Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

শুরুর আগেই বন্ধ হয়ে গেছে খুলনা-মংলা রেলপথ নির্মাণ

প্রকাশের সময় : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

এ টি এম রফিক, খুলনা থেকে : একনেকে অনুমোদনের ৬ বছর পর নির্মাণকাজ শুরু না করেই বন্ধ হয়ে গেল খুলনা-মংলা রেলপথ প্রকল্প। কাজ শুরুর আগেই প্রকল্প ব্যয় তিন গুণ বৃদ্ধি করায় দাতা সংস্থার আপত্তিতে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে আবারো আশাভঙ্গ হল খুলনা-বাগেরহাট তথা দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের।
রেলওয়ের তথ্যমতে, এলওসি’র আওতায় খুলনা-মংলা রেলপথ নির্মাণে ঠিকাদারদের সাথে চুক্তি হয় গত বছরের অক্টোবরে। এ প্রকল্পের রূপসা রেল সেতু নির্মাণের চুক্তি হয় আগস্টে। অনুমোদনের জন্য পাঠানো হলেও প্রকল্পের দুইটি প্যাকেজের ঠিকাদার নিয়োগ ও প্রস্তাব আটকে আছে ভারতের এক্সিম ব্যাংকে। দু’টি প্যাকেজের জন্য যথাক্রমে নভেম্বর ও সেপ্টেম্বরে ব্যাখ্যা চায় ব্যাংকটি।
চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে গত ১০ ডিসেম্বর ভারতের এক্সিম ব্যাংকে জবাব পাঠায় রেলওয়ে। তবে তাতে সন্তুষ্ট হতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। দ্বিতীয় দফায় ঠিকাদার নিয়োগের প্যাকেজ দু’টির বিভিন্ন ডকুমেন্ট চেয়ে পাঠিয়েছে এক্সিম ব্যাংক। গত জানুয়ারিতে এ সংক্রান্ত চিঠি রেলওয়েতে এসে পৌঁছায়। শিগগিরই এর ব্যাখ্যা পাঠানো হবে।
প্রসঙ্গত প্রাথমিকভাবে খুলনা-মংলা রেলপথ নির্মাণে ব্যয় ধরা হয় এক হাজার ৭২১ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। তবে গত বছর মে মাসে প্রকল্পটির ব্যয় বাড়িয়ে তিন হাজার ৮৩৭ কোটি ৪২ লাখ টাকা করা হয়। কাজ শুরুর আগেই প্রকল্পের ব্যয় বেড়েছে দুই হাজার ১১৬ কোটি টাকা বা ১২৩ শতাংশ। পাশাপাশি বাস্তবায়ন মেয়াদ বাড়িয়ে ২০১৮ সালের শেষ নাগাদ করা হয়েছে।
প্রকল্পটির আওতায় রূপসা রেল সেতু নির্মাণে ভারতের লারসন এন্ড টাবো লিঃ এবং মূল রেলপথ নির্মাণে ইর্ককন ইন্টারন্যাশলনের সঙ্গে চুক্তি করা হয়। চুক্তিমূল্য যথাক্রমে এক হাজার ৭৬ কোটি ৪৫ লাখ ও এক হাজার ১৪৯ কোটি ৯৯ লাখ টাকা।
রেলওয়ের তথ্যমতে, প্রকল্প ব্যয় বাড়ায় খুলনা-মংলা রেলপথ নির্মাণে ভারতের ঋণের পরিমাণও বেড়ে গেছে। প্রাথমিকভাবে প্রকল্পটিতে ভারতের এক হাজার ২০২ কোটি ৩১ লাখ টাকা দেয়ার কথা ছিল। এখন তা বাড়িয়ে ২ হাজার ৩৯৩ কোটি ৭২ লাখ টাকা করা হয়েছে। গত জানুয়ারিতে তা অনুমোদনের জন্য ভারতের হাইকমিশনে পাঠানো হয়। বিষয়টি নিয়ে কয়েক দফা আলোচনা হলেও এখন সে প্রস্তাব অনুমোদন দেয়নি ভারত।
যদিও এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি খুলনা-মংলা রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের পরিচালক আবদুল হাই। তিনি জানান, প্রকল্প ব্যয় বেড়েছে। জমি অধিগ্রহণও শেষ করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, ২০১০ সালের ২১ ডিসেম্বর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ৮৫ কিলোমিটার দীর্ঘ খুলনা-মংলা রেলপথ প্রকল্প অনুমোদন পায়। রেলপথে ৮টি স্টেশন থাকবে। এজন্য রূপসা সেতুতে ৭১৬ মিটার দৈর্ঘ্যরে একটি রেল সেতু নির্মাণ করা হবে। ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর প্রকল্পের কাজ শেষ করার কথা ছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শুরুর আগেই বন্ধ হয়ে গেছে খুলনা-মংলা রেলপথ নির্মাণ
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ