Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯ আশ্বিন ১৪২৭, ০৬ সফর ১৪৪২ হিজরী

ঈদুল আজহায় গণপরিবহন চলবে

সমন্বয়ে গঠিত নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে, আজ থেকে কাজ শুরু

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ জুলাই, ২০২০, ১২:০১ এএম

আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহায় গণপরিবহন চলবে। ঈদের তিনদিন আগে থেকে মহাসড়কে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। ভ্রমণের আগে ও পরে পরিবহনসমূহ জীবানুমুক্ত করার পাশাপাশি বাসে উঠার ক্ষেত্রে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে হবে। যাত্রী, গাড়ি চালক, চালকের সহকারীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরিধান করার পাশাপাশি পরিবহনগুলো জ্বালানী সংগ্রহ ও জরুরি প্রয়োজন ছাড়া পথিমধ্যে কোনো যাত্রা বিরতি করতে পারবে না বলে সভায় জানানো হয়।

এদিকে মন্ত্রণালয় থেকে গত ২২ জুলাই একটি আদেশ জারি করা হয়েছে এতে বলা হয়, আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে যান বাহন চলাচল নিরবচ্ছিন্ন রাখার নিমিত্ত সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ কর্তৃক বিআরটিএ সড়ক জনপথ অধিদপ্তর,বিআরটিসি এর কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সমন্বয়ে একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষে খেলা হয়েছে। আজ সোমবার থেকে ৪ আগষ্ট পর্যন্ত কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের সার্বিক দায়িত্বে পালন করবেন ৫৪ কর্মকতা।

ঈদ-উল-আযহায় মানুষের ঈদযাত্রা নির্বিঘœ করতে সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের নিয়ে বিআরটিএ’র সদরদপ্তরে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ঈদ প্রস্তুতি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে জরুরি সার্ভিস, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য, পচনশীল দ্রব্য, জ্বালানী, ঔষধ, ত্রাণ, সংবাদপত্র ও রপ্তানীপণ্যবাহী যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন ও সর্বোচ্চ সচেতনতা প্রদর্শন না করলে ঈদযাত্রা অন্তিমযাত্রায় রূপ নিতে পারে বলে যাত্রীদের সতর্ক করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের

সভায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ঢাকা মহানগরীর প্রতিটি টার্মিনালে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসমূহ, মালিক-শ্রমিক, সিটি কর্পোরেশন, বিআরটিএসহ সংশ্লিষ্ট সকল অংশীজনদের নিয়ে গঠিত টাস্কফোর্স কার্যকর থাকবে। এর পাশাপাশি যে কোনো অভিযোগ পাওয়া গেলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণে সক্রিয় থাকবে বিআরটিএ’র মোবাইল কোর্ট।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী কাজী শাহ্রিয়ার হোসেন, ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান, বিআরটিসি’র চেয়াম্যান মো. এহছানে এলাহী, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন, পুলিশ হেডকোয়াটার্স, হাইওয়ে পুলিশ, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ, পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠন, বাংলাদেশ ট্রাক কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির প্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্ট অংশীজন উপস্থিত ছিলেন।

সভায় জানানো হয়, আসন্ন ঈদ-উল-আযহায় দূরপাল্লার বাস-মিনিবাসসমূহ অর্ধেক আসন খালি রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করবে। ঢাকা মহানগরীর বহির্গমন পয়েন্টসমূহ যানজটমুক্ত রাখতে নেয়া হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নগরীর প্রধান প্রধান টার্মিনালসমূহ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখবে। মন্ত্রী বলেন, দেশে মহাসড়ক গুলো যে কোনো সময়ের তুলনায় এখন ভাল অবস্থায় রয়েছে। অতিবৃষ্টিজনিত ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক মেরামতে ভ্রাম্যমান সড়ক মেরামত টিম সার্বক্ষণিক প্রস্তুত রাখার জন্য সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরকে এবং যাত্রীদের চাপ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক মোহনায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক বাস প্রস্তুত রাখার জন্য বিআরটিসি’কে মন্ত্রী নির্দেশনা দেয়া হয়।

তিনি বলেন, ঈদের তিনদিন আগে থেকে মহাসড়কে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে জরুরি সার্ভিস, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য, পচনশীল দ্রব্য, কোরবানীর পশু, জ্বালানী, ঔষধ, ত্রাণ, সংবাদপত্র ও রপ্তানীপণ্যবাহী যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে।

এদিকে মন্ত্রণালয় থেকে গত ২২ জুলাই একটি আদেশ জারি করা হয়েছে এতে বলা হয়, আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে যান বাহন চলাচল নিরবচ্ছিন্ন রাখার নিমিত্ত সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ কর্তৃক বিআরটিএ সড়ক জনপথ অধিদপ্তর,বিআরটিসি এর কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সমন্বয়ে একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষে খেলা হয়েছে নিমিত্ত সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. ইউছুব আলী মোল্লাকে ফোকাল পারসন হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঈদুল আজহা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ