Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী

মোদির ঘৃণিত কাজকে বরদাশত করবে না মুসলিম উম্মাহ

বিভিন্ন ইসলামী দলের নিন্দা ও বিক্ষোভ অব্যাহত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ আগস্ট, ২০২০, ১২:০২ এএম

অযোধ্যায় ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদের জায়গায় রাম মন্দির নির্মাণের ঘটনায় বিভিন্ন সংগঠনের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা বিক্ষোভ মিছিল অব্যাহত রয়েছে। নেতৃবৃন্দ বলেছেন, বাবরি মসজিদ ভেঙ্গে মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপন করে মোদি মুসলমানদের হৃদয়ে কুঠারাঘাত করেছে। মোদির এ ঘৃনিত কাজকে কখনো বরদাশত করবে না মুসলিম উম্মাহ। তুরস্কের আয়া সোফিয়ার ন্যায় আবার একদিন বাবরি মসজিদের স্থানে মসজিদই নির্মাণ করবে ইনশাআল্লাহ।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন: বাবরি মসজিদের স্থানে অবৈধভাবে রাম মন্দির নির্মাণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীর মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর। তিনি বলেছেন, সাম্প্রদায়িক উগ্র হিন্দুত্ববাদী ভারত সরকার জোরপূর্বক এবং ক্ষমতার অপব্যবহার করে বাবরি মসজিদ ভেঙ্গে মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপন করে মুসলমানদের হৃদয়ে কুঠারাঘাত করেছে। কখনো মোদির এ ঘৃনিত কাজকে কখনো বরদাশত করবে না মুসলিম উম্মাহ। আল্লাহর ঘর মসজিদ যেখানে হয়, কিয়ামত পর্যন্ত সে জায়গা মসজিদের হুকুমেই থাকবে। মসজিদের স্থান পরিবর্তনের কোনো সুযোগ নেই। তিনি বলেন, মসজিদের জায়গায় মন্দির হলে মোদি সরকারের পতন হবে এবং ভারত টুকরো টুকরো হয়ে যাবে। হিন্দুত্ববাদের এ চক্রান্তের বিরুদ্ধে বিশ্ববাসিকে রুখে দাঁড়াতে হবে। বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন ডেমরা থানার আমীর মাওলানা আব্দুল মালেকের সভাপতিত্বে গতকাল ডেমরার বড় ভাঙ্গাস্থ আলহাজ নান্নু মুন্সি জামিয়া কারিমিয়া মাদরাসায় ঢাকা ৫ আসনের দায়িত্বশীলদের এক বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ হাফেজ্জী এসব কথা বলেন।

এতে আরো উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলার আমীর আলহাজ আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সি, মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, খেলাফত আন্দোলনের ঢাকা ৫ আসনের এমপি প্রার্থী জননেতা জহিরুল ইসলাম রনি মুন্সি, মাওলানা ফিরোজ আশরাফী, মাওলানা শেখ সাদী, হাফেজ আখতারুজ্জামান সিদ্দিকী, মাওলানা এমদাদ উল্লাহ, মাওলানা নাসিম রেজা। মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ হাফেজ্জী বলেন, সরকারের এ ঘৃনিত পদক্ষেপ ভারতে সাম্প্রদায়িক অস্থিরতা সৃষ্টি করবে এবং মোদি সরকার ইতিহাসে কলঙ্কিত হয়ে থাকবে। শতবছর পরে হলেও মুসলমানরা তুরস্কের আয়া সোফিয়ার ন্যায় আবার বাবরি মসজিদের স্থানে মসজিদই নির্মাণ করবে ইনশাআল্লাহ। তিনি বাবরি মসজিদ রক্ষায় বিশ্বমুসলিমকে ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা রাখার আহবান জানান। আলহাজ আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সি বলেন, বাবরি মসজিদের জায়গায় মন্দির নির্মাণের পরিণাম শুভ হবে না। উগ্র সাম্প্রদায়িক ভারতের জালিম সরকারের বিরুদ্ধে মুসলিম উম্মাহকে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর মুফতী ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই বলেছেন, ভারতে মুসলমানদের নাম নিশানা মুছে ফেলতে চায় মোদি সরকার। ঐতিহ্যবাহী বাবরি মসজিদস্থলে রাম মন্দির নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপন করে মোদি মুসলমানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। কোরবানিসহ গরুর গোশত খাওয়াকে কেন্দ্র করে দেশটিতে মুসলমানদের ওপর জুলুম ও নির্যাতনের স্টিমরোলার চালানো হচ্ছে। গতকাল শুক্রবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, জাতিসঙ্ঘ, ওআইসি, মুসলিম রাষ্ট্রসমূহ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোকে ভারতের হিন্দুত্ববাদী উগ্রবাদী আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কঠোর পদপে গ্রহণ করতে হবে। ভারত সা¤প্রদায়িক দাঙ্গা বাধিয়ে অশান্তি সৃষ্টি করতে চাচ্ছে। তিনি বলেন, ভারত ধর্মনিরপেক্ষতার আড়ালে হিং¯্র উগ্র ও ফ্যাসিবাদী আচরণ করছে। ভারতে সংখ্যালঘু মুসলমানদের ওপর নির্যাতন নিপীড়ন জ্যামিতিক হারে বেড়ে চলছে। রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ইসলাম ও মুসলমানদের ধর্ম পালনে বাধা দেয়া হচ্ছে। মুফতী ফয়জুল করীম ভারতের উগ্র হিন্দুত্ববাদী ও মুসলিম বিদ্বেষী আচরণের বিরুদ্ধে বিশ্বের মুসলিম নেতৃত্বকে শক্তিশালী প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহŸান জানান।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন দাউদকান্দি : বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন বাবরি মসজিদের স্থানে অবৈধভাবে মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বাবরি মসজিদের জায়গায় মন্দির হলে মোদি সরকারের পতন হবে এবং ভারত টুকরো টুকরো হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ। তিনি বলেন, মোদি সরকারকে বাবরি মসজিদের স্থানে মন্দির নির্মাণের সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে আসতে হবে। অন্যথায় বাবরি মসজিদ রক্ষায় বিশ্ব মুসলিমকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জিহাদ ঘোষণা করতে হবে। গতকাল বাদ জুমা দাউদকান্দি বড় মসজিদের সামনে খেলাফত আন্দোলন দাউদকান্দি উপজেলা শাখার উদ্যোগে এক বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আব্দুল্লাহ আল রুবেল ও হাজী সালাহ উদ্দিন। পরে বাবরি মসজিদের স্থানে রাম মন্দির নির্মাণের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাবরিম মসজিদ
আরও পড়ুন