Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ১২ সফর ১৪৪২ হিজরী

লিভারপুলের রোমাঞ্চকর উদযাপন

ম্যানইউকে রুখে দিয়ে টিকে গেল ওয়েস্ট হ্যাম

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ জুলাই, ২০২০, ১২:০২ এএম

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের অপেক্ষা বাড়ল চেলসির
দীর্ঘ তিন দশক পর ঘরে ফিরেছে শিরোপা। এমন উপলক্ষ্য উদযাপনের কমতি থাকবে কেন? নিষেধ করা সত্বেও করোনাভাইরাসকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে অ্যানফিল্ডের আশেপাশে তখন ছোট-খাটো জনসমূদ্র। আতশবাজির ফোয়ারা ছুটিয়ে যখন শুরু হয় উদযাপন তখনও ম্যাচ শুরুর বাঁশিও বাজেনি। চ্যাম্পিয়ন লেখা অভিনন্দন বার্তা লেখা ব্যানার নিয়ে আকাশে উড়ল বিমানও। এমন দিনে ফুটবলারাও নিরাশ করেনি, রোমাঞ্চকর এক ম্যাচে চেলসিকে গুড়িয়েই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা উদযাপন করেছে লিভারপুল। গতপরশু রাতে ঘরের মাঠে ইয়ুর্গেন ক্লপের দলের জয়টি ৫-৩ গোলের।
রেকর্ড সাত ম্যাচ হাতে রেখে লিগ শিরোপা অনেক আগে নিশ্চিত হলেও ঢাউস আকৃতির ট্রফিটি এতদিন বুঝে পায়নি অলরেডরা। দেরীতে হলেও এদিন দলটির কিংবদন্তি কেনি ডালগ্লিসর হাত থেকেই শিরোপা বুঝে নেন উত্তরসূরিরা। তার অধীনেই সবশেষে ১৯৮৯-৯০ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। লিভারপুলের খেলোয়াড়রা ট্রফি উঁচিয়ে ধরতেই আতশবাজির রঙে লাল হয়ে ওঠে আকাশ।
লিভারপুলের হয়ে ২৩তম মিনিটে ২০ গজ দূর থেকে জোরালো শটে প্রথমে লক্ষ্যভেদ করেন নাবি কেইটা, ৩৮তম মিনিটে বাঁকানো ফ্রি-কিকে জাল খুঁজে নেন ট্রেন্ট আলেকজান্ডার-আরনল্ড। ৪৩তম মিনিটে ডি-বক্সের ভেতরে মোহামেদ সালাহর সহায়তায় দারুণ ভলিতে স্কোরশিটে নাম লেখান জর্জিনিয়ো ভাইনালডাম। যোগ করা সময়ে চেলসির হয়ে ব্যবধান কমান অলিভিয়ের জিরু। উইলিয়ানের শট গোলরক্ষক অ্যালিসন ফিরিয়ে দেওয়ার পর ফিরতি প্রচেষ্টায় গোলপোস্টের খুব কাছ থেকে নিশানা ভেদ করেন তিনি।
বিরতির পর ম্যাচের ৫৫তম মিনিটে স্কোরলাইন ৪-১ করেন রবার্তো ফিরমিনো। ডানপ্রান্ত থেকে আলেকজান্ডার-আরনল্ডের ক্রসে মাথা ছুঁইয়ে এবারের লিগে অ্যানফিল্ডে নিজের প্রথম গোলটি করেন তিনি। ম্যাচে নাটকীয়তার শুরু এরপরই। বড় জয়ের পথে এগোতে থাকা লিভারপুলের জালে ১২ মিনিটের ব্যবধানে দুবার বল জড়ায় অতিথিরা। ৬১তম মিনিটে বদলি ক্রিস্টিয়ান পুলিসিচের ক্রসে সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেননি আরেক বদলি ট্যামি আব্রাহাম। ঝাঁপিয়ে পড়েও পরাস্ত হন অ্যালিসন। ৭৩তম মিনিটে পুলিসিচ নিজেই লক্ষ্যভেদ করলে উত্তেজনা ছড়ায় ম্যাচে। ক্যালাম হাডসন-ওডোইয়ের ক্রস বুক দিয়ে নামিয়ে দুটি ছোঁয়ায় নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার পর মাপা শটে গোল করেন তিনি। ৮৪তম মিনিটে দলের পক্ষে পঞ্চম গোলটি করে লিভারপুলের জয় নিশ্চিত করেন বদলি অ্যালেক্স অক্সলেড-চেম্বারলেইন। পাল্টা-আক্রমণে অ্যান্ড্রু রবার্টসনের ক্রসে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন তিনি।
রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতে দারুণ এক রেকর্ডও গড়ল লিভারপুল। লিগের এক মৌসুমে নিজেদের সবচেয়ে বেশি ৩১ জয়। সেই সঙ্গে লিগে চেলসির বিপক্ষে আধিপত্য ধরে রাখল ‘অলরেড’ খ্যাত দলটি। লিভারপুলের বিপক্ষে আগের দশ লিগ ম্যাচে মাত্র একবারই জয়ের স্বাদ পেয়েছিল চেলসি; ২০১৮ সালের মে মাসে, স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে। বাকি নয় ম্যাচের চারটি জিতেছিল লিভারপুল; পাঁচটি হয়েছিল ড্র।
এই জয়ে ৩৭ ম্যাচে লিভারপুলের পয়েন্ট বেড়ে হলো ৯৬। চারে থাকা চেলসির অর্জন ৬৩ পয়েন্ট। খালি হাতে মাঠ ছাড়ায় উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঠাঁই পাওয়ার অপেক্ষা বাড়ল চেলসির। ৬২ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে থাকা লেস্টার সিটির বিপক্ষে আসরে নিজেদের সবশেষ ম্যাচে ড্র করলেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ফিরবে দলটি।
রাতের আরেক ম্যাচে ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডের সঙ্গে ১-১ ড্র করা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৩৭ ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে। ঘরের মাঠ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে সফল স্পট কিকে ওয়েস্ট হ্যামকে এগিয়ে নেন মিশেল আন্তোনিও। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৫১তম মিনিটে স্বাগতিকদের ম্যাচে ফেরান ম্যাসন গ্রিনউড। ওলে গুনার সুলশারের দলকে রুখে দিয়ে আগামী মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগে থাকাও নিশ্চিত করেছে লন্ডনের দলটি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লিভারপুল

১৩ জানুয়ারি, ২০২০
১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন