Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

দুদকের অনুসন্ধান আগরতলা বারাসাত গৌহাটিতে একাধিক বাড়ি প্রদীপ দাশের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০২০, ২:৪০ পিএম

টেকনাফের গ্রেফতারকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশের দেশ-বিদেশে রয়েছে সম্পদের পাহাড়। দেশের সীমানা ছাড়িয়ে ভারত এবং অস্ট্রেলিয়ায় গড়ে তুলেছেন সম্পদ-সাম্রাজ্য। ঘুষ,দুর্নীতি,ব্ল্যাকমেইলিংয়ের মাধ্যমে তিনি বিপুল সম্পত্তি অর্জন করেন। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) প্রাথমিক অনুসন্ধানে উঠে এসেছে প্রদীপ কুমার দাশের বিপুল অবৈধ সম্পদের তথ্য।
দুদক সূত্র জানায়,সিনহা হত্যা মামলার আসামি টেকনাফের গ্রেফতারকৃত ওসি প্রদীপ কুমারের নামে-বেনামে থাকা সম্পদের অনেক তথ্য এখন দুদকের হাতে। ইতিমধ্যে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য সংস্থাটি সংগ্রহ করেছে। এছাড়া নিজস্ব গোয়েন্দা ইউনিটও অনেক তথ্য সংগ্রহ করেছে। বিষয়টির অনুসন্ধানে একটি বিশেষ টিম কাজ করছে। এর আগে ২০১৮ সালে প্রদীপের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান করে দুদক। এ সময় দুদকে নিজের সম্পদ বিবরণী দাখিল করেন প্রদীপ। তবে অদৃশ্য ইশারায় সেই অনুসন্ধান ধামাচাপা পড়ে ছিলো। মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যার ঘটনা আলোচনায় এলে প্রদীপ কুমার দাশের ফাইলটি আবার সচল হয়।
দুদক সূত্র জানায়, গতবছর প্রদীপের সম্পদ অনুসন্ধান শুরু করে দুদক। সেখানে সম্পদের তিনি যে তথ্য দিয়েছেন তাতে অধিকাংশ তথ্যই তিনি গোপন করেছেন। ওই তথ্যের বাইরেও চট্টগ্রামের লালখান বাজারে ফ্লাট, কক্সবাজারে দুটি হোটেলের মালিকানা, দেশের বিভিন্ন স্থানে জায়গা-জমি ও ভবন রয়েছে। এছাড়া ভারতের আগরতলা, কলকাতার বারাসাত, গৌহাটি এবং অস্ট্রেলিয়ায় তার বাড়ি রয়েছে। এসব বিষয়ে দুদক কর্মকর্তারাও নতুন করে তত্ত্ব-তালাশ করছেন।
সূত্রমতে,তার অবৈধ আয়ের অর্থ দিয়ে স্ত্রী চুমকির নামে বেশি সম্পদ কিনেছেন। বোয়ালখালীতে স্ত্রীর নামে কয়েক কোটি টাকার সম্পদ কিনেছেন। বোয়ালখালী সারোয়াতলী ইউনিয়নে প্রদীপের স্ত্রীর নামে এলাকায় মাছের খামার রয়েছে। অবৈধ অর্থে চট্টগ্রামে গড়েছেন সম্পদের পাহাড়। বিলাসবহুল বাড়ি-গাড়ি, বিপুল পরিমাণ কৃষি-অকৃষি জমি। স্ত্রীর নামে তিনি ব্যাংকে রেখেছেন বিপুল পরিমাণ টাকা। বিদেশে টাকা পাচারের অভিযোগও উঠেছে তার বিরুদ্ধে। চুমকি গৃহিণী হলেও দুদকে জমা দেয়া হিসাব বিবরণীতে তাকে মৎস্য খামারি হিসেবে দেখানো হয়েছে। ১৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা মূলধনে শুরু করা মৎস্য খামারে চুমকি প্রতি বছর কোটি কোটি টাকা আয় করেছেন। মৎস্য চাষের লাভের টাকায় কিনেছেন চট্টগ্রাম নগরীতে জমি, গাড়ি-বাড়ি। হিসাব বিবরণীতে চুমকির স্থাবর সম্পত্তির মধ্যে রয়েছে- নগরীর পাথরঘাটা এলাকায় চার শতক জমি (দাম ৮৬ লাখ ৭৬ হাজার টাকা)। এ জমিতে গড়ে তোলা ৬ তলা ভবনের (মূল্য ১ কোটি ৩০ লাখ ৫০ হাজার),পাঁচলাইশে ২০১৫-১৬ অর্থবছওে কেনা হয় ৬ গন্ডা ১ কড়া জমি (দাম এক কোটি ২৯ লাখ ৯২ হাজার ৬০০ টাকা); ২০১৭-১৮ সালে কেনা হয় কক্সবাজারে ঝিলংজা মৌজায় ৭৪০ বর্গফুটের ফ্ল্যাট (দাম ১২ লাখ ৩২ হাজার টাকা)। সব স্থাবর সম্পদের মূল্য দেখানো হয়েছে তিন কোটি ৫৯ লাখ ৫১ হাজার ৩০০ টাকা। এছাড়া অস্থাবর সম্পদের মধ্যে দেখানো হয়েছে- প্রাইভেটকার (দাম পাঁচ লাখ টাকা), মাইক্রোবাস (দাম সাড়ে ১৭ লাখ টাকা) ও ৪৫ ভরি স্বর্ণ। ব্যাংকে ৪৫ হাজার ২০০ টাকা দেখানো হয়েছে।



 

Show all comments
  • Md. Ibrahim ৯ আগস্ট, ২০২০, ৫:৫২ পিএম says : 0
    এর আগে ২০১৮ সালে প্রদীপের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান করে দুদক। এ সময় দুদকে নিজের সম্পদ বিবরণী দাখিল করেন প্রদীপ। তবে অদৃশ্য ইশারায় সেই অনুসন্ধান ধামাচাপা পড়ে ছিলো। এটা সত্যি হলে আগে বিচার হওয়া উচিত দুদকের। কার ইশারায় কেন অনুসন্ধান ধামাচাপা পড়ে??
    Total Reply(0) Reply
  • Sazzad ৯ আগস্ট, ২০২০, ৭:০৮ পিএম says : 1
    আমাদের দূরভাগ্য, এরা নাকি আমাদের রক্ষক। পুলিশ কীভাবে নিয়োগ হয় তা থেকে তদন্ত করা হোক। সাধারণ মানুষ ডাকাত থেকে দশ হাত দুরে থাকে আর পুলিশ থেকে ১০০ হাত দুরে থাকে। এরা এতটাই জনগনের আস্তা অর্জন করেছে। একজন পুলিশ একাই ১৬১ জন কে খুন করছে বা করাইছে। বনের হায়েনা ক্ষুধা জালায় জালায় শিকার করে এরা কেন এমন করে। বুঝিনা!!
    Total Reply(0) Reply
  • ফিরোজ খান ৯ আগস্ট, ২০২০, ৫:১২ পিএম says : 1
    এই হল আমাদের দেশের ওসির অবস্থা
    Total Reply(0) Reply
  • সুমন সাহা ৯ আগস্ট, ২০২০, ৫:১২ পিএম says : 0
    বড় অফিসারদের যে কি অবস্থা সেটা আল্লাহই ভাল জানে
    Total Reply(0) Reply
  • আব্দুল কাদের ৯ আগস্ট, ২০২০, ৫:১৩ পিএম says : 0
    দেশটাতে সবাই খেলে লুটেপুটে খাচ্ছে
    Total Reply(0) Reply
  • জামশেদ ৯ আগস্ট, ২০২০, ৫:১৩ পিএম says : 0
    দেশের সকল সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের সম্পদের হিসাব প্রতিবছর নেওয়া উচিত
    Total Reply(0) Reply
  • Zahangir ৯ আগস্ট, ২০২০, ৭:৫৭ পিএম says : 0
    আমার মনে হয় ওসি প্রদীপ RAW এর এজেন্ট। এ ধরনের প্রদীপের সংখ্যা পুলিশসহ প্রশাসন, সশস্ত্র বাহিনী, সাংবাদিক, রাজনীতির অঙ্গনে কিলবিল করছে। তা ছাড়া, আমাদের গুরুত্বপূর্ণ কিছু মাননীয় মন্ত্রীগণ যেভাবে ভারত বন্দনা করেন, তাতে অবাক হয়ে যাই। ভাবি, তারা কি বাংলাদেশের মন্ত্রী, নাকি ভারতের প্রতিনিধ? তাদের মান মর্যাদা কিছু আছে বলেতো মনে হয় ন। কেউ কেউ তো আবার নিজেকে হার্ভাড ফেরত বলেও পরিচয় দিয়ে থাকেন। আল্লাহ তাদেরকে হেদায়েত করুক। দেশের জনগণের আকাঙ্খা ধারণ কারার তৌফিক দান করুক।
    Total Reply(0) Reply
  • habib ৯ আগস্ট, ২০২০, ৩:২৭ পিএম says : 0
    Egulo kiser alamot ?
    Total Reply(0) Reply
  • Kobi ৯ আগস্ট, ২০২০, ৪:৩৯ পিএম says : 0
    দুখঃজনক হলো যখন এই সব পদে অবৈধ সম্পদ করার এতো সুযোগ তৈরি হয় তখন শুদ্ধিকরণ প্রকল্প নিতে হয়। কিন্তু আমাদের সমাজ, নেতৃত্ব, সুশীল ব্যাক্তিরা এ সবের দাবিতে নিরবচ্ছিন্ন নয়। ক্যাবল এক্টা, দুইটা ঘটনা ঘটলেই তারা সংশ্লিষ্ট গুটিকয়েক ব্যাক্তি নিয়ে রচনা লিখে। এখনই উচিত সমগ্র খাতে যেখানে যেখানে দুর্নীতি নিয়ে, বেআইনী কর্মকান্ড নিয়ে যার বিরুদ্ধেই কথা উঠবে অমনি সেখানকার পুরো সিস্টেমই রিকল করা উচিত। আর সাংবাদিক ভাইদের বলবো এই একজনের তল্পিতল্পা দিয়ে শুরু করে সব থানার ওসি, এস আই, এসপি এদের সম্পদের ঠিকুজি প্রকাশ করা। তাহলে দেশের ৫০ ভাগ দুর্নীতি বন্ধ হবে। এরা অবৈধ সম্পদ আহরণ না করতে পারলে অন্যদের ও সে সুযোগ সীমিত হয়ে যাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • আবু আব্দুল্লাহ ৯ আগস্ট, ২০২০, ৪:৫৯ পিএম says : 0
    এ ভাবে প্রশাসনের রন্দ্রে রন্দ্রে হিন্দুরা তাদের পসেশন মজবুত করে ফেলেছে আমার মনে হয় আসলে ওই সকল সবাই হিন্দুস্থানী ভাষা বাংলা হওয়ার করনে ওদের চেনা যায়না
    Total Reply(0) Reply
  • jack ali ৯ আগস্ট, ২০২০, ৮:৪৪ পিএম says : 0
    Our government from Top to Bottom filled with criminals.. we bangladeshi general people are hostage in every aspect in our life by these criminals..
    Total Reply(0) Reply
  • মোহাম্মদ আবুল হাশেম ৯ আগস্ট, ২০২০, ৯:০৭ পিএম says : 0
    আমাদের দেশের পুলিশ বাহীনিতে কিভাবে recruitment হয়, কিভাবে training হয় , কিভাবে police force নানা corruption করে সব ব্যাপারে detailed investigation দরকার| corrupted nation কখনো উন্নত হতে পারেনা| বড় বড় lecturer দিয়ে লাভ নেই|
    Total Reply(0) Reply
  • Zahangir ৯ আগস্ট, ২০২০, ১০:৪৫ পিএম says : 0
    দাদ ভাই প্রদীপের বাড়ি কি ভারতে না কি? বারাসাত, গৌহাটী আর কলকাতায় যার বাড়ি- সে ব্যক্তি তো আর বাংলাদেশী হতে পারে না । প্রদীপ আসলে RAW এর এজেন্ট। এরকম অসংখ্য প্রদীপ রয়েছে এ দেশের আনাচে কানাচে।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Rejaul Karim ৯ আগস্ট, ২০২০, ১০:০১ পিএম says : 0
    একজন ওসি একটি থানার কমান্ডিং অফিসার মাত্র এখানেই এই অবস্হা হলে উপর লেভেলের অবস্থা কেমন হতে পারে???
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Shah Alam Khan ৯ আগস্ট, ২০২০, ১১:৫৮ পিএম says : 0
    আমি ব্যাক্তিগত ভাবে মনেকরি প্রদীপের বিরুদ্ধে দুদকের চলন্ত তদন্ত কার হস্তক্ষেপে বন্ধ হয়েছিল সেটা উদ্ঘাটন করে সেই সব পদস্ত ব্যাক্তিত্বদেরকেও আইনের আওতায় আনতে হবে। কারা এযাবৎ ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে সহযোগিতা করেছেন (যেকারনে প্রদীপ এতটা উদ্যোত আচরণ করতে পেরেছে) কেন করেছেন এসব তদন্ত করে তাদেরকেও আইনের আওতায় আনতে হবে। আমি এখন ব্যাক্তিগতভাবে যা দেখছি তাতে মনে হচ্ছে জনগণ চায় দেশের সরকার প্রধান শেখ হাসিনা যেন এই পুলিশদেরকে নিয়ন্ত্রণে নেয়ার জন্যে পুলিশকে প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে আনা হউক। এটা অবশ্যই জনগণ বুঝে এতে করে সরকারি দলের ক্ষমতা অনেক লোপ পাবে। তারপরও দেশের ও জনগণের মঙ্গলের জন্যেই সরকার প্রধান শেখ হাসিনাকে আসন্ন সংসদে এই বিষয়ে বক্তব্য দিয়ে পুলিশকে প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে আনা হউক এটাই জনগণের দাবী। মহান আল্লাহ্‌র দরবারে আমার প্রার্থনা আল্লাহ্‌ যেন শেখ হাসিনাকে জনগণের দাবী পুরন করার ক্ষমতা দান করেন। আমিন
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ জাবেদ আলী ১০ আগস্ট, ২০২০, ১:২০ এএম says : 0
    স্বাধীন দুর্নীতি দমন কমিশন ১৮ সালের অনসন্ধান কার্যক্রম কার ইশারায় বন্ধ করেছে এবং তাঁরা সাংবিধানিক অধিকার প্রতিষ্ঠা না করে সপৎ ভঙ্গ করে নিজেদেক অযোগ্য প্রমান করেছেন কিনা সে ব্যপারে অনুসন্ধান করে আইনগত ব্যবস্হা নেয়ার দাবি করলে অনুচিত হবেনা বলে মনে করি!!!
    Total Reply(0) Reply
  • S M Nasir Uddin ১০ আগস্ট, ২০২০, ৪:৪৮ পিএম says : 0
    কারো ইশারায় তদন্ত বন্ধ হয়। আহা ! কি ব্যক্তিত্ত্ব তাহার। এদেশকে ঠিক করিতে হইলে ভগবানকে এই ধরাতে আসিতে হইবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Sohail Shaikh ১৫ আগস্ট, ২০২০, ১২:০৫ পিএম says : 0
    This is not a big or breaking news ............................... Thanks you so much Dailyinqilab news and all team for your true and honest document... I pray to God
    Total Reply(0) Reply
  • md anwar ali ১৫ আগস্ট, ২০২০, ৬:৩১ এএম says : 0
    এদের থেকে সাবধান
    Total Reply(0) Reply
  • আবদুর রাফি ১৫ আগস্ট, ২০২০, ১১:২৮ এএম says : 0
    সারা বাংলাবিক্রি করে ভারতে নিয়ে গেলেও কোন সমস্যা নাই আপনি স্বাধীনতার পক্ষে আছেন কিন্তু পাকিস্তানে গেই আপনি স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার। ইংরেজরা ভারতে রাজত্ব করেছে ইংলেন্ডের পতাকা নিয়ে আর বর্তমানের স্বাধীনতার পক্ষ শক্তি বাংলাদেশে কাজ করছে ভারতের পতাকা হাতে নিয়ে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ওসি প্রদীপ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ