Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী

ইন্দুরকানীতে কিশোরের চোখে মরিচ গুড়া দিয়ে নির্যাতন

ইন্দুরকানী (পিরোজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২৭ জুলাই, ২০২০, ১২:০১ এএম

ইন্দুরকানীতে ইয়াবা চুরির অভিযোগে কিশোরকে চোখে মরিচ গুড়া দিয়ে নির্যাতন করা হয়েছে। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল পশ্চিম বালিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
গতকাল সরেজমিনে গেলে এলাকাবাসী জানায়, পশ্চিম বালিপাড়া গ্রামের মনোয়ার শেখের ছেলে মাসুম শেখ (১৪)কে টাকা চুরির মিথ্যা অপবাদে একই গ্রামের মহিলা ইউপি সদস্য মোসা. লাকি বেগম ও তার স্বামী আনোয়ার হোসেন ফয়সালের দলবল নিয়ে রাতভর কিশোরকে নির্যাতন করেন। ঘটনাটি জানাজানি হলে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় ওদের কাছ থেকে ছেলেকে উদ্ধার করেন তার মা।
নির্যাতনের শিকার মাসুম শেখ বলেন, আমি অনেকদিন ধরে লাকি মেম্বারের বাড়িতে দিনমজুর হিসেবে কাজ করি। শুক্রবার ফয়সাল আমাকে লাকি মেম্বারের বাড়ি থেকে ৩৮০ পিস ইয়াবা নিয়ে আসতে বলে। আমি ইয়াবা ফয়সালের কাছে এনে দিলে। বিক্রি করার পরে বাকিগুলো আমাকে আনোয়ারের দোকানের পেছনে রাখতে বললে আমি রেখে আসি। পরে সেখানে ওই ইয়াবা না পাওয়ার কারণে আমাকে তার বাড়িতে নিয়ে ৫০ হাজার টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে আমার চোখে মরিচ গুড়া দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আঘাত করেন।

অভিযুক্ত লাকি মেম্বার বলেন, একটি জমি রেজিস্ট্রি বাবদ ৫০ হাজার টাকা চুরি করায় জিজ্ঞাসাবাদ করা জন্য মাসুমকে বাড়িতে ডেকে আনা হয় এবং টাকা উদ্ধারের জন্য বিভিন্ন ধরণের ভয়ভীতি দেখানো হয়।
বালিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন বয়াতি বলেন, ফয়সালসহ তারা দীর্ঘদিন ধরে মাদক ও জুয়ার ব্যবসায় জড়িত। মাসুমকে তারা ৩৮০ পিস ইয়াবা দোকানের পেছনে রাখতে দিয়েছে। সেই ইয়াবা হারিয়ে যাওয়ায় চুরি অপবাদ দিয়ে তার ওপর নির্যাতন করা হয়েছে।

ইন্দুরকানী থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান জানান, বালিপাড়ায় কিশোর নির্যাতনের বিষয়টি শুনেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সহকারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন