Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বোমা ও জঙ্গি নিয়ে শ্বাসরুদ্ধকর আতংক কেটেছে সিলেটে!

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১২ আগস্ট, ২০২০, ৩:০১ পিএম

প্রায় গত ২৪ ঘণ্টা কেটেছিলো সিলেটবাসীর রুদ্ধশ্বাস বোমাতঙ্কে। গত ৫ আগস্ট সন্ধ্যায় সিলেট নগরীর চৌহাট্টায় পুলিশ সার্জেন্ট চয়ন নাইডুর মোটরসাইকেলে অজ্ঞাতদের ‘গ্রাইন্ডিং মেশিন’ রাখার ঘটনাকে কেন্দ্র করে মুহূর্তেই বোমাতঙ্ক ছড়ায় সিলেটজুড়ে। ২০-২২ ঘণ্টা পর সেই আতঙ্কের অবসান ঘটায় সেনাবাহিনীর বোম ডিসপোজাল টিম।

এদিকে, চৌহাট্টার ঘটনা পরই রোববার দিবাগত (১০ আগস্ট) রাত থেকে শুরু হয় জঙ্গি আতঙ্ক। রাত থেকে শুরু করে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত চরম আতঙ্গ অস্থিরতায় ছিল নগরবাসীর। মঙ্গলবার রাতে জঙ্গিদের দুই আস্তানায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানের মধ্য দিয়ে অনেকটাই সেই আতঙ্ক কেটেছে সিলেটে। রোববার দিবাগত রাতে সিলেট নগরী এবং আশেপাশের কয়েকটি এলাকায় জঙ্গি ধরতে অভিযানে নামে পুলিশ। অভিযানকালে নগরীর মিরাবাজার উদ্দীপন-৫১ নম্বর বাসা থেকে আটক হয় নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ বা নব্য জেএমবির সদস্য নাইমুজ্জামান নাইম। নাইম নব্য জেএমবির ‘সিলেট আঞ্চলিক কমান্ডার’ সে। পরবর্তীতে তার তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার রাতে ও মঙ্গলবার ভোরে পৃথক দুটি অভিযানে নেমে আটক করা হয় আরো ৪জনকে। এর মধ্যে নগরীর জালালাবাদ আবাসিক এলাকার সানাউল ইসলাম সাদী নামের একজনও ছিল।

এছাড়াও শহরতলির টুকেরবাজার এলাকা থেকে আটক হয় ৩জন। নাইম ও সাদী শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। আটক অন্যরা রুবেল, মির্জা সায়েম ও জুয়েল। এই ৫ ‘জঙ্গি’ হামলার পরিকল্পনা করছিলো হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজারে। পরবর্তীতে এই ৫ জঙ্গির দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) রাতে পৃথক অভিযান চালিয়ে পুলিশ ও র‌্যাব নগরীর উদ্ধার করে জালালাবাদ ও টিলাগড়ের শাপলাবাগ আবাসিক এলাকার দুটি বাসা থেকে বোমা, বোমা তৈরির সরঞ্জাম ও জঙ্গি তৎপরতায় ব্যবহৃত কম্পিউটার। মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টায় নগরীর জালালাবাদ আবাসিক এলাকার ( নং ৪৫/১০ নং) মুক্তিযোদ্ধা মইনুল আহমদের বাসায় পুলিশ অভিযান চালায়। এসময় বাসা থেকে বোমা, বোমা তৈরির সরঞ্জাম এবং কয়েকটি কম্পিউটার সহ বোমা তৈরির বেশকিছু ভিডিও উদ্ধার করা হয়। অপরদিকে, জঙ্গি নাইম ও সায়েমকে নিয়ে রাত সাড়ে ৯টায় নগরীর টিলাগড়ের শাপলাবাগ আবাসিক এলাকার ৪০/এ ‘শাহ ভিলা’ নামের বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব ও পুলিশ। এসময় জব্দ করা হয় জঙ্গি তৎপরতায় ব্যবহৃত কয়েকটি কম্পিউটার । সর্বশেষ এই দুই স্থানে অভিযান শেষে আটককৃত ৫ জঙ্গিকে নিয়ে মঙ্গলবার রাতেই পুলিশ রওয়ানা দেয় ঢাকার উদ্দেশ্যে ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আতংক


আরও
আরও পড়ুন