Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৯ মাঘ ১৪২৭, ০৯ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নাগাসাকি দিবস আজ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০২০, ১২:১০ এএম

আজ ৯ আগস্ট নাগাসাকি দিবস। আজ থেকে ৭৫ বছর আগে ১৯৪৫ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে নাগাসাকি শহরের ওপর ফ্যাট ম্যান নামের একটি নিউক্লীয় বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছিল। এর আগে ৬ আগস্ট হিরোশিমা শহরে ‘লিটল বয়’ নামে প্রথম নিউক্লীয় বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সেই ভয়াবহ ঘটনার কথা মনে করে পরবর্তীকালে এ দুই দিন ৬ ও ৯ আগস্ট পরমাণু অস্ত্র বিরোধী দিবস হিসেবে পালন করা হয়।
অনুমান করা হয় যে, ১৯৪৫ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে বোমা বিস্ফোরণের ফলে হিরোশিমাতে প্রায় ১ লাখ ৪০ হাজার লোক মারা যান। নাগাসাকিতে প্রায় ৭৪ হাজার লোক মারা যান এবং পরবর্তীতে এ দুই শহরে বোমার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় সৃষ্ট রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান আরও ২ লাখ ১৪ হাজার মানুষ। জাপানের আসাহি শিমবুন-এর করা হিসাব অনুযায়ী বোমার প্রতিক্রিয়ায় সৃষ্ট রোগসমূহের ওপর হাসপাতাল থেকে পাওয়া তথ্য গণনায় ধরে হিরোশিমায় ২ লাখ ৩৭ হাজার এবং নাগাসাকিতে ১ লাখ ৩৫ হাজার লোকের মৃত্যু হয়েছিল। দুই শহরেই মৃত্যুবরণকারীদের অধিকাংশই ছিলেন অসামরিক ব্যক্তি।

জাপানের আত্মসমর্পণের পেছনে এ বোমাবর্ষণের ভূমিকা এবং এর প্রতিক্রিয়া ও যৌক্তিকতা নিয়ে প্রচুর বিতর্ক রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ভেতরে অধিকাংশের ধারণা এ বোমাবর্ষণের ফলে যুদ্ধ অনেক মাস আগেই সমাপ্ত হয়, যার ফলে পূর্ব-পরিকল্পিত জাপান আক্রমণ সংঘটিত হলে উভয় পক্ষের যে বিপুল প্রাণহানি হত, তা আর বাস্তবে ঘটেনি। অন্যদিকে জাপানের সাধারণ জনগণ মনে করে এই বোমাবর্ষণ অপ্রয়োজনীয় ছিল, কেননা জাপানের অসামরিক নেতৃত্ব যুদ্ধ থামানোর জন্য গোপনে কাজ করে যাচ্ছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নাগাসাকি-দিবস

৯ আগস্ট, ২০২০
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ