Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮ আশ্বিন ১৪২৭, ০৫ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

জেমি’র ‘মহা গুরুত্বপূর্ণ’ দিন সোমবার!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০২০, ৭:১৫ পিএম

সোমবার দিনটি জাতীয় ফুটবল দলের ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে’র কাছে “মহা গুরুত্বপূর্ণ’ একটি দিন! কারণ এদিন জাতীয় দলের প্রাথমিক স্কোয়াডের ফুটবলারদের দুইবার করে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করানো হবে। গেল তিনদিনে যে ৩০ ফুটবলারের করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছিল তাদের মধ্যে ১৮ জনের ফলই পজিটিভ। আগের করা পরীক্ষার ফল সঠিক কিনা তা নিশ্চিত হতেই আজ সবাইকে দুই প্রতিষ্ঠানে ফের করোনা পরীক্ষা করাবে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। দুই জায়গার পরীক্ষার ফল যাদের পজিটিভ হবে, তাদের জন্য আইসোলেশনের ব্যবস্থা করবে বাফুফে। আর নেগেটিভ হলে তাদের মাঠে নামিয়ে দেবে অনুশীলনের জন্য। যদি দুই প্রতিষ্ঠানের ফলাফল দু’রকম আসে তা হলে ফুটবলারদের আবার পরীক্ষা করানো হবে ২/৩ দিন পর।

তাই সোমবারের অপেক্ষায় আছেন সবাই। বিশেষ করে কোচ জেমি ডে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন শিষ্যদের ভালো খবর পেতে। রোববার বিকেলে লন্ডন থেকে জেমি বলেন, ‘সোমবার দিনটা মহা গুরুত্বপূর্ণ। তবে আমার বিশ্বাস স্বস্তির খবরই পাবো। আমি মনে করি না যে, ১৮ জনই আবার পজিটিভ হবে।’

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের বাকি চার ম্যাচকে সামনে রেখে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডাকা হয়েছিল ৩৬ ফুটবলারকে। নিজেদের ৩ খেলোয়াড়কে ছাড়েনি বসুন্ধরা কিংস। ফলে প্রাথমিক স্কোয়াড এখন ৩৩ জনের। তবে অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া ও ফিনল্যান্ড প্রবাসী তারিক রায়হান কাজী এখনও ঢাকায় ফেরার দিনক্ষণ নিশ্চিত করতে পারেননি বলে কোচ জেমি ডে’র হাতে রয়েছে ৩১ ফুটবলার। এদের মধ্যে ১৮ জনের করোনা পজিটিভ। একজনের জ্বর। এতে বিস্মিত অনেকে। যে কারণে দুই প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষা করে ফলাফল মিলিয়ে তারপর ব্যবস্থা নেবে বাফুফে।

নেগেটিভ-পজিটিভের দোলাচালে কোচ কি বিকল্প খেলোয়াড়ের কথা ভাবছেন? এমন প্রশ্নে জেমি’র উত্তর,‘আমাকে অপেক্ষা করতেই হবে। কারণ আমি সেরা খেলোয়াড়দেরই ডেকেছি। এখন যদি নতুন ১৮ জনকে ডাকি এবং তাদেরও করোনা পজিটিভ হয়, তাহলে একই সংকট থাকবে। তাই সেরাদের তৈরি করার জন্যই আমাকে অপেক্ষা করতে হবে।’

অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া কবে দেশে ফিরবেন তা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে বাফুফে জানিয়েছে ৩১ আগস্ট জামাল ভূঁইয়ার ঢাকায় ফেরার সম্ভাব্য তারিখ। তবে কোচ নিশ্চিত নন কবে অধিনায়ক যোগ দিতে পারবেন ক্যাম্পে। তিনি বলেন, ‘জামালের আসাটা নির্ভর করছে ডেনমার্ক থেকে অন্য দেশে ভ্রমণের বিধিনিষেধ শিথিলের ওপর।’

তবে জামালের জন্য জেমি অন্তত ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে চান, ‘জামালকে তৈরি করার জন্য আমার দরকার হবে এক মাস। কারণ সে ফিট খেলোয়াড়, নিজের থেকে সবকিছু করে। আশা করছি সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহেই ঢাকায় পৌঁছাতে পারবে সে।’

জাতীয় দলের ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপু জামাল প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমরা যতটুকু জেনেছি ১ সেপ্টেম্বর থেকে ডেনমার্কের সরকার তাদের নাগরিকদের অন্য দেশে ভ্রমণের কড়াকড়ি শিথিল করবে। ফ্লাইট চালু হলেই জামাল চলে আসবে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ব্রিটিশ কোচ
আরও পড়ুন