Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ আশ্বিন ১৪২৭, ০১ সফর ১৪৪২ হিজরী

প্রতিবেশীর সাথে সদ্ব্যবহারের গুরুত্ব

মাওলানা আব্দুর রহমান | প্রকাশের সময় : ৫ আগস্ট, ২০২০, ১২:০০ এএম

আমরা আজ যে সমাজ ব্যবস্থায় অভ্যস্ত তাতে আমাদের অনুভ‚তিগুলোও দিন দিন যান্ত্রিক হয়ে যাচ্ছে। মানুষকে অবিশ্বাস আর সন্দেহের দৃষ্টিতে দেখাই যেন আজকালকার যুগের সবার চিন্তাধারার একটি অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
ইট পাথরের দালানে থাকা আমরাও যেন অনুভ‚তিহীন কলের পুতুল। পাশের দরজার প্রতিবেশীর বিপদে-আপদে, তাদের সুখ-দুঃখের সঙ্গী হওয়া তো আজকাল দূরের কথা, কেউ কাউকে চিনিই না অনেক সময়। এরপরও কি আমরা দাবি করতে পারি আমরা সত্যিকারের মুসলমান? আসুন দেখি প্রতিবেশীদের অধিকার সম্পর্কে আল্লাহ তা’য়ালা ও তঁরা রাসুল আমাদেরকে কি বলেছেন।

আল্লাহ তাআলা বলেন, তোমরা আল্লাহর উপাসনা করো ও কোনো কিছুকে তাঁর অংশী করো না, এবং পিতা-মাতা, আত্মীয়-স্বজন, পিতৃহীন, অভাবগ্রস্ত, আত্মীয় ও অনাত্মীয় প্রতিবেশী, সঙ্গী-সাথী, পথচারী এবং তোমাদের অধিকারভুক্ত দাস-দাসীদের প্রতি সদ্ব্যবহার করো। ( সূরা নিসা: ৩৬)

উম্মাহাতুল মুমিনীন আয়েশা রা. বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেন, ‘জিব্রাইল আমাকে সব সময় প্রতিবেশী সম্পর্কে অসিয়ত করে থাকেন। এমনকি আমার মনে হলো যে, তিনি প্রতিবেশীকে ওয়ারেস বানিয়ে দেবেন।’ (বুখারী : ৬০১৪)। আবু যার রা. বলেন, একদা রাসূলুল্লাহ (সা:) বললেন, ‘হে আবু যার, যখন তুমি ঝোল (ওয়ালা তরকারি) রান্না করবে, তখন তাতে পানির পরিমাণ বেশি করো। অতঃপর তোমার প্রতিবেশীর বাড়িতে রীতিমতো পৌঁছে দাও। (মুসলিম : ২৬২৫)।

হযরত আবু হুরাইরাহ রা. বলেন, নবী (সা:) বলেছেন, ‘আল্লাহর কসম, সে ব্যক্তি মু’মিন নয়। আল্লাহর কসম, সে ব্যক্তি মু’মিন নয়। আল্লাহর কসম, সে ব্যক্তি মু’মিন নয়। জিজ্ঞেস করা হলো, ‘কোন ব্যক্তি? হে আল্লাহর রসূল, তিনি বললেন, যে লোকের প্রতিবেশী তার অনিষ্ট থেকে নিরাপদ থাকে না।’ (বুখারী : ৬০১৬)।

মুসলিমের এক বর্ণনায় আছে, ওই ব্যক্তি জান্নাতে প্রবেশ করবে না, যার অনিষ্ট থেকে তার প্রতিবেশী নিরাপদে থাকে না। হযরত আবু হুরাইরাহ রা. থেকেই বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেন, হে মুসলিম মহিলাগণ! কোনো প্রতিবেশিনী যেন তার অপর প্রতিবেশিনীর উপঢৌকনকে তুচ্ছ মনে না করে; যদিও তা ছাগলের পায়ের ক্ষুর হোক না কেন। (বুখারী : ২৫৬৬)।

হযরত আবু হুরায়রা রা. থেকে আরও বর্ণিত হয়েছে, রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেন, ‘যে ব্যাক্তি আল্লাহ ও শেষ দিনের প্রতি বিশ্বাস রাখে, সে যেন তার মেহেমানের খাতির করে। এবং যে ব্যাক্তি আল্লাহ ও পরকালের প্রতি বিশ্বাস রাখে, সে যেন ভালো কথা বলে, নচেৎ চুপ থাকে।’ (বুখারী : ৬০১৮)।

হযরত আয়েশা রা. কর্তৃক বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি বললাম, ‘হে আল্লাহর রাসূল, আমার দু’জন প্রতিবেশী আছে। (যদি দু’জনকেই দেয়া সম্ভব না হয় তাহলে) আমি তাঁদের মধ্যে কার নিকট হাদিয়া (উপঢৌকন) পাঠাব?’ তিনি বললেন, যার দরজা তোমার বেশি নিকটবর্তী, তার কাছে (পাঠাও)। (বুখারী : ৬০২০,)।

উপরোক্ত কোরআন ও হাদীসের বর্ণনায় বোঝা যায় যে, প্রতিবেশীর সাথে উত্তম আচরণ করা, তাদের খোঁজ খবর রাখা উত্তম মুসলমানের বৈশিষ্ট্য। আমরা প্রতিবেশীর হক পরিপূর্ণভাবে আদায় করতে সচেষ্ট থাকব।



 

Show all comments
  • জুয়েল ৫ আগস্ট, ২০২০, ১:০৪ এএম says : 0
    সমাজবদ্ধ পৃথিবীতে মানুষের জীবনযাত্রায় প্রতিবেশীর গুরুত্ব অপরিসীম। দুঃখ কষ্ট আনন্দ বেদনায় এ প্রতিবেশীই মানুষের নিত্যসঙ্গী। গ্রামীণ জীবনে প্রতিবেশীর প্রতি আমাদের ভালোবাসা সহমর্মিতা তুলনামূলক বজায় থাকলেও ইট-পাথরের শহরে তা অনেকটাই হতাশাজনক। ইসলাম প্রতিবেশীর হক ও অধিকারকে পিতামাতা ও আত্মীয়-স্বজনের অধিকারের পাশেই স্থান দিয়েছে। নির্দেশ দিয়েছে তাদের সঙ্গে সদ্ব্যবহারের।
    Total Reply(0) Reply
  • আবদুল্লাহ আল ফুআদ ৫ আগস্ট, ২০২০, ১:০৫ এএম says : 0
    হাদিসে প্রতিবেশীর প্রতি সম্মান ও সদাচরণকে ঈমানের অনুষঙ্গ সাব্যস্ত করা হয়েছে। হজরত আবু শুরাইহ (রা.) বলেন, ‘আমার দুই কান শ্রবণ করেছে, আমার দুই চক্ষু প্রত্যক্ষ করেছে যখন রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি আল্লাহর প্রতি ঈমান রাখে এবং আখেরাতে বিশ্বাস রাখে সে যেন স্বীয় প্রতিবেশীকে সম্মান করে।’ (বুখারি, হাদিস : ৬০১৮)
    Total Reply(0) Reply
  • আমিনুল ইসলাম ৫ আগস্ট, ২০২০, ১:০৬ এএম says : 0
    বিশ্বব্যাপী চলমান এ সংকটপূর্ণ সময়ে আমাদের সবার উচিত প্রতিবেশীদের প্রতি ভালোবাসা, সহমর্মিতা রাখা। সর্বোপরি তাদের অভাব-অনটনে সাহায্য-সহায়তার হাতকে প্রসারিত করা। আল্লাহ আমাদের সবাইকে তওফিক দান করুন।
    Total Reply(0) Reply
  • ফাহাদ ৫ আগস্ট, ২০২০, ১:০৬ এএম says : 0
    আল্লাহতায়ালা আমাদেরকে এই শিক্ষাই দিচ্ছেন, আমরা যেন নিজেদের ভাই, আত্মীয়-স্বজন, আপনজন এবং প্রতিবেশীদের সাথে সদ্ব্যবহার করি, বিপদে-আপদে সহযোগিতা করি, প্রয়োজন হলে সাহায্য করি, যতদূর সম্ভব তাদের কল্যাণ সাধন করি এবং এমন সব লোক যাদেরকে আমি জানি না তাদের সাথেও উত্তম ব্যবহার করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • সোলায়মান ৫ আগস্ট, ২০২০, ১:০৭ এএম says : 0
    আসুন, আমরা সবাই সবার প্রতিবেশীর খোঁজখবর নেই আর তাদের সুখে-দুঃখে পাশে গিয়ে দাঁড়াই।
    Total Reply(0) Reply
  • মির্জা মুহাম্মদ নূরুন্নবী নূর ৫ আগস্ট, ২০২০, ১:০৮ এএম says : 0
    ইসলামের শিক্ষা হচ্ছে আল্লাহর বান্দাদের কল্যাণ সাধনের উদ্দেশ্যে সকল প্রকারের প্রতিবেশীর সাথে সৌহার্দ্যপুর্ণ এবং ভ্রাতৃত্বসুলভ আচরণ করা। যা ঈমানের দাবি।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসলাম

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ