Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭, ০৮ সফর ১৪৪২ হিজরী

ইংল্যান্ডে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না অজিদের!

সফর সূচি চূড়ান্ত

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ জুলাই, ২০২০, ১২:০৩ এএম

জৈব সুরক্ষিত পরিবেশে ইংল্যান্ডে নির্ধারিত সফরে যাওয়ার ব্যাপারে অনেকটাই এগিয়ে গেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার। আসছে সেপ্টেম্বরে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে সিরিজের একটা সম্ভাব্য সূচিও ঠিক হয়েছে। এমন খবরই দিয়েছে অসি গণমাধ্যম দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফ।
টেলিগ্রাফ জানায়, ৪ সেপ্টেম্বর থেকে টি-টোয়েন্টি দিয়ে শুরু হবে এই সিরিজ। ৬ ও ৮ সেপ্টেম্বর হবে সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ। টি-টোয়েন্টি সিরিজের দুদিন পরই শুরু হবে ওয়ানডে সিরিজ- ১০, ১২ ও ১৫ সেপ্টেম্বর হবে ম্যাচ তিনটি। প্রতিটি ম্যাচই হবে জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ ও দর্শকশূন্য মাঠে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া দল ভাড়া করা উড়োজাহাজে পৌঁছাবে ইংল্যান্ডে। সেখানে নির্দিষ্ট স্বাস্থ্যবিধি, কোয়ারেন্টিন ও কোভিড-১৯ পরীক্ষার নিয়ম মানবে তারা। সিরিজের ছয়টি ম্যাচের জন্য আবাসন সুবিধা থাকা দুই ভেন্যু সাউদাম্পটনের রোজভৌল আর ম্যানচেস্টারের ওল্ড টার্ফোডকে চ‚ড়ান্ত করা হয়েছে।
ইংল্যান্ডের এই দুই মাঠের প্যাভিলিয়নের মধ্যেই আছে পাঁচ তারকা হোটেল। এই সুবিধা থাকায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলছে ইংল্যান্ড। এই দুই ভেন্যুতে পাকিস্তানের বিপক্ষেও সিরিজ খেলবে জো রুট, বেন স্টোকসরা। এই দুই সিরিজ পরই ইংল্যান্ড খেলতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দলের প্রধান কর্মকর্তা বেন ওলিবার জানান, করোনাভাইরাসের পরবর্তীর পরিস্থিতিতে খেলোয়াড় ও অফিসিয়ালদের সুরক্ষা, প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধির কথা মাথায় নিয়েই এগুচ্ছেন তারা।
ইংল্যান্ড সফর দিয়েই করোনা পরবর্তী ক্রিকেটে প্রবেশ করতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। তাদের এই ইংল্যান্ড সফরের গুরুত্বপূর্ণ দিক আছে আরও একটি। বর্তমানে ইংল্যান্ড সফর করা ওয়েস্ট ইন্ডিজ বা পাকিস্তান দলের মতো দুই সপ্তাহের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভ স্মিথদের। ইংল্যান্ড সরকারের পক্ষ থেকে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের কোয়ারেন্টিনে থাকার এমন কোনো নির্দেশনা নেই বলে জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইংল্যান্ড

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন