Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ডা. সাবরিনা-আরিফসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

করোনা টেস্ট কেলেঙ্কারি

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০২০, ১২:০২ এএম

করোনা টেস্টের ভুয়া রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় জেকেজি হেলথ কেয়ারের চেয়ারম্যান ও জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের কার্ডিয়াক সার্জন ডা. সাবরিনা আরিফ চৌধুরীসহ ৮ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি )। গতকাল বুধবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক লিয়াকত আলী ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। চার্জশিটভুক্ত অপর আসামিরা হলেন-ডা. সাবরিনার স্বামী জেকেজির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আরিফুল হক চৌধুরী, তার সহযোগী সাঈদ চৌধুরী, হুমায়ুন কবির ও তার স্ত্রী তানজীনা পাটোয়ারী, শফিকুল ইসলাম, প্রতিষ্ঠানটির ট্রেড লাইসেন্সের স্বত্বাধিকারী জেবুন্নেছা রিমা, বিপ্লব দাস এবং মামুনুর রশীদ। এই ৮ আসামি বর্তমানে কারাগারে আছেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় করোনা শনাক্তের জন্য নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষা না করেই জেকেজি হেলথকেয়ার ২৭ হাজার মানুষকে রিপোর্ট দেয়। এর বেশিরভাগই ভুয়া বলে ধরা পড়ে। এ অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটিতে গত ২৩ জুন অভিযান চালিয়ে সিলগালা করে দেয়া হয়। পরে তাদের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় মামলা দায়ের করা হয়। চার্জশীটে সাবরিনা ও আরিফকে মূল হোতা বলে উল্লেখ করা হয়েছে। বাকিরা প্রতারণা ও জালিয়াতি করতে তাদের সহযোগিতা করেছেন।

গত ২৩ জুন সাবরিনার স্বামী আরিফ চৌধুরীসহ ৬জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরের দিন ২৪ জুন আরিফ চৌধুরী ও সহযোগী সাঈদ চৌধুরীর দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন ঢাকা মহানগর হাকিম আদালত। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে আসে অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য। এর পর ১৫ জুলাই আরিফুলের ফের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। ১৬ জুলাই রিমান্ডে মুখোমুখি হন আরিফ-সাবরিনা। এর আগে গত ১২ জুলাই দুপুরে সাবরিনাকে তেজগাঁও বিভাগীয় ডিসি কার্যালয়ে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় সাবরিনাকে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে করোনা সন্দেহে নমুনা পরীক্ষা না করেই ভুয়া রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগে তেজগাঁও থানায় করা মামলায় গ্রেফতার দেখায় পুলিশ। ১৩ জুলাই তাকে তিনদিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। ১৭ জুলাই আরও দুদিনের রিমান্ডে নেয় ডিবি। রিমান্ড শেষে ২০ জুলাই আদালত তাকে কারাগারে পাঠান।



 

Show all comments
  • Mosarrof Hossan ৬ আগস্ট, ২০২০, ২:০৯ এএম says : 0
    এদের যাবতজ্জিবন জেল হোক
    Total Reply(0) Reply
  • Sourav barua Sajal ৬ আগস্ট, ২০২০, ২:১১ এএম says : 0
    যাদের আশ্রয়ে ও প্রশ্রয়ে করোনাব্যবসা চালিয়েছে অভিযোগপত্র তাদের নাম অন্তভুক্ত হয় না।তারা ধরা ছোঁয়া বাইরে থাকবে গতিনুগতিকভাবে সাবরিনা-আরিফরা বার বার জন্ম হয়।
    Total Reply(0) Reply
  • মিনহাজ ৬ আগস্ট, ২০২০, ২:১৩ এএম says : 0
    এদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি হওয়া দরকার।
    Total Reply(0) Reply
  • নয়ন ৬ আগস্ট, ২০২০, ২:১৩ এএম says : 0
    আইনে কি আছে আমি জানি না। তবে আমার মতে তাদেরকে কোনভাবেই জামিন দেয়া যাবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • রুহান ৬ আগস্ট, ২০২০, ২:১৪ এএম says : 0
    এরা দেশ ও জাতির শত্রু
    Total Reply(0) Reply
  • তানবীর ৬ আগস্ট, ২০২০, ২:১৫ এএম says : 0
    যাদের প্রশ্রয়ে তারা এগুলো করেছে, তাদেরকে খুঁজে বের করতে হবে। না হলে এমন আরও অনেক সাবরিনা-আরিফের জন্ম হবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

২৮ নভেম্বর, ২০২০
২৮ নভেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন