Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

অমর একুশে বইমেলা : খোলামেলা পরিসরে স্বস্তিতে ক্রেতা-প্রকাশকরা

প্রকাশের সময় : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইখতিয়ার উদ্দির সাগর : ছিমছাম ও পরিপাটি পরিবেশ। অন্যবারের চেয়ে এবার বাইমেলার পরিসরও বড়। ফলে স্টলগুলো আর গা ঘেঁষাঘেঁষি করে নেই। প্রতিটি স্টলের সামনে আছে ফাঁকা জায়গা। আছে প্রশস্ত আঙিনা। যেন বাড়ির সামনে বড় উঠান। মেলার পরিসর বাড়ানোর ফলে ক্রেতা-পাঠকরা ঘুরতে পারছে স্বাচ্ছন্দ্যে, বই নেড়ে চেড়ে দেখতে পারছে আনন্দের সঙ্গে।
গতকাল তৃতীয় দিনেই বেশ জমে উঠেছে বইমেলা। দলবেঁধে দর্শনার্থী ঢুকছে মেলা প্রাঙ্গণে। অনেকেই মেলায় এসেছিল পরিবার-পরিজন নিয়ে। তাদের কেউবা বই কিনেছে, আবার কেউ সংগ্রহ করে নিচ্ছে বুকলিস্ট। এ দিনও অনেকেই বিভিন্ন প্রকাশনীতে খুঁজে ফিরেছে প্রিয় লেখকের নতুন বই।
গতকাল বিকালে সোহ্রাওয়ার্দী উদ্যানে ঢুকতেই দেখা গেল লাল ইট বিছিয়ে তৈরি করা হয়েছে রাস্তা। নতুন বালু ফেলা সেই রাস্তায় দর্শনার্থীদের আনাগোনায় ধুলো উড়ছে প্রাঙ্গণজুড়ে। বিভিন্ন স্টলের সঙ্গে ওই রাস্তার সংযোগ সড়ক থাকার কথা থাকলেও তা এখনো করে উঠতে পারেনি বাংলা একাডেমি কর্তৃপক্ষ। আলোকসজ্জার জন্য অনেক ল্যাম্পপোস্ট তৈরি করা হলেও সেখানে লাইটিং চোখে পড়েনি খুব একটা। এসব অসংগতি ছাড়া এবার মেলার আয়োজন চমৎকারই বলা যায়।
মুক্তচিন্তা প্রকাশনীর প্রকাশক শিহাব বাহাদুর বলেন, এবারের মেলার শুরু থেকেই আমরা ইতিবাচক বিষয় লক্ষ করছি। সেটা হচ্ছে, মানুষ এখনই মেলায় আসতে শুরু করেছে। তবে মেলা শুরুর পর সবাই প্রথম শুক্রবারটির জন্য অপেক্ষা করে। আমরাও অপেক্ষা করছি। আশা করছি, শুক্রবার থেকেই মেলা জমে যাবে।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের শিক্ষার্থী হাসান হাফিজ টুটুল বলেন, গ্রন্থমেলার শুরুটা আসলেই ভালো। যত দিন যাবে, আরো ভালো হবে মেলা। বেশ গোছানো এবারের বইমেলা প্রাঙ্গণ। রাজনৈতিক অরাজকতাও নেই।
এ বছর মেলায় এসেছে লেখক শারমিন জাহানের কবিতার বই ‘এক মুঠো ভালোবাসার জন্য’। এই বইটি পাওয়া যাচ্ছে অমর একুশে বইমেলার অনন্যা প্রকাশনীর স্টলে। বইটিতে যে বিষয় তুলে ধরা হয়েছে সে সম্পর্কে শারমিন জাহান বলেছেন, সত্য, সুন্দর আর শুভ্রতায় মোড়ানো ভালোবাসায় উজ্জীবীত হয়ে আমরা কত না অসাধ্য সাধন করতে পারি। দেশের প্রতি ভালোবাসায় উদ্বুদ্ধ হয়ে হাসতে হাসতে জীবন দিয়ে গেছেন আমাদের লাখো শহীদ। প্রেয়সীর প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসায় কেউ কেউ হাতের মুঠোয় প্রাণ নিয়ে দুরন্ত ষাঁড়ের চোখে বেঁধেছেন লাল কাপড়।
তিনি আরো জানিয়েছেন, আমরা ষোল কোটি মানুষ ভালোবেসে ছবির মতো দেশটাকে উন্নত বাংলাদেশে রূপায়ন করতে পারি। প্রকৃত অর্থে ভালোবাসা ছাড়া ইতিবাচক কোনো কিছুই সম্ভব নয়। আজন্ম ভালোবাসার কাঙ্গাল মানুষের প্রেম, প্রকৃতি আর সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে রচিত লেখকের পঞ্চম বই ‘এক মুঠো ভালোবাসার জন্য’।
আন্তর্জাতিক কবিতা উৎসব : অমর একুশে এবং বাংলা একাডেমির হীরক জয়ন্তী উদ্যাপন উপলক্ষে গতকাল বাংলা একাডেমিতে স্লোাভাকিয়া, মরক্কো, সুইডেন, তাইওয়ান, যুক্তরাজ্য, ভারত ও বাংলাদেশের কবিদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয় দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক কবিতা উৎসব।
সকাল ১০টায় উৎসবের প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয় একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্য-বিশারদ মিলনায়তনে। এতে বাংলা কবিতার অতীত ও সাম্প্রতিক ধারা বিষয়ে প্রবন্ধ পাঠ করেন বাংলাদেশের কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা। জীবনানন্দ দাশের কবিতা অনুবাদের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন ব্রিটিশ কবি ও জীবনানন্দ গবেষক জো উইন্টার। এ অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক।
বিকাল ৪টায় মেলার মূল মঞ্চে কবিতা উৎসবের দ্বিতীয় অধিবেশনে কবিতা পাঠে অংশ নেন সুইডেনের কবি র্লাস হেগার, লত্তে সেদেরহোলম, ভারতের কবি রাসবিহারী দত্ত ও আনসার-উল হক, বাংলাদেশের কবি রুবী রহমান, কবি আলতাফ হোসেন। এই অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি সৈয়দ শামসুল হক। সভাপতিত্ব করেন কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী। অধিবেশন সঞ্চালনা করেন কবি মুহাম্মদ সামাদ।
আজকের অনুষ্ঠান : বাংলা একাডেমির হীরক-জয়ন্তী : গবেষণা কার্যক্রম, অতীত থেকে বর্তমান শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান হবে। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন প্রফেসর আবুল আহসান চৌধুরী। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন প্রফেসর মনসুর মুসা, ড. ভূঁইয়া ইকবাল, ড. আমিনুর রহমান সুলতান। সভাপতিত্ব করবেন ড. মনিরুজ্জামান। সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অমর একুশে বইমেলা : খোলামেলা পরিসরে স্বস্তিতে ক্রেতা-প্রকাশকরা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ