Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মঠবাড়িয়ায় ঊর্মি হত্যার ৩ বছর পার

ন্যায় বিচার নিয়ে স্বজনদের শংকা

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ জুলাই, ২০২০, ৪:২০ পিএম

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার বড় মাছুয়া গ্রামে চাঞ্চল্যকর স্কুল ছাত্রী ঊর্মি (১০) হত্যা কান্ডের ৩ বছর পার হলেও বিচার পায়নি স্বজনরা। হত্যা মামলার আসামী ছগির আকন (৩৫) উচ্চ আদালত থেকে জামিনে এসে হুমকি দিচ্ছে মামলা তুলে নিতে। ন্যায় বিচার প্রাপ্তি নিয়ে শংকায় আছে ঊর্মির স্বজনরা। ঊর্মী সাংবাদিক জুলফিকার আমীন সোহেলের মেয়ে আবং মুক্তিযোদ্ধা মৃত রুহুল আমিন আকনের নাতনী। লম্পট ছগির একই বাড়ির অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য মৃত. কুদ্দুস আকনের ছেলে। লম্পট ছগির একই বাড়ির অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য মৃত. কুদ্দুস আকনের ছেলে।

জানাযায়, ২০১৭ সালের ২১ জুলাই শুক্রবার বিকেলে ঊর্মি নিখোঁজ হয়। ২৩ জুলাই রোববার সকালে বাড়ির অদুরে পরিত্যাক্ত একটি বাগানের নালা থেকে ঊর্মির অর্ধগলিত ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই রাতেই নিহত ঊর্মির পিতা সাংবাদিক জুলফিকার আমীন সোহেল অজ্ঞাত আসামী করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন (মামলা নং-জিআর-২৫৫/১৭)। পুলিশ তদন্ত শেষে ২৭ জুলাই লম্পট ছগির আকন (৩৫) কে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে। বর্তমানে ছগির উচ্চ আদালত থেকে জামিনে বেড়িয়ে এসে মামলার বাদিকে মামলা তুলে নিতে একাধিকবার হুমকি দেয়। এঘটনায় মঠবাড়িয়া থানায় একাধিক জিডি করা হয়েছে। জুলফিকার আমীন সোহেল দৈনিক আমাদের নতুন সময় পত্রিকার মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি।
পিরোজপুর জজ আদালতের আইনজীবি এডভোকেট ফজলুল হক বলেন, ঊর্মি হত্যাকান্ড খুবই স্পর্শকাতর ও মর্মান্তিক পুলিশ সে অনুযায়ি চার্জশীট দাখিল করেছেন। মামলাটি বর্তমানে স্বাক্ষী পর্বে রয়েছে। আশা রাখি বিজ্ঞ আদালত ছগিরের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিবে।
উল্লেখ্য ঊর্মির খুনিদের দৃস্টান্ত মূলক শাস্তির দাবিতে মঠবাড়িয়ার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন এবং জাতীয় পর্যায়ে কর্মসূচি পালন করেছেন। তারা চিহ্নিত খুনি ছগির আকনের সর্বচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড দাবী করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন