Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

চাঁদপুর শহর রক্ষা বাঁধে ভাঙ্গনে গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন

চাঁদপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ আগস্ট, ২০২০, ২:২৪ পিএম

চাঁদপুর শহর রক্ষা বাঁধের পুরান বাজারে মেঘনার ভাঙ্গনে সরবরাহ লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সাময়িকভাবে বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। বুধবার মধ্যরাতে নদীতে
বিদ্যুতের খুঁটি তলিয়ে যাওয়ায় এবং সরবরাহ লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ওই এলাকায় গ্যাস ও বিদ্যুৎ লাইন বিচ্ছিন্ন রাখা হয়েছে। বিদ্যুৎ ও গ্যাস বিভাগের লোকজন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কাজ শুরু করেছে।

শহর রক্ষা বাঁধের পুরান বাজার হরিসভা মন্দির এলাকার লোকজন জানান, বুধবার মধ্যরাতে ২৫ মিটার এলাকায় আবারো ফাটল দেখা দেয়। মুহূর্তেই ঐ এলাকার সিসি ব্লক নদীতে তলিয়ে যায়। ভাঙ্গনের মুখে রয়েছে আরো ২০মিটার এলাকা। আতঙ্কে স্থানীয় বাসিন্দারা মালামাল সরিয়ে নেন।

স্থানীয়রা জানান, মেঘনা নদীর পানি প্রবল বেগে প্রবাহিত হওয়ার পাশাপাশি সৃষ্ট ঘূর্ণিপাকে হরিসভাসহ পুরান বাজার ব্যবসায়িক এলাকা ঝুঁকিতে রয়েছে । শহর রক্ষা বাঁধের হরিসভা এলাকায় মাসখানেক আগে ভাঙ্গন দেখা দেয় ।ওই সময় ভাঙ্গনরোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড বালি ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলে ভাঙন প্রতিরোধের চেষ্টা করে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, আকস্মিক ভাঙ্গনে ওই এলাকার একটি বিদ্যুতের খুঁটি তারসহ নদীতে তলিয়ে গেছে। হরিসভা রোডের অর্ধেক অংশ মেঘনায় দেবে যাওয়ায় গ্যাসের সরবরাহ লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ কারণে পুরান বাজারের অধিকাংশ এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।
পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বাখরাবাদ গ্যাস ও বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন কাজ শুরু করেছে। বিকেল নাগাদ স্বাভাবিক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

পাউবো কুমিল্লা অঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী জহির উদ্দিন আহমেদ ইনকিলাবকে জানান,২০০২ সালে চাঁদপুর শহর রক্ষা বাঁধের ৩৩ মিটার এলাকায় সংরক্ষন কাজ করা হয়। এরপর আর সংস্কার করা হয়নি। এই কারণে প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে অস্বাভাবিক পানির চাপ ও ঘূর্ণিপাকে শহর রক্ষা বাঁধে ভাঙ্গন দেখা দেয়।

চাঁদপুর পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী বাবুল আখতার জানান, প্রায় ৪৫ মিটার এলাকাজুড়ে শহর রক্ষা বাঁধের পুরানবাজার অংশে ফাটল দেখা দেয়। ইতিমধ্যে ২৫মিটার এলাকার সিসি ব্লক দেবে গেছে। ভাঙ্গন প্রতিরোধে তাৎক্ষণিক জিও টেক্সটাইল ব্যাগ ফেলা হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভাঙ্গন


আরও
আরও পড়ুন