Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পাঞ্চলে ২০২১ সালের মধ্যেই ২০টি শিল্প প্রতিষ্ঠান কারখানা নির্মাণ কাজ শুরু করবে

মীরসরাই (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ আগস্ট, ২০২০, ২:৫০ পিএম | আপডেট : ৩:১৬ পিএম, ১১ আগস্ট, ২০২০

# বর্তমানে ১১টি শিল্প প্রতিষ্ঠান কারখানা নির্মাণের কাজ শুরু করেছে
# ৭টি স্লুইচগেইটের মধ্যে ৬টির নির্মাণ কাজ শেষ
# ২৫ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়ে
# ১৮টি কালভাট নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে
# ১৫ বিলিয়ন ডলারের বেশি বিনিয়োগের প্রস্তাব এসেছে
# আরো ১০ বছর ধরে চলবে এই কর্মযজ্ঞ
# ১১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দিচ্ছে ভারত
ইমাম হোসেন, মীরসরাই (চট্টগ্রাম) থেকে ॥ ধীরে ধীরে কল-কারখানা গড়ে উঠছে মীরসরাইয়ে দেশের সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক অঞ্চল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে। যা ক্রমশ দৃশ্যমান হতে শুরু করেছে। ২০২১ সালে ২০টি শিল্প প্রতিষ্ঠান কারখানা নির্মাণ কাজ শুরু করবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ইকোনমিক জোন অথরিটির (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী। ইতিমধ্যে ১১টি শিল্প প্রতিষ্ঠান নিমার্ণ কাজ শুরু করেছে। এদের মধ্যে এশিয়ান পেইন্ট ও বসুন্ধরা গ্রুপ উল্লেখ্যযোগ্য। এশিয়ান পেইন্ট ২০ একর ও বসুন্ধরা গ্রুপ ৫০০ একর জমিতে কারখানা নির্মাণ কাজ শুরু করেছে।
বাংলাদেশ ইকোনমিক জোন অথরিটির (বেজা) সূত্রে জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগর উন্নয়নে ১৭ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর হবে স্মার্টসিটি। পণ্য আমদানি রপ্তানীর জন্য এখানে একটি সমুদ্র বন্দর নির্মাণ করা হবে। এছাড়া সোনাগাজী অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিমানবন্দর নির্মাণ করা হবে। মীরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে ২টি শিল্প প্রতিষ্ঠান নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। এগুলো যেকোন সময় প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করবেন। ২৫ কিলোমিটার সড়ক উন্নিত করণের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এগুলোর মধ্যে বেজা করছে ১৫ কিলোমিটার ও সড়কও জনপথ বিভাগ করছে ১০ কিলোমিটার। ১৮টি কালভার্ট নির্মাণের কাজ শেষ করেছে বেজা। এছাড়া ৫১, ৫৭ ও ২৫ মিটারের তিনটি ব্রীজ নিমার্ণ কাজ শেষ করেছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। শেষ হয়েছে দাপ্তরিক অবকাঠামো নির্মাণ ও পাওয়ার প্ল্যান্ট নির্মাণ কাজ। যে কোন শিল্প প্রতিষ্ঠান চাইলে গ্যাস সরবরাহ করতে পারবে।
আরো জানা গেছে, ৭টি স্লুইচ গেইটের মধ্যে ৬টির কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ইতিমধ্যে ১১টি শিল্প প্রতিষ্ঠান তাদের কারখানা নির্মাণ কাজ শুরু করেছে। ২০২১ সালে আরো ২০টি শিল্প প্রতিষ্ঠান কারখানা নির্মাণ কাজ শুরু করবে। এছাড়া গত ১৯ জুলাই বিশ্বব্যাংকের বোর্ড সভায় ৫০ কোটি ডলারের একটি প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। যা দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে নতুন করে আরো সড়ক নির্মাণসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কাজে ব্যয় করা হবে।
এই বিষয়ে এসবিজি ইকোনমিক জোনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহবুবুর রহমান রুহেল বলেন, বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেয়ার দিন শেষ। বিশ্বের উন্নত রাষ্ট্রগুলো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশকে খুঁজছে। কারণ তারা জানে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে তাদের বিনিয়োগ বিফলে যাবে না।
বেজার সহকারী প্রকৌশলি ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান, কোন শিল্প প্রতিষ্ঠান চাইলে গ্যাস সরবরাহ করে কারখানায় উৎপাদন কাজ শুরু করতে পারবে। ইতিমধ্যে জিং জিয়াং ও পাওয়ার প্লান্ট গ্যাস সরবরাহ করেছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর এখনো পুরোপুরি দৃশ্যমান। নতুন নতুন বিনিয়োগ আসছে।
বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে ১৫ বিলিয়ন ডলারের বেশি বিনিয়োগ প্রস্তাব এসেছে। সর্বশেষ চীনের ইয়াবাং গ্রুপ ১শত একর জমির ইজারা চুক্তি করেছে। এতে তারা প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। এছাড়া ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের জন্য অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠায় তৃতীয় এলওসি এর আওতায় ১১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দিচ্ছে ভারত। 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ