Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

নেত্রকোনার ট্রলার ডুবিতে নিখোঁজ ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধারমৃতের সংখ্যা বেড়ে-১৮

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০২০, ৬:০১ পিএম

মিনি কক্সবাজার হিসেবে পরিচিত নেত্রকোনার মদনে হাওরে ট্রলার ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ একজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় লোকজন রাজালীকান্দার ইউসুফ আহমেদের বাড়ীর পিছনে হাওরের পানিতে একটি লাশ ভাসতে দেখে থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে ভাসমান লাশটি উদ্ধার করে। ট্রলার ডুবির ঘটনায় এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ১৮ জনে।
ময়মনসিংহ জেলার সদর উপজেলার চরসিরতা ইউনিয়নের চর ভবানীপুর গ্রামের মাকসুদা সুন্নাহ হাফিজিয়া মাদ্রাসার ৪৮ জন ছাত্র-শিক্ষক বুধবার সকালে নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলার মিনি কক্সবাজার হিসেবে পরিচিত উচিতপুর হাওর এলাকায় আনন্দ ভ্রমণে আসে। তারা একটি ট্রলারে করে উচিতপুর ঘাট থেকে গোবিন্দশ্রীর দিকে যাচ্ছিল। প্রবল বাতাসের কারণে হাওরে বড় বড় ঢেউ উঠায় ট্রলারটি রাজালীকান্দা নামক স্থানে হঠাৎ কাৎ হয়ে ডুবে যায়। এ দৃশ্য দেখে আশপাশের নৌকা নিয়ে মাছ ধরার লোকজন দ্রুত এগিয়ে এসে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে। ট্রলারের বেশীর ভাগ যাত্রী সাঁতরিয়ে আশপাশের নৌকায় উঠতে সক্ষম হলেও ১৮ জন হাওরের পানিতে তলিয়ে যায়। খবর পেয়ে দমকল বাহিনী ও পুলিশ স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় দুই কন্যা শিশুসহ ১৭ জন মাদ্রাসার ছাত্র শিক্ষকের মৃতদেহ উদ্ধার করে। একজন নিখোঁজ ছিল। বৃহস্পতিবার তারও লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।
স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, ছোট একটি ইঞ্জিন চালিত ট্রলারে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাইয়ের কারণেই এ ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে।
মদন থানার অফিসার ইনচার্জ রমিজুল হক বলেন, রাকিব নামক এক জন ছাত্র নিখোঁজ ছিল। কিছুক্ষণ আগে তারও লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। পরিবারের কাছে তার লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নৌকাডুবি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ