে বিশেষ করে ঈদ সামনে রেখে চাঁদাবাজি রোধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।
চট্টগ্রামে হঠাৎ চাঁদাবাজি বাড়ছে। এতো দিন নীবর চাঁদাবাজির ঘটনা ঘটলেও সম্প্রতি অস্ত্রের মহড়া দিয়ে চাঁদাবাজিতে নেমে পড়ে কিছু শীর্ষ অপরাধী। এমন কয়েকজনকে পুলিশ পাকড়াও করেছে। গত শনিবার নগরীর আকবর শাহ থানার বিশ^কলোনী থেকে মো. রাসেল ওরফে পিচ্চি রাসেলকে (২৩) পাকড়াও করে পুলিশ। পুলিশ জানায় তালিকাভুক্ত এই সন্ত্রাসী প্রকাশ্যে অস্ত্র উঁচিয়ে এলাকায় ব্যবসায়ী ও বাড়ির মালিকদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি করছিলো। তার কাছ থেকে একটি বিদেশি রিভলবার ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।
গত ১৫ জুলাই নগরীর হালিশহর থানার সোনালী আবাসিক এলাকায় রিয়াজুর রহমান নামে এক চাঁদাবাজকে হাতেনাতে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশ জানায় সে চিহ্নিত চাঁদাবাজ, তার বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। একই দিন নগরীর চাদগাঁও এলাকায় নির্মাণাধীন এক বাড়ির মালিকের কাছে চাঁদাবাজিকালে তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কারাগার থেকে জামিনে এসেও চাঁদাবাজিতে লিপ্ত হচ্ছে শীর্ষ সন্ত্রাসীরা।
গত ৩ জুলাই নগরীর বায়েজিদ থানার শেরশাহ এলাকা থেকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করা হয় যুবলীগ নেতা মেহেদী হাসান বাদল হত্যা মামলার প্রধান আসামি গোলাম রসুল সাদ্দামকে। হত্যা, চাঁদাবাজিসহ ১৩ মামলার আসামি এই যুবলীগ ক্যাডার হত্যা মামলায় জামিনে বের হয়ে এলাকায় দ্বিগুণ উৎসাহে চাঁদাবাজি শুরু করে। পুলিশ জানায়, সে প্রকাশ্যে অস্ত্রহাতে এলাকার ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে। নিজের মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে তোলা ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে। গ্রেফতারের পর তার কাছ থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।
কারাগারে বন্দি এবং বিদেশে পালিয়ে থাকা সন্ত্রাসীদের নামেও থেমে নেই চাঁদাবাজি। কোটি টাকা চাঁদা অথবা বাড়ির একটি ফ্ল্যাট লিখে দেওয়ার দাবিতে এপ্রিল মাসে এক প্রবাসীর বাড়িতে পেট্রল বোমা হামলা করে চাঁদাবাজরা। পুলিশ জানায় ভারতে পালিয়ে থাকা শিবির ক্যাডার সাজ্জাদ হোসেনের নামে এই চাঁদা দাবি করা হয়। চাঁদা না পেয়ে বাড়িতে হামলা করা হয়। পরে ওই ঘটনায় কয়েকজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ভারত, দুবাই, কাতারসহ বিভিন্ন দেশে পালিয়ে থাকা সন্ত্রাসীদের নামে বড় বড় ব্যবসায়ী শিল্পপতিদের কাছে চাঁদাবাজি করা হচ্ছে। কেউ ঘটনা থানা পুলিশকে জানালেও অনেকে বড় বিপদের আশঙ্কায় নীরবে চাঁদা দিয়ে দিচ্ছেন।
এদিকে কোরবানির পশুরহাটকে ঘিরে সক্রিয় হয়ে উঠেছে পেশাদার ও মৌসুমী চাঁদাবাজরা। সড়ক, মহাসড়কে পশুবাহি যানবাহন থামিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ পাওয়া গেছে। চট্টগ্রামের কোরবানির পশুর হাটগুলোতে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে গরুবাহী ট্রাক আসছে। পথে পথে ট্রাক থামিয়ে টাকা আদায় করা হচ্ছে। তবে জেলা পুলিশের কর্মকর্তারা বলছেন, মহাসড়কে চাঁদাবাজি রোধে পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশ সক্রিয় রয়েছে।
পশুর হাটকে ঘিরে জাল টাকার কারবারিরাও সক্রিয় হয়ে উঠেছে। সস্প্রতি নগরীতে পুুলিশের অভিযানে জালনোটসহ কয়েকজন ধরাও পড়েছে। মোটা অঙ্কের টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় থানায় মামলা হলেও ছোটখাট ঘটনায় কেউ থানায় যায় না। ফলে এমন অনেক অপরাধের রের্কড থানা পুলিশের কাছে নেই। তবে প্রতিনিয়তই চুরি, ছিনতাই করা মোবাইল, মোটরসাইকেলসহ অপরাধীরা ধরা পড়ছে। সম্প্রতি দামি ব্রান্ডের ২৫টি মোবাইল ফোনসেটসহ এক ছিনতাইকারীকে পাকড়াও করে কোতোয়ালী থানা পুলিশ। পাঁচলাইশ এলাকায় এক চোরের বাসা থেকে উদ্ধার করা হয় আড়াইশ মোবাইল ফোন। নগরী এবং জেলায় মাদকের কারবারও বেড়েছে। প্রতিদিনই র‌্যাব পুলিশের হাতে ধরা পড়ছে ইয়াবা, ফেনসিডিলের চালান।
চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) শ্যামল কুমার নাথ বলেন, অপরাধীরা সক্রিয় হয়েছে, পুলিশের অভিযানও জোরদার হয়েছে। সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজদের ধরে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। ছিনতাই, চাঁদাবাজি বিশেষ করে কোরবানি পশুরহাট এবং গাড়িতে চাঁদবাজি প্রতিরোধ কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। থানা পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা পুলিশও মাঠে রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চট্টগ্রাম

৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ