Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৬ আগস্ট ২০২০, ০১ ভাদ্র ১৪২৭, ২৫ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আটবারে করোনামুক্ত হারিস রউফ!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩১ জুলাই, ২০২০, ১২:০২ এএম

এক মাস আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর বারবার পরীক্ষা করিয়েও সুখবর পাচ্ছিলেন না পাকিস্তানি পেসার হারিস রউফ। প্রথম ছয় পরীক্ষার পাঁচটাতেই পজিটিভ ফল এসেছিল তার। অবশেষে সপ্তম ও অষ্টম পরীক্ষায় টানা দুবার নেগেটিভ ফল পেয়েছেন হারিস। এতে ইংল্যান্ড সফররত পাকিস্তান দলে যোগ দেওয়ার বাধাও কেটে গেছে তার।
পাকিস্তানের ইংল্যান্ড সফরের তোড়জোড় শুরু হতেই কোভিড-১৯ পরীক্ষা করানো হয় ক্রিকেটারদের। প্রথম দফাতে আরো নয় ক্রিকেটারের সঙ্গে করোনা পজিটিভ হন হারিস। দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফায় পরীক্ষার পর বাকিরা করোনামুক্ত হয়ে গেলেও আটকে গিয়েছিলেন তিনি।
শারীরিক কোনো অসুস্থতা না থাকায় আবারও করোনা পরীক্ষা করানো হয় তার। তাতেও ফল পজিটিভ আসে। এভাবে নির্দিষ্ট বিরতিতে ছয়টি পরীক্ষা করিয়ে পাঁচটিতেই ফল পজিটিভ পান তিনি। কিন্তু নিয়ম অনুযায়ী, টানা দুটি পরীক্ষাতে ফল নেগেটিভ এলে তবেই ইংল্যান্ড ভ্রমণের জন্য যোগ্য বিবেচিত হবেন পাকিস্তানের কোনো ক্রিকেটার।
হারিসকে নিয়ে এমন অনিশ্চয়তা তৈরি হওয়ায় নির্বাচকরা মোহাম্মদ আমিরকে টি-টোয়েন্টি দলে ডেকে পাঠান। সন্তানের জন্মের তারিখের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হওয়ায় তিনি আগেই সফর থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন। কিন্তু তার স্ত্রী চলতি মাসের শুরুতে নির্ধারিত সময়ের আগে সন্তানের জন্ম দিলে খেলতে যেতে সম্মত হন আমির। ইংল্যান্ড পৌঁছে পাঁচ দিনের আইসোলেশন শেষে তিনি দলের সঙ্গে যোগও দিয়েছেন।
সবশেষ দুটি পরীক্ষায় টানা নেগেটিভ হয়ে হারিসও এরই মধ্যে ইংল্যান্ডর বিপক্ষে খেলার জন্য যোগ্য বিবেচিত হয়ে গেছেন। বাঁহাতি আমিরকে অন্তর্ভুক্ত করলেও তাকে পরিকল্পনা থেকে আর বাদ দিচ্ছে না পাকিস্তান ম্যানেজমেন্ট। মূলত সাদা বলের ক্রিকেটের জন্য গতিময় হারিসকে দলে নিয়েছে পাকিস্তান। তবে এই ডানহাতি পেসার টেস্ট খেলতেও মুখিয়ে আছেন। টেস্টের জন্য ২০ জনের দলে যদিও রাখা হয়নি তাকে।
আগামী ২৮ আগাস্ট থেকে ম্যানচেস্টারে শুরু হতে যাওয়া তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে পুরোপুরি পাওয়া যাবে বিগ ব্যাশে নাম কুড়ানো এই ফাস্ট বোলার হারিসকে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হারিস-রউফ
আরও পড়ুন