Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ১২ সফর ১৪৪২ হিজরী

রাম মন্দির নির্মাণ মোদীর পতনই তরান্বিত করছে

বিভিন্ন ইসলামী দলের নেতৃবৃন্দ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০২০, ১২:০২ এএম

ভারতের অযোধ্যায় ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদের জায়গায় রাম মন্দির নির্মাণ শুরু করে মোদী নিজের পতনকেই তরান্বিত করছে। রাম মন্দির নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপন হিন্দুত্ববাদী বিজিপি সরকারের এক ঐতিহাসিক ভুল। একদিন এ ভুলের খেসারত দিতে হবে ভারতকে। বাবরি মসজিদের স্থানে গায়ের জোরে রাম মন্দির স্থাপনের উদ্যোগ নিয়ে মুসলিম উম্মাহর হৃদয়ে কুঠারাআঘাত করা হয়েছে। অযোধ্যায় রাম মন্দির একসময় আয়া সোফিয়ায় রূপ নিবে ইনশাআল্লাহ। অযোধ্যায় ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদের স্থানে রাম মন্দির নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে বিভিন্ন ইসলামী দলের পৃথক পৃথক বিবৃতি ও বিক্ষোভ সমাবেসে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।
ইসলামী আন্দোলন বাংলদেশ: ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেছেন, মোদী সরকার গায়ের জোরে মসজিদের জায়গা মন্দির নির্মাণ করে সংবিধান লঙ্ঘন করেছে। ইসলাম বিদ্বেষী মোদী মুসলমানদের মসজিদস্থলে রাম মন্দির নির্মাণ করে নিজের পতনকে ত্বরান্বিত করেছে। ভারত ভেঙ্গে টুকরো টুকরো হয়ে যাবে। অযোধ্যায় কথিত রাম মন্দির একসময় আয়া সোফিয়ায় রূপ নিবে ইনশাআল্লাহ।
গতকাল বুধবার বিকেলে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব চত্ত¡রে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদস্থলে রাম মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ পূর্ব সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সহকারি মহাসচিব আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম, মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, কেএম আতিকুর রহমান। বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে একটি বিশাল মিছিল জাতীয় ক্লাব, কদম ফোয়ারা হয়ে পল্টন মোড় এসে সমাপ্ত হয়।
বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি: শত কোটি মুসলমানদের কলিজায় আঘাত করে উগ্রবাদী সা¤প্রদায়িক হিন্দুত্ববাদের দোসর নরেন্দ্র মোদী ঐতিহাসিক পবিত্র বাবরি মসজিদকে শহীদ করে মুলতঃ নিজেদেরই লজ্জা জনক পতনকে ত্বরান্বিত করছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রাচীনতম ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির আমীর প্রিন্সিপাল আল্লামা সারওয়ার কামাল আজিজী ও মহাসচিব মাওলানা মুসা বিন ইযহার।
এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় আরও বলেন, হাজার বছরের সা¤প্রদায়িক স¤প্রীতি বিনষ্ট করে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে গায়ের জোরে বাবরি মসজিদকে শহীদ করে বিশ্বময় যে ঘৃণা ও ক্ষোভের আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে মোদী গং, তার বহ্নি শিখায় ভারত পুড়ে ভস্মীভূত হবে শিগগিরই ইনশাআল্লাহ। নেতৃদ্বয় মুসলমানদেরকে ধৈর্য ধরে শান্তিপূর্ণ স¤প্রীতি বজায় রেখে কড়া প্রতিবাদ অব্যাহত রাখার আহবান জানান।
খেলাফত মজলিস: খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ¬¬ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, বাবরি মসজিদের জায়গায় রাম মন্দির নির্মাণ ভারতের হিন্দুত্ববাদী বিজিপি সরকারের এক ঐতিহাসিক ভুল। একদিন এ ভুলের খেসারত দিতে হবে ভারতকে।
খেলাফত আন্দোলন: বাবরি মসজিদের স্থানে অবৈধভাবে মন্দির নির্মাণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাজ জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীর মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর। তিনি বলেছেন, মসজিদ ভেঙ্গে মসজিদের জায়গায় মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে মুসলমানদের হৃদয়ে কুঠারআঘাত করেছে। মুসলিম বিশ্ব কখনো মোদীর এ ঘৃনিত কাজকে বরদাশত করবে না। তিনি বাবরি মসজিদ রক্ষায় বিশ্বমুসলিমকে ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা রাখার আহবান জানান। গতকাল বিকেলে কামরাঙ্গীরচরে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের এক বৈঠকে সভাপতির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। এতে আরো বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী, নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মুফতি সুলতান মহিউদ্দীন।
জনসেবা আন্দোলন বাংলাদেশ : জনসেবা আন্দোলনের চেয়ারম্যান মুফতি ফখরুল ইসলাম অযোধ্যায় বাবরি মসজিদের স্থানে রাম মন্দির নির্মাণের উদ্যোগের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন. বাবরি মসজিদ ভারতে মুসলমানদের ঐতিহ্য ধরে রেখেছে। তিনি বলেন, মোদী সরকারের উচিত এই হঠকারী সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে আসা না হয় পৃথিবীর সকল মুসলমান ঐক্যবদ্ধ হয়ে বাবরি মসজিদ রক্ষার জন্য জিহাদ করতে বাধ্য হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিভিন্ন ইসলামী দলের নেতৃবৃন্দ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ