Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী

ঔপনিবেশিক শক্তি আর ফিরতে পারবে না : মিশেল

লেবাননের সহায়তায় আরবলীগ ও তুরস্ক, চার পার্লামেন্ট সদস্যের পদত্যাগ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ আগস্ট, ২০২০, ১২:০১ এএম

লেবাননকে ফ্রান্সের কর্তৃত্বে নেওয়া সংক্রান্ত পিটিশনের জবাবে প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন বলেছেন, তার দেশে আর কখনো কোনো ঔপনিবেশিক শক্তি ফিরে আসতে পারবে না। শনিবার প্রেসিডেন্ট সাংবাদিকদের বলেন, আমার নজর যতক্ষণ আছে ততক্ষণ পর্যন্ত লেবাননের সার্বভৌমত্ব কেউ ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারবে না। মঙ্গলবার বৈরুত বন্দরে বিস্ফোরণের পর বৃহস্পতিবার সেখানে পরিদর্শনে যান ফরাসি প্রেসিডেন্ট এবং পরে দেশটির প্রেসিডেন্ট আউনের সঙ্গে বৈঠকের সময় এই বিস্ফোরণের ব্যাপারে আন্তর্জাতিক তদন্তের আহŸান জানান। পাশাপাশি বিক্ষোভকারী লোকজনের দাবি মোতাবেক যদি লেবাননের নেতারা দেশে সংস্কার ও রাজনৈতিক পরিবর্তন না আনেন তাহলে ফ্রান্স লেবাননের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবেন বলে হুমকি দেন। আন্তর্জাতিক তদন্তের ব্যাপারে ইমানুয়েল ম্যাখোঁর এই আহŸান প্রত্যাখ্যান করেন প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন। তিনি বলেন, বিদেশী কোনো শক্তির হামলার রকেট বা ক্ষেপণাস্ত্র পর এই বিস্ফোরণ ঘটে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে। তবে এ ব্যাপারে এখনো চ‚ড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্তে আসা যায়নি। প্রসঙ্গত, সাত দশকেরও বেশি সময় আগে ফ্রান্সের উপনিবেশ থেকে স্বাধীনতা লাভ করে লেবানন। এদিকে, লেবানন বন্দরে ব্যাপক বিস্ফোরণের পর ক্রমবর্ধমান জনগণের ক্ষোভের মধ্যে লেবাননের চারজন পার্লামেন্ট সদস্য পদত্যাগ করেছেন। লেবাননের কাতায়েব পার্টির তিনজন সংসদ সদস্য এবং একজন স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য বলেছেন যে, তারা ১২৮ সদস্যের সংসদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। পদত্যাগের পর সংসদ সদস্য নাদিম গেমায়েল বলেন, আমরা এবং আরো কয়েকজন সম্মানিত সংসদ সদস্য রাজনৈতিক প্রভাবশালীদের মুখোশ খুলে দেব। কাতায়েব পার্টির মহাসচিব নিজার নাজারিনের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া চলাকালীন সময়ে গেমাইল বলেন, বৈরুত বিস্ফোরণ নতুন লেবাননের জন্ম দেবে। নিজার বিস্ফোরণে প্রাণ হারান এবং দলটি লেবাননের সংসদে মাত্র তিনটি আসন পেয়েছে। এদিকে নারী সংসদ সদস্য পলা ইয়াকুবিয়ানও তার পদত্যাগের কথা ঘোষণা করেছেন। তিনি লেবাননের অন্যান্য আইন প্রণেতাদের প্রতিও একই আহŸান জানিয়েছেন। অপরদিকে সা¤প্রতিক ভয়াবহ বিস্ফোরণে লেবাননের রাজধানী বৈরুতের বৃহৎ একটি অংশ ধ্বংসের পর সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে আরব লীগ। এছাড়া বন্দর পুনর্নিমাণে সহায়তা করতে প্রস্তুত আছে বলে জানিয়েছে তুরস্ক। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, গতকাল শনিবার লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউনের সঙ্গে বৈঠক করেন আরব লীগের প্রধান আহমেদ আবুল গেইত ও তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত ওক্তাই। এরপর গেইত জানিয়েছেন, লেবাননকে সহায়তা প্রদান করতে সম্মিলিত আরব উদ্যোগ নেওয়ার চেষ্টা করবেন তিনি। বৈঠকের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি জানান, কায়রোভিত্তিক আরব লীগের রাষ্ট্রগুলো বিস্ফোরণের তদন্তে সহায়তা করতে প্রস্তুত আছে। “সম্ভাব্য সব ধরনের সহায়তা করতে প্রস্তুত আছি আমরা,” বলেন তিনি। আনাদোলু, ডেইলি সাবাহ, রয়টার্স।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লেবানন


আরও
আরও পড়ুন