Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

চলতি বছরেই আসছে মর্ডানা, ফাইজারের ভ্যাকসিন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০২০, ৪:৩৩ পিএম

করোনা সঙ্কটে ইতিমধ্যেই আশার আলো দেখিয়েছে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন। এবার দুই মার্কিন সংস্থা মর্ডানা ও ফাইজারও সুসংবাদ দিলো। তাদের দাবি, চলতি বছরের শেষেই তাদের তৈরি ভ্যাকসিন নিতে পারবেন সাধারণ মানুষ। সোমবার আলাদাভাবে দেয়া বিবৃতিতে দু’টি প্রতিষ্ঠানই এই তথ্য জানিয়েছে।

জানা গিয়েছে, অ্যাস্ট্রাজেনেকার মত মডার্না ফার্মা ও ফাইজারও পৌঁছে গিয়েছে করোনা ভ্যাকসিন তৈরির শেষ ধাপে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের উপর এই ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত পরীক্ষা শুরু হয়েছে। ন্যাশনাল ইনস্টিটিউটস অফ হেলথের সঙ্গে হাত মিলিয়ে মডার্না শুরু করেছে এই পরীক্ষা। আর ফাইজারকে সহযোগিতা করছে বায়োএনটেক। প্রথম পর্যায়ে সাফল্য পেতেই মডার্নার

শেযারের দাম ৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। ফাইজার ও তার সহযোগী বায়োএনটেকের শেয়ার মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে যথাক্রমে ১ দশমিক ৬ ও ৪ দশমিক ২ শতাশং।

ভ্যাকসিনগুলো তৈরি করা হয়েছে গবেষণাগারে কৃত্রিমভাবে তৈরি এমআরএনএ দিয়ে। এমআরএনএ হল একটি জেনেটিক কোড, যার নির্দেশে কোষগুলি প্রোটিন তৈরি করে। এই প্রোটিন করোনা জীবাণুর প্রোটিনের মত দেখতে, করোনা জীবাণুর বিরুদ্ধে শরীরে প্রতিরোধী ক্ষমতা তৈরি করছে তারা। মোট স্বেচ্ছাসেবীর একাংশের শরীরে এই ভ্যাকসিন সরাসরি প্রয়োগ করা হচ্ছে এবং বাকিদের শরীরে প্রয়োগ করা হচ্ছে নিষ্ক্রিয় একটি ওষুধ। দুটি ডোজ দেয়ার পর তারা দেখবেন, কাদের শরীরে কী পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিল।

মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা মর্ডানা গত মার্চ মাস থেকেই এই কাজে লিপ্ত রয়েছে। ১৬ ই মার্চ তারা দাবি করে যে তাদের করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কার করার কাজ শুরু হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে মোট ৪৫ জন স্বেচ্ছাসেবককে ‘ভ্যাকসিন’-এর ডবল ডোজ দেওয়া হয়। সংস্থাটি দাবি করছে, প্রথম পর্যায়ের সেই ট্রায়াল সফল হয়েছে। জানা গিয়েছে এই ভ্যাকসিন দেয়ার পর স্বেচ্ছাসেবকদের করোনা প্রতিরোধের ক্ষমতা বেড়েছে।

অপর মার্কিন সংস্থা ফাইজারও ‘ভ্যাকসিন’ তৈরির কাজে অনেকটাই এগিয়েছে। মার্কিন প্রশাসনের সঙ্গে তারা মোটা অংকের চুক্তিও করে ফেলেছে এই ভ্যাকসিন নিয়ে। ব্রাজিলেও জোরকদমে চলছে ভ্যাকসিন নিয়ে গবেষণা। সূত্র: টিওআই।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনা ভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন