Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ফজিলাতুন নেসা ছিলেন জাতির পিতা মহানায়ক গড়ার কারিগর

পর্তুগালে আলোচনা সভায় রাষ্ট্রদূত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ আগস্ট, ২০২০, ৮:১৭ পিএম

স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেসা মুজিবের ৯০ তম এবং জাতির পিতার জৈষ্ঠ্য পুত্র মরহুম শেখ কামালের ৭১ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে পর্তুগালের লিসবনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে শুক্রবার বিকেলে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত এর মাধ্যমে শুরু হয় স্মরণ সভা। পরে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতার ছবিতে ফুলেল শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান রাষ্টদূত রুহুল আলম সিদ্দীকি এবং পর্তুগাল আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। লিসবনস্থ দূতাবাসের এক বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানানো হয়েছে।
দূতাবাসের দ্বিতীয় সচিব আব্দুল্লাহ আল রাজীবের সঞ্চালনায় এবং রাষ্ট্রদূত রুহুল আলম সিদ্দীকির সভাপতিত্বে আলোচনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পর্তুগাল আওয়ামী লীগ এর সভাপতি জহিরুল আলম জসিম, যুগ্ম সাধারণ ইমরান হোসেন ভূঁইয়া,সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, প্রচার সম্পাদক রেজাউল বাসিত, দপ্তর সম্পাদক জাকির হোসাইন ,আওয়ামীলীগ নেতা তানভীর আলম জনি,অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান, জামাল উদ্দিন,নারী নেত্রী সানজিদা মনা,কাওসার আহমেদ,আব্দুল্লাহ আল মামুন,ছাত্রলীগ নেতা রিয়াদ ও ও দৈনিক ডাক বাংলা প্রতিনিধি মনির হোসেন।
সভায় রাষ্ট্রদূত বলেন, বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী ফজিলাতুন নেসা মুজিব ছিলেন জাতির পিতা মহানায়ক গড়ার একজন আদর্শ কারিগর। স্বাধীনতা আন্দোলনের বঙ্গমাতার অবদান জাতীর কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। পরে বঙ্গবন্ধু ও তার শহীদ পরিবারের সদস্যদের রূহের মাগফিরাত এবং প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ূ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এছাড়া বাংলাদেশ দূতাবাসের দুটি প্রামণ্য চিত্র দেখানো হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন